Inqilab Logo

রোববার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১৯ আষাঢ় ১৪২৯, ০৩ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

ভারতজুড়ে বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলোতে মুসলমানদের চরম হয়রানির প্রতিযোগিতা চলছে : মেহবুবা মুফতি

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ মে, ২০২২, ১১:৩৫ এএম

পিপলস ডেমোক্রেটিক পার্টির সভাপতি মেহবুবা মুফতি বলেছেন, ভারতজুড়ে বিজেপি শাসিত রাজ্যগুলোতে মুসলমানদের হয়রানির প্রতিযোগিতা চলছে। জম্মু-কাশ্মীর, গুজরাট, আসাম এবং উত্তরপ্রদেশসহ পুরো ভারতজুড়ে মুসলমানদের হয়রানি করা হচ্ছে। তিনি শ্রীনগরে তার বাসভবনে সোমবার আয়োজিত বেশকিছু কর্মী পিডিপিতে যোগদান অনুষ্ঠানে বক্তব্য দিতে গিয়ে এমন এই মন্তব্য করেন। -কেএমএসনিউজ, টাইমস অব ইন্ডিয়া

মেহবুবা বলেন, বিজেপি ভারতের ভিত্তি নষ্ট করছে এবং সংবিধানকে ছিন্নভিন্ন করছে। তিনি বলেন, আমাদের এক হিন্দু ভাইকে গতকাল মধ্যপ্রদেশে নৃশংসভাবে খুন করা হয়েছে। কারণ, খুন করার আগে তারা ভুল করে তাকে মুসলমান ভেবেছিল। তারা (বিজেপি) ভারতের ভিত্তি নষ্ট করতে চায়। তিনি বলেন, ধর্মনিরপেক্ষতার ওপর প্রতিষ্ঠিত দেশের সংবিধান ছিঁড়ে ফেলা হচ্ছে। দেশকে গুজরাট, ইউপি এবং আসাম মডেলে পরিণত করার চেষ্টা চলছে।

পিডিপি সভাপতি বলেন, যখন মুসলমানদের শাস্তি দেওয়ার কথা আসে, তখন দেখা যায় এই বিজেপি-শাসিত রাজ্যগুলির মুখ্যমন্ত্রীরা প্রচণ্ড প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন এবং সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা উসকে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। মসজিদ ইস্যুতে মুসলমানদের ক্ষুব্ধ করা হচ্ছে, যাতে তারা প্রতিক্রিয়া দেখায় এবং যাতে বিজেপি গুজরাটে যা করেছে, তার পুনরাবৃত্তি করতে পারে। বিজেপি কর্মীরা, তাদের মুখ্যমন্ত্রীসহ, ১৯৪৭ সালের আগের পরিস্থিতির মতই আচরণ করছে, যখন ব্রিটিশরা হিন্দু ও মুসলমানদের একে অপরের সাথে লড়াই করতে বাধ্য করেছিল বলে তিনি উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, ভয়ঙ্কর দিকটি হল যে, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, যিনি একইভাবে মুসলিম ও হিন্দুদের প্রধানমন্ত্রী, এই বিষয়ে নীরব রয়েছেন। তার নীরবতা সাম্প্রদায়িকতাকে উত্সাহিত করে এবং কিছু ক্ষেত্রে তাদের অবৈধ কাজগুলিকে বৈধতা দেয়।

মেহবুবা যোগ করেছেন যে এখন ৩৭০ ধারা বাতিল করার জন্য বিজেপির নষ্ট পরিকল্পনার তথ্য প্রকাশ পেয়েছে এবং জম্মু ও কাশ্মীরের জনগণকে প্রান্তিক ও অক্ষম করার জন্য প্রতিটি প্রচেষ্টা করা হচ্ছে। তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন, যে বিচার বিভাগ এবং মিডিয়া, যাদের প্রশাসনকে জবাবদিহি করার কথা ছিল, তারা সরকারী হাতিয়ারে পরিণত হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ভারত


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ