Inqilab Logo

বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১৫ আষাঢ় ১৪২৯, ২৮ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী
শিরোনাম

প্রতিশোধের মঞ্চে রোমাঞ্চের পসরা

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ মে, ২০২২, ১২:০১ এএম

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জ্বরে কাঁপছে ফুটবল বিশ্ব। ফুটবলপ্রেমীরা অপেক্ষায় সে মাহেন্দ্রক্ষণের। বাংলাদেশ সময় আজ রাতে ফ্রান্সের স্টেডিয়াম স্তাদে দ্য ফ্রান্সে হতে যাচ্ছে যার মঞ্চস্থ। যদিও ম্যাচটি হবার কথা ছিল সেন্ট পিটার্সবার্গে। তবে চলমান রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে ভেন্যু বদলে হচ্ছে মেসি-নেইমার-এমবাপ্পেদের ক্লাব শহর প্যারিসে। ইউরোপের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের লড়াইয়ে যেখানে স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ইংলিশ জায়ান্ট লিভারপুলের। এরই মধ্যে ম্যাচটিকে ঘিরে পারিসের রাজপথ থেকে স্টেডিয়াম চত্বর বদলে গেছে ইংল্যান্ড আর স্পেনের দুই ক্লাবের রংয়ে।
ইউরোপের ক্লাব ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্বের লড়াই, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ১৩ ট্রফি নিয়ে একক আধিপত্য স্প্যানিশ ক্লাব রিয়াল মাদ্রিদের। ৬ বারের চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল আছে তালিকার তিনে। ইউরোপিয়ান কাপ থেকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ নামকরণের পর, ফাইনালের রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে দুই দলের প্রথম দেখা হয়েছিল ২০১৭-১৮ মৌসুমে। সেবার সালাহ-রোনালদো মুখোমুখি লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত ৩-১ গোলের ব্যবধানে জিতেছিল মাদ্রিদ। কিয়েভের সে ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ অধিনায়ক সার্জিও রামোসের বাজে ট্যাকলে হাতে আঘাত পেয়ে ম্যাচের ৩০ মিনিটের মধ্যে মাঠ ছেড়ে উঠে যেতে বাধ্য হন মোহামেদ সালাহ। দলের সেরা তারকাকে হারিয়ে মাদ্রিদের সঙ্গে আর লড়াইয়ে কুলিয়ে উঠতে পারেনি ক্লপের শিষ্যরা।
সময় গড়িয়ে চার বছর পর ইউরোপের শ্রেষ্ঠ প্রতিযোগিতাটির ফাইনালে আবারও ইংলিশ জায়ান্টদের প্রতিপক্ষ স্প্যানিশ জায়ান্টরা। গোলবারে এবার লড়াইটা সালাহ-বেনজেমার। চলতি আসরে গোলবারে দাপটটা অবশ্য ফরাসি তারকারই বেশি। দুই হ্যাটট্রিকসহ তার ১৫ গোলের বিপরীতে সালাহর গোল সংখ্যা ৮টি। তবে ফাইনালে এসব পরিসংখ্যান চাপিয়ে যে মাঠে ও গোলবারে আধিপত্য দেখাবে ট্রফিটা তার হাতেই উঠবে। এই দুই তারকা ছাড়াও অলরেডদের ফিরমিনো, সাদিও মানে আর ব্লাঙ্কোসদের ভিনিসিউস জুনিয়র ও রদ্রিগো যে কোনো সময় ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারেন।
এদিকে মাঠে নামার আগে দুদল মেতেছেন কথার লড়াইয়েও। ফাইনালে উঠেই হুঙ্কার দিয়েছেন মিশরীয় ফরোয়ার্ড। সালাহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বলে বসলেন, আমাদের কিছু হিসাব-নিকাশ বাকি আছে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সফলতম দলকে হারিয়ে সেদিনের প্রতিশোধই নিতে চান মিসরীয় এই ফরোয়ার্ড। সালাহর কথার প্রত্যুত্তরে রিয়াল মাদ্রিদের কোচ আনচেলত্তি বলেন, ২০১৮-এর ফাইনাল সালাহর জন্য অনুপ্রেরণা হতে পারে। তবে প্যারিসে কিন্তু মাদ্রিদও লিভারপুলের বিপক্ষে একটি ফাইনাল হেরেছিল। তাই আমাদেরও সেই হারের প্রতিশোধ নেয়ার সুযোগ আছে। ১৯৮১ ইউরোপিয়ান কাপ (বর্তমান চ্যাম্পিয়ন্স লিগ) ফাইনালে এ প্যারিসেই লিভারপুলের কাছে হেরেছিল রিয়াল মাদ্রিদ।
রিয়াল মাদ্রিদের সামনে সুযোগ চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সর্বাধিক শিরোপা জয়ের রেকর্ড আরও সমৃদ্ধ করার। দলটির কোচ কার্লো আনচেলত্তিও দাঁড়িয়ে ব্যক্তিগত একটি অর্জনের সামনে। অন্যদিকে, লিভারপুল চাইবে যে করেই হোক চার বছর আগের ফাইনালে হারের শোধ তুলতে। সব মিলিয়ে রোমাঞ্চের ডালি নিয়ে হাজির প্যারিসের ফাইনাল। ম্যাচটির আগে ব্যক্তিগত ও দলগত কিছু পরিসংখ্যানে চোখ বুলিয়ে রাখতে পারেন অপনিও-

>> ক্লাব ফুটবলে ইউরোপের সেরা প্রতিযোগিতায় এর আগে দল দুটি মোট আটবার মুখোমুখি হয়েছে। রিয়াল জিতেছে চার বার, লিভারপুলের জয় তিন ম্যাচে।

>> দল দুটি সবশেষ মুখোমুখি হয়েছিল ২০২০-২১ চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার-ফাইনালে। দুই লেগের সেই লড়াইয়ে জিতেছিল রিয়াল।

>> এ নিয়ে তৃতীয়বার ফাইনালে মুখোমুখি হচ্ছে দল দুটি। ১৯৮০-৮১ মৌসুমে তখনকার ইউরোপিয়ান কাপের ফাইনালে লিভারপুল জিতেছিল ১-০ গোলে। আর ২০১৭-১৮ মৌসুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে রিয়াল জিতেছিল ৩-১ গোলে।

>> রিয়াল মাদ্রিদ সর্বাধিক ১৩বার ইউরোপ সেরার ট্রফি জিতেছে- ১৯৫৬, ১৯৫৭, ১৯৫৮, ১৯৫৯, ১৯৬০, ১৯৬৬, ১৯৯৮, ২০০০, ২০০২, ২০১৪, ২০১৬, ২০১৭ ও ২০১৮ সালে। সবশেষ সাতবার ফাইনালে উঠে প্রতিবারই চ্যাম্পিয়ন হয়েছে তারা।

>> লিভারপুল ইউরোপ সেরা হয়েছে ৬ বার- ১৯৭৭, ১৯৭৮, ১৯৮১, ১৯৮৪, ২০০৫ ও ২০১৯ সালে।

>> টানা দ্বিতীয়বার ইংল্যান্ডের কোনো দলের প্রতিনিধিত্ব থাকছে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে। গত বছর শিরোপা লড়াইয়ে ম্যানচেস্টার সিটিকে ১-০ গোলে হারিয়েছিল চেলসি।

>> ইউরোপের শীর্ষ ক্লাব প্রতিযোগিতাটির নামকরণ চ্যাম্পিয়ন্স লিগ হওয়ার পর রিয়াল কখনও ফাইনালে হারেনি। প্রতিযোগিতাটির নাম চ্যাম্পিয়ন্স লিগ হওয়ার পর অষ্টমবারের মতো ফাইনাল খেলতে যাচ্ছে দলটি।

>> রিয়াল কোচ কার্লো আনচেলত্তি প্রথম কোচ হিসেবে পাঁচটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে ডাগআউটে থাকবেন। প্রথম কোচ হিসেবে তার সামনে চারটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের হাতছানি। আনচেলত্তির সঙ্গে সর্বাধিক তিনটি করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা জিতেছেন রিয়ালের সাবেক কোচ জিনেদিন জিদান এবং লিভারপুলের সাবেক কোচ বব পেইজলি।

>> প্যারিসে জিতলে আনচেলত্তি প্রথম কোচ হিসেবে একাধিক ক্লাবের হয়ে দুটি করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের কীর্তি গড়বেন। এর আগে তার কোচিংয়ে এসি মিলান দুইবার ইউরোপ সেরার প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: প্রতিশোধের মঞ্চে রোমাঞ্চের পসরা
আরও পড়ুন