Inqilab Logo

শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ১৭ আষাঢ় ১৪২৯, ০১ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

অতৃপ্ত আঁখি ও একটি কবিতার চরণভূমি

বুক কর্ণার

আহমেদ রউফ | প্রকাশের সময় : ৩ জুন, ২০২২, ১২:০৫ এএম

রণজিৎ মোদক। চর্তুমূখী এই লেখক একাধারে কবি, গল্পকার ও প্রাবন্ধিক। তিনি একজন শিক্ষক। অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২২ -এ রৌদ্রছায়া প্রকাশ থেকে প্রকাশিত হয়েছে কবির দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ ‘অতৃপ্ত আঁখি’। নাম শুনেই বুঝা যায় কবি তার পাওয়া না পাওয়ার কথাই কবিতায় তুলে ধরেছেন দক্ষতার মাধ্যমে। মন খারাপের বেলায় সকালে লাল সূর্য উঁকি দেয় আলোর ঝলক নিয়ে। আবার অস্ত যায় অন্ধকারকে আমন্ত্রণ জানিয়ে, মূলত এই আলো-আঁধারের মাঝেই মানুষের বসবাস। সুখ-দুঃখ, তৃপ্তি-অতৃপ্তি নিয়েই মানুষের জীবন।

আর প্রতিটি লেখকই বাস্তবতা ও কল্পনার মিশেলে লিখে চলেন পাঠকদের জীবনের কথা। তাই হয়ত তাদের মুখ থেকে প্রায়ই শোনা যায়, এই কবিতাটি বা এই গল্পটি আমার জীবনের সাথে যেন মিলে যায়। এই মিলে যাওয়াটাই লেখকের প্রাপ্তি।
তেমনিভাবে রণজিৎ মোদক -এর এই কবিতার বইটিও যেন পাঠকের মনের কথাই বলে। আগেই বলেছিলাম সুখ-দুঃখ, তৃপ্তি অতৃপ্তি নিয়েই মানুষের জীবন। যাক অনেক কথা হলো। কবি লিখেছেন-

‘প্রেম জীবন স্বত্বার বীজ...বেঁচে থাকার আকাঙ্খা,
কৃষকের ফসলের মাঠ, স্বপ্ন রঙিন
নব বদুর মেন্দি রাঙ্গানো হাত
কল্লোলিত বীণার ঝংকার, দোলায়িত ঢেউ,
পাখির কণ্ঠে সুললিত সুর।’

এই কবিতায় কবি যে গল্প বলতে চেয়েছেন, সেটি খুব সহজেই পাঠকের মনের কোণে গেথে থাকবে আশা করি। তেমনি আরও একটি কবিতা-
‘সময়ের সীমানায় দুরত্ব আঁক
গভীরতায় আঘাত করে বাউলী বাতাস
ছিন্নভিন্ন হয়ে যায় আজন্ম অহংকার।

তপ্ত ধরণী সিক্ত কর
তোমার অমিয় ধারায়
সৃষ্টি সুন্দরের সাধনায় সুন্দরী মেঘকন্যা।’
এখানে কবি যৌবনের সময়কে ধরে রাখতে চেয়েছেন। এই যৌবন এবং একজন সুন্দরী নারীকে সে মেঘের সাথে তুলনা করেছেন। এতেই বুঝা যায় তার ভাবনার গভীরতা।
আরও একটি কবিতা-

‘তৃষ্ণায় তোমার কাছে চেয়ে ছিলাম জল
কপোলে লাল টিপ, মুখে মধুর টোল পড়া হাসি
মৌসুমি সমিরণ দোলায়িত তরুবীথি
কোকিল কোকিলার কণ্ঠে মধুর রাগ
হৃদয়ে নবীন বর্ষার ঢেউ খেলেছে মৃদুলবায়।’

এই কবিতায় খোঁজে পাওয়া যায় কবির ‘অতৃপ্ত আঁখি’র পাওয়া না পাওয়ার কথা। প্রতি মানুষের মধ্যেই পাওয়া না পাওয়ার আক্ষেপটা থেকেই যায়, যা কবি রণজিৎ মোদক এর এই ‘অতৃপ্ত আঁখি’ বইটি পড়লে।
কবি রণজিৎ মোদক একজন আগাগোড়া কবি। তিনি কবিতায় মানুষ, কথা বলেন কবিতার ছন্দে। সরজ-সরল, সাবলীল ভাষা রচিত কাব্যগ্রন্থটি কবিকে পাঠকের
হৃদয়ে আসন দেবে আশা করি। তার কবিতার সবচেয়ে ভালো গুণ হলো-শব্দচয়ন, বাক্যের
গাথুনি, সহজ শব্দে সহজ করে কবিতায় সমাজবাস্তবতা ও প্রকৃতির নিপুণ সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলা। আগামী গ্রন্থে কবিকে আরো ভালো করতে হবে। রৌদ্রছায়া প্রকাশ, প্রচ্ছদ- রৌদ্রনীল, দাম রাখা হয়েছে ২২০ টাকা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: অতৃপ্ত আঁখি
আরও পড়ুন