Inqilab Logo

শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯, ২৪ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

ফিরে গেলেন লিটন,মুশফিকের দেড়শ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৪ মে, ২০২২, ১১:৩৩ এএম

মিরপুর টেস্টে দ্বিতীয় দিনের শুরুতেই ফিরে গেলেন লিটন ও মোসাদ্দেক। জুটির বিশ্বরেকর্ড গড়ে লিটন ১৩৭ ও মুশফিক ১১৭ রান নিয়ে সকালে ব্যাটিং শুরু করেন। বেশ ভালোভাবেই এগিয়ে যাচ্ছিল মুশফিকুর রহিম ও লিটন কুমারের জুটি।

লিটনের সুযোগ ছিল টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করার। কিন্তু কাসুন রাজিথার বলে সেই স্বপ্ন ভঙ্গ। ফিরে যেতে হয় ১৪১ রানে। এই ওভারে বিদায় নেন মোসাদ্দেক হোসেন।

লিটন ফিরে গেলেও মুশফিক দেড়শত রান করে এগিয়ে যাচ্ছেন ডাবল সেঞ্চুরির পথে। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ১০২ ওভারে ৭ উইকেটে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩৩৭। মুশফিক ১৫৭ ও তাইজুল ১০ রানে অপরাজিত আছেন।

দিনের শুরুতে দেখেশুনে প্রথম আধঘণ্টা সাবধানী ব্যাটিংয়ে কাটিয়ে দিলেও নিজের ইনিংস বেশিদূর টেনে নিতে পারলেন না লিটন। দ্বিতীয় স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফিরলেন এই কিপার ব্যাটসম্যান।

৯৩ ওভারের প্রথম বলটি অফ স্টাম্পের ওপর লেংথে করেন রাজিথা। হালকা ভেতরে ঢোকা বল লিটনের ব্যাটের বাইরের কানা নিয়ে যায় দ্বিতীয় স্লিপে। নিচু ক্যাচ দারুণ দক্ষতায় মুঠোয় জমান কুসল মেন্ডিস। ক্যারিয়ার সেরা ১৪১ রান করা লিটনের বিদায় ভাঙল ৫১৩ বল স্থায়ী ২৭২ রানের রেকর্ড জুটি। ২৪৬ বল খেলা কিপার-ব‍্যাটসম‍্যান লিটনের ইনিংসটি সাজানো ১৬ চার ও এক ছক্কায়।

তিন বছর পর টেস্ট দল ফেরা মোসাদ্দেক ফিরে গেলেন দুই বল পরই। সুইং করে বেরিয়ে যাওয়া বল খোঁচা দিয়ে শূন্য রানে কিপারের গ্লাভসে ধরা পড়লেন তিনি।
এই সাফল্যের সঙ্গে টেস্ট ক্যারিয়ারে প্রথম পাঁচ উইকেটের স্বাদ পেলেন রাজিথা।

এর আগে মিরপুর টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ৭ ওভারে ২৪ রানে ৫ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। সকালে ভয়াবহ ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাসের অসাধারণ ব্যাটিংয়ে দিনটা নিজেদের করে নেয় স্বাগতিকরা। দিন শেষে দুজনের অবিচ্ছিন্ জুটির রান ২৫৩।

ষষ্ঠ উইকেটে বাংলাদেশের প্রথম দুইশ রানের জুটি এটি। ২৫ রানের মধ্যে ৫ উইকেট হারানোর পর শতরানের জুটিও ছিল না টেস্ট ইতিহাসে আর কোনো দলের। ফলে প্রথম দিনের খেলা শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮৫ ওভারে ৫ উইকেটে ২৭৭ রান।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন