Inqilab Logo

শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

নিবেদিত কবিতা

| প্রকাশের সময় : ২৭ মে, ২০২২, ১২:৩২ এএম

প্রিয়মুখ

রেশম লতা
হয়েছিল কে যুগযন্ত্রণায় দগ্ধ?
শাসন, শোষণ আর উপেক্ষিত শক্তিকে
উপেক্ষা করে গেয়েছিল মুক্তির গান
কে ছিল সে নবজাগরণের বার্তাবাহক?
উন্মুক্ত তলোয়ার হাতে কে হয়েছিল
অগ্রগামী, দৃঢ় প্রত্যয়ী অগ্রপথিক
পরাধীন ভারতবাসীর অন্ধকারময়, তমসাচ্ছন্ন
বিবর্ণ জীবন দেখে
কার প্রাণ উছলে উঠেছিল হোমহুতাশনে?
দূর্বল, ভীতু ভারতের জমিনে যখন
অত্যাচারীর আঘাতে আঘাতে চৌচির
হায়েনার নখরে নখরে শতছিন্ন
তখন কে গেয়েছিল জয়োধ্বনির গান?
কে পাষাণের বুকে লাথি মেরে
এনেছিল রাজ রাজটিকার চন্দন?
কন্ঠে কে তুলেছিল সর্বহারার সুর?
কে প্রতিবাদে তুলেছিল ঝংকৃত তাল
প্রলয়ঙ্কারী ঘূর্ণিতে কে করেছিল
স্বৈরাচারী টালমাটাল?
পরাধীনতার শৃঙ্খলে কে মেরেছিল ঘা
জাতি যখন অশনি সংকেতে পরিণত
ঘুমন্ত জনতা ভয়ে জড়সর!
কে তখন এক হাতে শত্রুর ঘাটিতে লাগিয়েছে আগুন
পুড়িয়েছে শতাব্দীর ঝঞ্ঝাট?
সে তো ঝাঁকড়া চুলের বাবরি দোলানো
মহান পুরুষ
বিদ্রোহী পথে হেঁটেও ভুলেনি আল্লাহ্-রাসূল
সে আমাদের প্রিয় চেনা মুখ কবি কাজী নজরুল।

 

প্রণাম
উত্তম কুমার দাস
মোমবাতিতে পুড়ে যাওয়া রাতগুলো একটু পাশ ফিরে শুয়ে ছিল....
ঘুম ভাঙতে একটু তাড়া ছিল শুরুর প্রত্যাশায়।

একফোঁটা রসদ নিয়ে দিগ্বিজয়ের পরিকল্পনাটা যখন বাউন্ডুলের হাতে ছিল......
অগ্নিবীণা বাঁধা হয়েছিল সুরের একতারে।

ঘোরের মধ্যে থেকেও ঘোর কাটাতে সরাসরি মস্তকে আঘাত
সুরের দোলায় রবি-শশীর দোলন আজ কাল সীমায় উত্তীর্ণ।

হৃদয়ের কারাগারে বন্দি সেজন
হোক না অপ্রত্যাশিত
তবু নতুন একটা পথ....

 


অগ্নিবীণার ফুল
এনাম আনন্দ

পুব গগনে পুবের বাতাস
যার চুলে খায় দোল
দোলে দোলে ঝাঁকড়া চুলে
বিদ্রোহী নজরুল।
বাঁশির টানে মন উতলা
সুরের-ই বুলবুল
সিন্ধু সেঁচে মুক্তা আনে
বিদ্রোহী নজরুল।
চুরুলিয়া জন্মনিলো
অগ্নিবীণার ফুল
যার কবিতায় ব্রিটিশ টলে
বিদ্রোহী নজরুল।
প্রেমের কবি সাম্যের কবি
ছয়ানট হিন্দোল
আমাদের সেই দুখু মিয়া
বিদ্রোহী নজরুল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: নিবেদিত কবিতা

২৭ মে, ২০২২
২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯
আরও পড়ুন