Inqilab Logo

ঢাকা বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ১২ কার্তিক ১৪২৭, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪২ হিজরী

পাকিস্তানের আবারো ব্যাটিং ধ্বস

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ নভেম্বর, ২০১৬, ১০:৫৩ পিএম

স্পোর্টস ডেস্ক : প্রথম ইনিংসে ১৩৩ রানে অলআউট হওয়া পাকিস্তান নিউজিল্যান্ডকেও বেশি লিড নিতে দেয়নি। তবে দ্বিতীয় ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি মিসবাহ-উল হকের দল। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ক্রাইস্টচার্চের তৃতীয় দিন শেষে পাকিস্তানের লিড ৬২ রানের, হাতে মাত্র ৩ উইকেট। বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান বলতে ৬ রান নিয়ে ব্যাটে আছেন আসাদ শফিক। প্রথম দিন বৃষ্টিতে ভেসে যাওয়ার পর দ্বিতীয় দিন দেখা মেলে ১৩ উইকেটের পতন। গতকাল তৃতীয় দিনে উইকেট গেল আরো একটি বেশি, দু’দলেরই সমান ৭টি করে। তবে প্রথম ইনিংসে ৬৭ রানে পিছিয়ে থাকায় মূল্যটা বেশি দিতে হয়েছে পাকিস্তানকেই। বৃষ্টির বাধায় একদিন পর শুরু হওয়া টেস্ট এখন নির্ধারিত সময়ের একদিন আগেই শেষ হওয়ার অপেক্ষায়।
রান যাই হোক দাঁতে দাঁত চেপে উইকেটে টিকে থাকার লড়াইটা ভালোই চালিয়ে যাচ্ছিল পাকিস্তান। কিন্তু শেষ বিকেলের ৯ ওভার হয়ে থাকল পাকিস্তানের জন্য দুঃখের কারণ। এসময় ঝটপট ৪ উইকেট না হারালে এগিয়ে থেকেই দিন শেষ করতে পারত মিসবাহ-উল হকের দল। ১৮ ওভারের উদ্বোধনী জুটিতে আসে ২১ রান! ৪৫তম ওভারে যখন তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ইউনিস খান ফেরেন স্কোরবোর্ডে তখন ৬৪ রান। এরপর ভালোই এগুচ্ছিল আজহার-মিসবার জুটি। কিন্তু ভুল শটে উইকেট খুইয়ে খেলায় ছন্দপতন ঘটান অধিনায়ক মিসবাহ (৪৭ বলে ১৩) নিজেই। পরের ওভারেও থেমে যায় আজহারের ১৭৩ বলে সর্বোচ্চ ৩১ রানের লড়াকু ইনিংস। ৩ উইকেটে ৯৩ থেকে মুহূর্তের পরিণত হয় ৭ উইকেটে ১০৫! এরপর উইকেটে নেমে ৩ চার ও এক ছক্কায় রানের পালে একটু হাওয়া লাগান সোহেল খান (১৮ বলে ২২*)। শফিকের সাথে আজ আবার ব্যাটে নামবেন তিনি। ৫০ ওভারে পাকদের সংগ্রহ ছিল ৮০ রান! ২০০১ সালের পর যা তাদের সর্বনি¤œ রান রেট।
পাক ইনিংসের দ্বিতীয় পর্বে ধ্বসের মূল কারণ ট্রেন্ট বোল্ট, ১৮ রানে তিনি নেন ৩ উইকেট। ২১ রানে ২ উইকেট নিয়ে অবদান রাখেন নিল ওয়েগনারও। রিচার্ড হ্যাডলির পর কিউই বোলার হিসেবে সবচেয়ে কম ম্যাচে ১০০ উইকেটের মাইলফলক স্পর্শ করেন ওয়েগনার (২৬ ম্যাচে)। প্রথম ইনিংসের নায়ক কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম নেন ১ উইকেট।
এর আগে ৩ উইকেটে ১০৪ রান নিয়ে খেলতে নামা স্বাগতিকরা মধ্যাহ্ন বিরতির আগেই গুটিয়ে যায় ২০০ রানে। আগের দিনের অপরাজিত ব্যাটসম্যান ভারতের বংশদ্ভুত জিত রাভাল (৫৫) ফেরেন কোন রান যোগ না করেই। ৬২ রানে সর্বোচ্চ ৪ উইকেট নেন রাহাত আলি, ৩টি করে নেন মোহাম্মাদ আমির ও সোহেল খান। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দলের ফেরার পর ১৩ ইনিংসে এটিই ছিল আমিরের সেরা বোলিং ফিগার (৩/৪৩)। ৬২ রানের লিডটা বাড়িয়ে নিতে এখন শফিকের দিকেই তাকিয়ে থাকতে হবে পাক সমর্থকদের।
পাকিস্তান : ১৩৩ ও ৬৬ ওভারে ১২৯/৭ (সামি ৭, আজহার ৩১, বাবর ২৯, ইউনুস ১, মিসবাহ ১৩, শফিক ৬*, সরফরাজ ২, আমির ৬, সোহেল ২২*; বোল্ট ৩/১৮, সাউদি ১/৪৩, গ্র্যাান্ডহোম ১/২৩, ওয়েগনার ২/২১, অ্যাস্টল ০/১২)।
নিউজিল্যান্ড : ৫৯.৫ ওভারে ২০০ (ল্যাথাম ১, রাভাল ৫৫, উইলিয়ামসন ৪, টেইলর ১১, নিকোলস ৩০, গ্র্যান্ডহোম ২৯, ওয়াটলিং ১৮, অ্যাস্টল ০, সাউদি ২২, ওয়েগনার ২১, বোল্ট ৩*; আমির ৩/৪৩, সোহেল ৩/৭৮, রাহাত ৪/৬২, ইয়াসির ০/১৬)
তৃতীয় দিন শেষে ৩ উইকেট হাতে নিয়ে পাকিস্তান ৬২ রানে এগিয়ে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন