Inqilab Logo

বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯, ২৮ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

কিলার মিলারে ফাইনালে গুজরাট

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ মে, ২০২২, ১২:০৮ এএম

শেষ ওভারে প্রয়োজন ছিল ১৬ রানের। যদিও উইকেটে সেট ব্যাটার ডেভিড মিলার ও হার্দিক পান্ডিয়া, তবুও কাজটা সহজ ছিল না। তবে মিলার যেদিন খুনে মেজাজে থাকেন, সেদিন তো কোনো কিছুই যেন অসম্ভব নয়। এদিন আরও একবার তার প্রমাণ দিলেন এ প্রোটিয়া তারকা। টানা তিন ছক্কায় সহজেই কাজটা সেরে ফেলেন তিনি। ফাইনালের টিকিট পেয়ে যায় গুজরাট টাইটান্স। গতপরশু রাতে কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) প্রথম কোয়ালিফায়ারে রাজস্থান রয়েলসকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে গুজরাট টাইটান্স। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৮৮ রান করে রাজস্থান। জবাবে ৩ বল বাকি থাকতেই লক্ষ্যে পৌঁছায় গুজরাট।
লক্ষ্য তাড়ায় অবশ্য শুরুতেই ধাক্কা খায় গুজরাট। খালি হাতে ফিরে যান ঋদ্ধিমান সাহা। দ্বিতীয় উইকেটে শুভমান গিলের সঙ্গে ৭২ রানের জুটি গড়েন ম্যাথ্যু ওয়েড। এরপর অবশ্য ১৩ রানের ব্যবধানে এ দুই সেট ব্যাটারকে ফিরিয়ে ম্যাচে ফিরেছিল রাজস্থান। তবে অধিনায়ক হার্দিকের সঙ্গে মিলারের অবিচ্ছিন্ন ১০৬ রানে জুটিই শেষ করে দেয় তাদের আশা। দুর্দান্ত ফিনিশ দিয়ে ৩৮ বলে ৬৮ রানের ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন মিলার। অথচ প্রথম ১৪ বলে তার ব্যাট থেকে আসে মাত্র ১০ রান। শেষ ২৪ বলে করেন ৫৮ রান। নিজের ইনিংসটি ৩টি চার ও ৫টি ছকায় সাজান এ প্রোটিয়া ব্যাটার। ২৭ বলে ৪০ রানে অপরাজিত থাকেন হার্দিক। এছাড়া শুভমান ও ওয়েড দুইজনই করেন ৩৫ রান করে।
এর আগে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামা গুজরাটের ওপেনিং জুটি ভাঙে দলীয় ১১ রানে। তবে সাঞ্জু স্যামসনের সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটে ৬৮ রানের জুটি গড়ে প্রাথমিক ধাক্কা সামাল দেন বাটলার। এরপর দেভদুত পাড়িক্কালের সঙ্গে ৩৭ রান ও সিমরান হেটমায়ারের সঙ্গে ৪৫ আরও দুটি জুটি গড়েন এ ইংলিশ তারকা। তাতেই লড়াইয়ের পুঁজি পেয়ে যায় দলটি। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮৯ রানের ইনিংস খেলেন বাটলার। ৫৬ বলে ১২টি চার ও ২টি ছক্কার সাহায্যে এ রান করেন তিনি। ৪৭ রান করেন স্যামসন। ২৬ বলে ৫টি চার ও ৩টি ছক্কায় এ রান করেন অধিনায়ক। ২৮ রান আসে পাড়িক্কালের ব্যাট থেকে। চলতি মৌসুম দিয়েই গুজরাট টাইটান্সের আইপিএল যাত্রা শুরু। প্রথম আসরেই পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে থেকে লিগ পর্ব শেষ করে তারা। সে ধারায় এবার সবার আগে জায়গা করে নিল ফাইনালেও।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন