Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২, ১৪ আষাঢ় ১৪২৯, ২৭ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

ভারতে এবার কমলো ভোজ্যতেলের দাম

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৫ মে, ২০২২, ১২:০০ এএম

জ্বালানি তেলের পর ভারতে এবার ভোজ্য তেলের দামও কমেছে। এর ফলে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের দাম কমবে বলে আশা করছেন দেশটির ব্যবসায়ীরা। গত সপ্তাহে ইন্দোনেশিয়া পাম তেল রফতানি নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের ঘোষণার পর থেকেই ভারতে ভোজ্য তেলের দাম নিম্নমুখী।

ভারতের একাধিক সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, গত সপ্তাহে দেশটিতে বেশির ভাগ তেলবীজের দাম কমেছে। ফলে কাচি ঘানি সরিষার তেলের দাম কমেছে প্রতি টিনে (১৫ কেজি) ৪০ রুপি। এছাড়া সয়াবিনের দাম কমেছে লিটারপ্রতি চার থেকে পাঁচ রুপি। জানা গেছে, ভারতে এক সপ্তাহের ব্যবধানে সরিষার দাম প্রতি কুইন্টালে (১০০ কেজি) ১০০ রুপি কমে ৭ হাজার ৫১৫ থেকে ৭ হাজার ৫৬৫ রুপি হয়েছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে সরিষা দাদরি তেলের দাম ২৫০ রুপি কমিয়ে কুইন্টালপ্রতি ১৫ হাজার ৫০ রুপি করা হয়েছে। সরিষা পাক্কি ঘানি ও কাচ্চি ঘানি তেলের দাম প্রতি টিনে (১৫ কেজি) ৪০ রুপি কমিয়ে যথাক্রমে ২ হাজার ৩৬৫ থেকে ২ হাজার ৪৪৫ এবং ২ হাজার ৪০৫ থেকে ২ হাজার ৫১৫ রুপি হয়েছে।

ভারতে সয়াবিন দানা ও সয়াবিন তেলের দামও কমেছে। দেশটিতে সয়াবিন তেলের দাম প্রতি কুইন্টালে ৪০০ থেকে ৫০০ রুপি কমানো হয়েছে। দিল্লির পাইকারি বাজারে সয়াবিন তেলের দাম প্রতি কুইন্টালে ৪০০ রুপি কমে ১৬ হাজার ৬৫০ রুপি হয়েছে। অর্থাৎ, সয়াবিন তেলের দাম লিটারে চার রুপি কমেছে।

দেশটিতে অপরিশোধিত পাম তেলের দাম প্রতি কুইন্টালে ৫০০ রুপি কমে ১৪ হাজার ৮৫০ রুপি হয়েছে। দিল্লিতে পামোলিনের দাম প্রতি কুইন্টালে ৬০০ রুপি কমে ১৬ হাজার ৩৫০ এবং কান্দলায় ৫২০ রুপি কমে ১৫ হাজার ২০০ রুপিতে দাঁড়িয়েছে। চলতি সপ্তাহে ভারতে পেট্রোল ও ডিজেলে শুল্ক কমানোর ঘোষণা দেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। এর ফলে দেশটিতে পেট্রোলের দাম কমেছে লিটারপ্রতি সাড়ে ৯ রুপি ও ডিজেলে সাত রুপি। দাম কমছে রান্নার গ্যাসেরও। এ প্রকল্পে উজ্জ্বলা গ্যাস সিলিন্ডারে ২০০ রুপি করে ভতুর্কির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বছরে ১২টি সিলিন্ডার ব্যবহারের ক্ষেত্রে এ ছাড় পাবেন গ্রাহকরা।

তেলের দাম কমানোয় নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর দাম কমপক্ষে ১০ শতাংশ কমবে বলে দাবি করেছে ক্ষুদ্র ও বৃহৎ ব্যবসায়ীদের সংগঠন কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্সের (সিএআইটি)। ব্যবসায়ী সংগঠনের দাবি, সড়ক পথে অধিকাংশ নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী দেশের বিভিন্ন প্রান্েত পৌঁছায়। ফলে জ্বালানির দাম কমায় ঐ সব জিনিসের দাম কমবে। সূত্র : ডিএনএ ও ইন্ডিয়া ডটকম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ