Inqilab Logo

শনিবার, ২৫ জুন ২০২২, ১১ আষাঢ় ১৪২৯, ২৪ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

হজ প্যাকেজে ব্যয় বাড়লো ৫৯ হাজার টাকা

সংবাদ সম্মেলনে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ মে, ২০২২, ৬:২২ পিএম

সউদী আরবে আবশ্যকীয় ব্যয় ৫৯ হাজার টাকা বাড়িয়ে হজ প্যাকেজের সর্বনি¤œ ব্যয় নির্ধারণ করা হয়েছে ৫ লাখ ২২ হাজার ৭৪৪ টাকা। সউদী সরকারের ঘোষিত মোয়াল্লেম ফি’অনুসরণ করেই ৫৯ হাজার টাকা হজ প্যাকেজে অর্ন্তভূক্ত করা হয়েছে। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী মো. ফরিদুল হক খান আজ বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে বর্ধিত হজ প্যাকেজ ঘোষণা করেন। সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (হজ) মতিউল ইসলাম, হাবের সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম ও উপসচিব হজ আবুল কাশেম মো. শাহীন।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সউদী সরকার মিনায় অবস্থান স্থলের ভিত্তিতে চার ক্যাটাগরিতে বিভক্ত করে চার ধাপের ব্যয়ের বিবরণ নির্ধারণ করেছে। এর মধ্যে সর্বনিম্ন ব্যয়ের ধাপ ডি ও সি প্রকাশ করেছে। এতে মোয়াল্লেম ফি সি অনুসারে ১ লাখ ৫ হাজার ৫৯৭ টাকা এবং ডি অনুসারে ৭৪ হাজার ৫শ’টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। উন্নতমানের বাস সার্ভিস, ট্রেন ভাড়া এবং বাড়িভাড়া হতে উভয় প্যাকেজে কিছু অর্থ সাশ্রয় করা গেছে। উত্ত সাশ্রয় এবং হজযাত্রীদের আর্থসামাজিক অবস্থার প্রতি সহানুভুতিশীল দৃষ্টিভঙ্গি রেখে উভয় প্যাকেজে সউদী আরবে আবশ্যকীয় ব্যয় ৫৯ হাজার টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে। আজ হজ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত নির্বাহী কমিটির সভায় তা’সর্বসম্মতিক্রমে এই ব্যয় বৃদ্ধি অনুমোদন করা হয়। আগামী ৩০ মে’র মধ্যে হজযাত্রীকে হজ প্যাকেজের সর্বনি¤œ ব্যয়ের অর্থ ৫ লাখ ২২ হাজার ৭৪৪ টাকা সংশ্লিষ্ট ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে পরিশোধ করতে হবে। এ লক্ষ্যে আগামী শনিবার দেশব্যাপী তফসিলি ব্যাংকসমূহ খোলা রাখার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে হাব সভাপতি এম শাহাদাত হোসাইন তসলিম বলেন, হজ ব্যবস্থাপনার অন্যান খাত থেকে সমন্বয় করে পূর্ব ঘোষিত হজ প্যাকেজের মূল্যের সাথে আরো ৫৯ হাজার টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে। হাব বর্ধিত ব্যয় ৫৯ হাজার টাকা মেনে নিয়েছে।

সরকারি ব্যবস্থাপনায় হজ প্যাকেজ-১ এর অধীনে জনপ্রতি ৪ লাখ ২৭ হাজার ৩৪০ টাকা ধরা হয়েছিল। প্যাকেজ-২ এর অধীনে ধরা হয় জনপ্রতি ৪ লাখ ৬২ হাজার ১৫০ টাকা। সরকারি ব্যবস্থাপনায় এ দুটি প্যাকেজের সঙ্গে বাড়তি ৫৯ হাজার টাকা যোগ হবে। প্যাকেজ-১ এর খরচ বেড়ে হবে ৫ লাখ ৮৬ হাজার ৩৪০ টাকা ও প্যাকেজ-২ এর খরচ বেড়ে হবে ৫ লাখ ২১ হাজার ১৫০ টাকা। এছাড়া বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪ লাখ ৬৩ হাজার ৭৪৪ টাকার সঙ্গে ৫৯ হাজার টাকা যোগ হয়ে মোট ৫ লাখ ২২ হাজার ৭৪৪ টাকা খরচ হবে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, হজ প্যাকেজ ঘোষণার পর রাজকীয় সউদী সরকার থেকে অতিরিক্ত কোনো চার্জ আরোপ করা হলে তা প্যাকেজ মূল্য হিসেবে গণ্য হবে এবং হজযাত্রীকে পরিশোধ করতে হবে। কোনো অর্থ অব্যয়িত থাকলে তা হাজিদের ফেরত দেয়া হবে’ এ শর্তে ১১ মে হজ প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছিল।

করোনা মহামারির কারণে রাজকীয় সউদী সরকার কর্তৃক হজের ঘোষণার বিলম্বের জন্য এবং সউদী আরব থেকে প্রকৃত খরচের বিবরণী না পাওয়ায় সম্ভাব্য ব্যয় বিবেচনা করে প্রভিশনাল হজ প্যাকেজ প্রস্তুত করা হয়েছিল। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন আগামী ৫ জুন থেকে হজ ফ্লাইট শুরু হয়ে শেষ হবে ৩ জুলাই। আর ফিরতি ফ্লাইট ১৪ জুলাই শুরু হয়ে শেষ হবে ১৪ আগস্ট। তিনি জানান, আগামী ৩ জুলাই আশকোণাস্থ হজ ক্যাম্প উদ্বোধনের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। এক প্রশ্নের জবাবে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, রাষ্ট্রীয় খরচে এবার কেউ হজ করতে যাবেন কী যাবেন না এটা নির্ভর করছে প্রধানমন্ত্রীর । প্রধানমন্ত্রীর সিদ্ধান্তের পর তা’ জানানো হবে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, হজ মৌসুমে সউদী আরবে হাজীদের সেবায় নিয়োজিত ২৬ জন কর্মকর্তাকে প্রশাসনিক টিমে সউদী যাওয়ার অনুমোদন দেয়া হয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ