Inqilab Logo

শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯, ২৪ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

পণ্য পরিবহনে চরম ভোগান্তি

চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ রুটে অপ্রশস্ত সড়ক

মাহবুবুল আলম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে | প্রকাশের সময় : ২৪ মে, ২০২২, ১২:০২ এএম

চাঁপাইনবাবগঞ্জ বিশ্বরোড থেকে সোনামসজিদ স্থলবন্দরের দূরত্ব ৩৬ কিলোমিটার। এ সড়কটি দখল করে আছে ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা, সিএনজিসহ ছোট যানবাহনে। তাছাড়া সড়কটির পাশেই আছে কয়েকটি হাট-বাজার। আরেক দিকে সড়কটি অপ্রশস্ত (সরু) হওয়ায় নির্ধারিত সময়ে স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি করা পণ্যগুলো গন্তব্যে পৌঁছছেনা। গতিবিধি না মেনে যান চলাচল করায় প্রতিনিয়ত ঘটছে সড়ক দুর্ঘটনা।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ সড়কটিতে প্রতিনিয়ত সড়ক দুর্ঘটনা ঘটায় চার লেন করার দাবি উঠেছে জোরেশোরে। সড়কটি চাল লেন করা হলে যেমন পণ্যবাহী ট্রাক যথা সময়ে গন্তব্যে পৌঁছাবে অন্যদিকে সড়ক দুর্ঘটনাও কমে আসবে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।
জানা যায়, সোনামসজিদ স্থলবন্দর থেকে আমদানি পণ্য পরিবহনের এটিই একমাত্র সড়ক। সারাদিনে পন্য স্থলবন্দর থেকে সাড়ে ৩০০ বেশি বেশি ট্রাক আসে। সড়কটি ৬ দশমিক ৫ মিটার প্রশস্ত। এ সড়কের প্রশস্ত কম হওয়ায় ট্রাক চালকদের পোহাতে হয় ভোগান্তি। বাধ্য হয়ে কম গতিতে ট্রাক চলাতে হয় চালকদের। ফলে পচনশীলপণ্য নিয়ে নির্ধারিত সময়ে গন্তব্যে পৌছতে পারেনা ট্রাকগুলো। অপ্রশস্ত সড়কের কারণে ঘটছে দুর্ঘটনাও।
শফিকুল নামের এক ট্রাক চালক জানান, চাঁপাইনববগঞ্জ-সোনামসজিদ সড়কটি খুব ঝুঁকিপূর্ণ। এ সড়কে বেশি অটো, রিক্সা, সিএসজি বেশি হওয়ায় আমাদের ট্রাকগুলো খুব ধীর গতিতে চালাতে হয়। ফলে সঠিক সময়ে আমরা পণ্যগুলো দিয়ে আসতে পারছি না। কাঁচা পণ্যগুলো বাজারজাত করার জন্য দ্রুত যাওয়ার চেষ্টা করলেও মাঝে মাঝে বাজার ধরতে পারিনা। পণ্যের মালিক বকাঝকা করে।
আরেক ট্রাক চালক সেরাজুল ইসলাম বলেন, এ সড়কের পাশে বারঘোরিয়া বাজার; ফিল্ডের হাট, রানিহাটি বাজার, ছত্রাজিতপুর, ছোটচক আমবাজার, কানসাট আম বাজার আছে। এছাড়াও রাস্তার জমিতে দোকানপাট নির্মাণ করায় মানুষ অসচেতন ভাবে চলাফেরা করছে। ফলে ঘটছে সড়ক দুর্ঘটনা। এছাড়াও অটো চালকরা যাত্রী উঠানোর জন্য যেখানে সেখানে দাঁড় করায়, ট্রাকের গতি একটু বেশি থাকলেই অটোতে ধাক্কা লাগে। নিজেকে খুব খারাপ লাগলেও, তখন আর কিছুই করার থাকেনা।
চলতি বছরের মধ্য এপ্রিল পর্যন্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ সড়কে ছোট-বড় ১৯টি দুর্ঘটনা ঘটেছে। তার মধ্যে চলতি বছরের ২৯ মার্চে দুপুরে ওই সড়কের পুকুরিয়া এলাকায় ট্রাক চাপায় মুনিরা খাতুন (১০) নামের এক স্কুল ছাত্রী নিহত হয়। ওইদিন চার লেনের দাবিতে স্থানীয়রা দেড় ঘণ্টা ধরে সড়ক অবরোধ করে। সড়কটি চার লেন করে দেয়ার উপজেলা প্রশাসের আশ্বাসে সড়ক অবরোধ বন্ধ করে স্থানীয়রা।
নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলননের চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা সভাপতি শফিকুল আলম ভোতা জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ আর শিবগঞ্জ পাশাপাশি উপজেলা। এ দুই উপজেলায় জনসংখ্যা বেশি হওয়ার পাশাপাশি শিবগঞ্জে একটি স্থলবন্দর আছে। এক দিকে মানুষ যাতায়াতের জন্য ছোট ছোট যানবাহনের সংখ্যা বাড়ছে অন্যদিকে স্থলবন্দরে পণ্য পরিবহনের জন্য ট্রাক যাতায়াত করছে। সড়কটি অপ্রশস্ত হওয়ায় সড়টিকে দুর্ঘটনা বাড়ছে।
শফিকুল আলম আরও বলেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ সড়কটি চার লেন করা হলে সড়ক দুর্ঘটনার পাশাপাশি আমদানি পণ্য পরিবহন করা সহজ হবে। শুধু চার লেন করলে হবে না যাতায়াতের ক্ষেত্রেও জনগণকে সচেতন হতে হবে।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সানজিদা আফরীন ঝিনুক জানান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ-সোনামসজিদ স্থলবন্দর সড়ক চার লেনে উন্নীত করার জন্য সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজ শুরু হয়েছে। প্রকল্পটি দৃশ্যমান হতে আরও কিছুদিন সময় লাগবে। তবে রাস্তা প্রশস্ত আর সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করতে শিবগঞ্জের বহলাবাড়ি আর পাইলিং মোড় এ দুটি বাঁক সরলীকরণ করার জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। খুব শিগগির এ উদ্যোগটি বাস্তবায়ন হবে। বাঁক দু’টি সরলিকরণ করা হলে সড়ক দুর্ঘটনা রোধ করা যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন সওজ’র এ কর্মকর্তা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন