Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ০১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ মুহাররম ১৪৪৪

রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের শুভেচ্ছা

| প্রকাশের সময় : ৪ জুন, ২০২২, ১২:০৩ এএম

দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের শীর্ষস্থানীয় নেতা দৈনিক ইনকিলাব, তার সম্পাদক, সাংবাদিক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও পাঠকদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বার্তা দিয়েছেন। আমরা এখানে সেসব শুভেচ্ছাবার্তার গুরুত্বপূর্ণ অংশ তুলে ধরছি। এইসঙ্গে আমরা নেতৃবৃন্দকে ইনকিলাব পরিবারের পক্ষ থেকে তাদের অনুরাগ, প্রীতি ও সৌজন্যপূর্ণ শুভ কামনার জন্য অকুণ্ঠ ধন্যবাদ ও অশেষ কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।

 

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এমপি
পল্লীবন্ধু হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের শাসনামলে তাঁর মন্ত্রিসভার সদস্য মাওলানা এম এ মান্নান (রহ.) ইনকিলাব প্রতিষ্ঠা করেন। তখন থেকে জাতীয়তাবাদী ও ইসলামী মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রত্রিকাটি প্রকাশিত হচ্ছে। ইনকিলাব জন্মলগ্ন থেকে পাঠক মহলে সমাদৃত হয়েছে। শুরু থেকে এ পর্যন্ত দৈনিক ইনকিলাব বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনে ঐতিহ্য সৃষ্টি করেছে। দীর্ঘ পথ চলায় পত্রিকাটি স্বতন্ত্র ধারা তৈরি করেছে। দেশের গণতন্ত্র, সুশাসন ও মানবাধিকার রক্ষায় দৈনিক ইনকিলাব শক্তিশালী ভূমিকা পালন করে আসছে। গণমুখী সাংবাদিকতার জন্য দৈনিক ইনকিলাব অত্যন্ত সম্মানজনক অবস্থান ধরে রাখতে সমর্থ হয়েছে। ইনকিলাবের সাফল্য ও দীর্ঘ পথচলা কামনা করছি।

 

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম (পীর সাহেব চরমোনাই)
জাতীয় দৈনিক ইনকিলাবের ৩৬তম বর্ষপূর্তিতে সম্পাদক, প্রকাশক, সাংবাদিক, কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাই। আল্লাহতায়ালা তাদের সবাইকে সকল ভুল-ত্রুটি ক্ষমা করে দিয়ে তার একান্ত বান্দা হিসেবে কবুল করুন, এই দোয়া করছি।
ইসলাম, দেশ ও মানবতার কল্যাণে প্রতিষ্ঠিত দৈনিক ইনকিলাব ৩৬ বছর ধরে দেশ, জনগণের বিশ্বাস ও দর্শন লালনের লক্ষ্যে কঠিন অবস্থার মধ্য দিয়েও তার নিজস্ব অবস্থান বজায় রেখে এগিয়ে যাচ্ছে। দৈনিক ইনকিলাব স্বকীয়তা, ইসলাম ও ইসলামী মূল্যবোধ রক্ষা এবং আধিপত্যবাদী শক্তির বিরুদ্ধে জোরালো ভূমিকা পালন করে আসছে। আল্লাহ দৈনিক ইনকিলাবকে তার রহমতের চাদরে আচ্ছাদিত করুক। ইনকিলাব হয়ে উঠুক জনতার কণ্ঠস্বর। সর্বগ্রাসী দুর্নীতি ও আস্থাহীন পরিবেশ উত্তরণে বিবেকবোধ সজাগ রেখে আরো জোরালোভাবে পথ চলতে হবে ইনকিলাবকে।
ইনকিলাব জাতীয় স্বার্থ সুরক্ষা এবং ইসলামী সংস্কৃতি ও মূল্যবোধের পক্ষে জনমত গঠনে বলিষ্ঠ ভূমিকা অব্যাহত রেখেছে। আগামীতে এ ভূমিকা আরও জোরালো হবে বলে আশা করি। বাঙালি মুসলমানদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ইনকিলাব এক ঐতিহাসিক দায়িত্ব পালন করছে। দেশ ও জনগণের পক্ষের পাঠকপ্রিয় দৈনিক ইনকিলাব নিয়ে বিভিন্ন সময় বহুমুখী ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত হয়েছে। অপসংস্কৃতির বিরুদ্ধে প্রতিরোধ এবং দেশীয় সংস্কৃতির চর্চায় মানুষকে উদ্বুদ্ধ করায় চলার পথে ইনকিলাব নানা প্রতিকূলতার মুখে পড়েছে। ৩৭তম বছরে পদার্পণে দেশ-জাতির জন্য নিবেদিত ও স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের অঙ্গীকারে বলীয়ান দৈনিক ইনকিলাব নতুন প্রত্যয়ে দৃঢ়তার সঙ্গে এগিয়ে যাচ্ছে। ইনকিলাবের সর্বাঙ্গীন কল্যাণ ও সাফল্য কামনা করি।

 


জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জেএসডি’র সভাপতি আ স ম আবদুর রব
দৈনিক ইনকিলাবের তিন যুগপূর্তি উপলক্ষে সাংবাদিকসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে হৃদয়ের শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। প্রতিষ্ঠালগ্নে গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ডাক বিভাগের মাধ্যমে দৈনিক ইনকিলাব পত্রিকা পাঠকের কাছে পৌঁছে যেত। তখনকার সময়ে এটা ছিল খুবই যুগান্তকারী ঘটনা। বাংলাদেশের প্রতিটি মাদ্রাসায় একটি করে দৈনিক ইনকিলাব পৌঁছে যাওয়ার কারণে পত্রিকাটি সারাদেশে দ্রুত জনপ্রিয়তা লাভ করে। সময়ের বিবর্তনে প্রচন্ড প্রতিকূলতা মোকাবেলা করেও পত্রিকাটি এখনো টিকে রয়েছে। দৈনিক ইনকিলাব বৈরী রাজনৈতিক পরিস্থিতি এবং সরকারের পরিকল্পিত নিয়ন্ত্রণের মাঝেও গনমাধ্যমের কর্তব্য সম্পাদনে দীর্ঘ সময় পাড়ি দিয়েছে, যা নিঃসন্দেহে অভিনন্দনযোগ্য। বিদ্যমান অস্থির সময় ও সামাজিক বাস্তবতায় একটি পত্রিকার তিন যুগ অতিক্রম করা আসলেই একটা উল্লেখযোগ্য দৃষ্টান্ত।

আমাদের মত রাষ্ট্রগুলোতে বাক ও ব্যক্তিস্বাধীনতাসহ মত প্রকাশের স্বাধীনতার উপর সরকার অপরিহার্যভাবে নিয়ন্ত্রণের খড়গ নিয়ে আসে এবং ভয়-ভীতির সংস্কৃতি চালু করে। গণমাধ্যমের ওপর আরোপিত বাধানিষেধের কারণে গণমাধ্যম সব সময় বিপজ্জনক অবস্থায় থাকে। যেহেতু আমাদের দেশে গণমাধ্যমের অসীম প্রভাব রয়েছে সেই জন্যেই গণমাধ্যমের সাথে সব সময় একটা বিপদ জড়িয়ে থাকে। মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশে গণমাধ্যমকে অবশ্যই জনগণের অধিকার নিয়ত রক্ষা করতে হবে, জীবনের মর্যাদা সুরক্ষায় সংবাদ পরিবেশন করতে হবে।

গণমাধ্যম সাংবাদিকদের অবশ্যই রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভের প্রতি অবিচল থাকতে হবে, একান্ত ভাবে নিয়োজিত থাকতে হবে এবং সংকট মোকাবেলায় সাহসি হতে হবে। সরকারি নকশায় অনুগত গণমাধ্যম গড়ে তোলার বিরুদ্ধে সংবাদপত্র ও সাংবাদিকসহ সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। প্রচলিত অপশাসন, বিধিনিষেধকে উপেক্ষা করে, ক্ষমতাবলয়ের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে অধিকারহীনদের অধিকারের কথা বলতে হবে, ব্যক্তিগত হুমকি উপেক্ষা করে সব ধরনের নিয়ন্ত্রণের শিকল ছিড়ে ফেলে সত্যের পক্ষে অবস্থান গ্রহণ করতে হবে। রাষ্ট্রকে অবশ্যই জনস্বার্থের সংস্থা হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। গনমাধ্যমে সত্য প্রকাশ করা আবশ্যকীয় শর্ত।

আইন প্রণয়ন ও নীতিনির্ধারণী সংস্থায় গণমাধ্যমের প্রতিনিধিত্ব সাংবিধানিকভাবে নিশ্চিত করতে হবে। ন্যায় এবং অন্যায়ের মধ্যে নিরপেক্ষ থাকা যায় না। গণমাধ্যমকে অবশ্যই ন্যায়ের পক্ষে দাঁড়াতে হবে। সত্য ও ন্যায়ভিত্তিক, মানবিক মর্যাদাভিত্তিক সমাজ বিনির্মাণে ‘দৈনিক ইনকিলাব’ যথার্থ ভূমিকা রাখুক, এ প্রত্যাশা করছি।

 


লিবারেল ডেমোক্র্যাটিক পার্টির (এলডিপি) প্রেসিডেন্ট ড. কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বীর বিক্রম
গণমাধ্যম দেশকে এগিয়ে নিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বাংলাদেশে বর্তমানে মত প্রকাশের স্বাধীনতা কাগজে থাকলেও বাস্তবে তা খুঁজে পাওয়া যায় না। তবে দৈনিক ইনকিলাব জনগণের পক্ষে ছিল, আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে বলে প্রত্যাশা করছি।

দেশের শীর্ষস্থানীয় পত্রিকা দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে পত্রিকাটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সকলকে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে প্রতিষ্ঠানটি অত্যন্ত বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশ করে আসছে। আগামীতেও সেই ধারা অব্যাহত রাখবে বলে প্রত্যাশা করছি।

দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, হারানো গণতন্ত্র ও মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় দৈনিক ইনকিলাবকে পূর্বের ন্যায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। আমি দৈনিক ইনকিলাবসহ এর সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের সাফল্য কামনা করছি।

 


নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না
সাংবাদিকতার নীতি অনুসরণ করে বর্তমানে দেশের অবহেলিত মানুষের বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বরে পরিণত হয়েছে দৈনিক ইনকিলাব। প্রতিষ্ঠার পর দীর্ঘ ৩৬ বছর পার করেছে প্রতিষ্ঠানটি। এ জন্য পত্রিকার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবার জন্য শুভ কামনা। আশা করছি, সাংবাদিকতার নীতি মেনে দৈনিক ইনকিলাব সামনে এগিয়ে যাবে। বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ প্রকাশের মধ্য দিয়ে বর্তমানে দৈনিক ইনকিলাব সব শ্রেণীর পাঠকের মন জয় করেছে। দেশে সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে ঔজ্জ্বল্য ছড়ানোর জন্য যে ক’টি সংবাদপত্র রয়েছে সেগুলোর মধ্যে দৈনিক ইনকিলাব অন্যতম। দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই।

 


বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির আমীর আল্লামা সরওয়ার কামাল আযিযী
দেশ, জাতি, ইসলাম ও উম্মাহর বলিষ্ঠ মুখপাত্র দেশের বহুল প্রচারিত গণমাধ্যম দৈনিক ইনকিলাবের ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে পত্রিকার সম্পাদক, সাংবাদিক, কর্মকর্তা-কর্মচারী পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীদের বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির পক্ষ থেকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই।

দেশের কিংবদন্তিতুল্য ইসলামী ব্যক্তিত্ব হযরত মাওলানা আব্দুল মান্নান (রহ.) এর হাতেগড়া এই পত্রিকা দেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষায় ও জাতীয় স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়ে অনন্য ভূমিকা পালন করে আসছে। ইসলামী তাহজিব-তামাদ্দুন সংরক্ষণ ও প্রচারে এই পত্রিকার ভূমিকা অবিস্মরণীয়। দেশ ও জাতির সঙ্কটকালীন যেকোনো মুহূর্তে সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে এবং দেশপ্রেমের চেতনায় উজ্জীবিত হয়ে জাতির জন্য দিক নির্দেশকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে ইনকিলাব। সত্যের পক্ষে অন্যায়ের বিরুদ্ধে এবং সাদাকে সাদা ও কালোকে কালো বলার আপোসহীন ভূমিকা ইনকিলাবকে গণমানুষের হৃদয় রাজ্যে সুদৃঢ় অবস্থান তৈরি করে দিয়েছে।

৩৬ বছর ধরে আপন লক্ষ্যে ছুটে চলা ইনকিলাবের উত্তরোত্তর সাফল্য ও সমৃদ্ধি কামনা করছি। মহান আল্লাহ সহায় হোন।

 


ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হাসানাত আমিনী
দৈনিক ইনকিলাব তার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই বাস্তবসম্মত, তথ্যনির্ভর সংবাদ প্রকাশ করে আসছে। ইনকিলাবের চলার পথ একেবারে মসৃন ছিল না। বিভিন্ন সময়ে নানা বাঁধা, প্রতিবন্ধকতা এসেছে। কিন্তু ইনকিলাব হারিয়ে যায়নি। পাহাড়সহ হিম্মত নিয়ে ফের স্বগৌরবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। ইনকিলাব কোন নির্দিষ্ট দল বা গোষ্ঠীর পক্ষে নয়, পত্রিকাটি কথা বলে দেশ, দেশের মানুষ ও ইসলামের পক্ষে। আশা করি, এভাবেই দৈনিক ইনকিলাব তার লক্ষ্যপানে দৃপ্তপদে এগিয়ে যাবে।

 


বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমীর ডা. শফিকুর রহমান
প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে দৈনিক ইনকিলাব দেশে গণতন্ত্র, আইনের শাসন, মানবাধিকার ও ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় এক অনন্য ভূমিকা পালন করে আসছে। মানুষের জীবনে ইসলামী মূল্যবোধের লালন, দেশপ্রেম এবং সামাজিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনে ইসলামী ভাবধারা প্রতিষ্ঠায় দৈনিক ইনকিলাবের ভূমিকা জনগণকে উজ্জীবিত করেছে। আগামী দিনেও এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে বলে আমি আশা করি। আমি দৈনিক ইনকিলাবের উন্নতি, অগ্রগতি ও সমৃদ্ধি কামনা করছি। আশা প্রকাশ করছি, দৈনিক ইনকিলাব ভবিষ্যতে সংবাদপত্র ও মানুষের বাক-স্বাধীনতা এবং জনগণের সার্বিক অধিকার বিশেষ করে ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে জনমত গঠনে সোচ্চার ভূমিকা পালন করবে।

 

বাংলাদেশ মুসলিম লীগের সভাপতি অ্যাড. বদরুদ্দোজা সুজা (সাবেক এমপি)
৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর এইদিনে দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাতা মাওলানা এম. এ মান্নানকে কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করছি, যিনি তার দৃঢ় মনোবল আর অধ্যবসায়ের মাধ্যমে বৈরী সময়ের সকল প্রতিকূলতা কাটিয়ে উঠে ইসলামী ভাবধারার একটি দৈনিক পত্রিকা প্রতিষ্ঠার অসম্ভব কাজকে সম্ভব করতে সক্ষম হয়েছিলেন। তার হার না মানা মানসিকতার দৃষ্টান্ত অনুসরণ করে দৈনিক ইনকিলাব আজ নিজেকে গোটা মুসলিম জাতির কণ্ঠস্বর হিসেবে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে সক্ষম হয়েছে। বাংলাদেশে ইসলামী চিন্তা-চেতনা বিস্তার এবং মুসলিম সংস্কৃতি সমুন্নত রাখতে দৈনিক ইনকিলাবের ভূমিকা অপরিসীম। আমরা আশা করি, অতীতের ন্যায় দৈনিক ইনকিলাব, মুসলিম জাতিসত্তা ও ইসলামী চেতনা পুনর্জাগরণের জন্য কাজ করার পাশাপাশি কোভিড-১৯ ও আন্তর্জাতিক রাজনীতির প্রভাবে সৃষ্ট বৈশ্বিক মন্দা মোকাবেলায় সক্ষমতা অর্জন, আগ্রাসনবাদীদের লোলুপ দৃষ্টি থেকে দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব অক্ষুণ্ন রাখা, দেশীয় রাজনীতির অচলাবস্থা নিরসন, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও জনগণের অধিকার আদায়ে বরাবরের মতই সাহসী ভূমিকা রাখবে। ইনকিলাবের দীর্ঘ পদযাত্রার সহযাত্রী সম্পাদক, সংবাদকর্মী ও কলম সৈনিকদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে সকলের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি।

 

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত মাওলানা আতাউল্লাহ হাফিজ্জী
বরেণ্য আলেমে দ্বীন মাওলানা আব্দুল মান্নান রহমাতুল্লাহ আলাইহি প্রতিষ্ঠিত দৈনিক ইনকিলাব দীর্ঘ ৩৬ বছর যাবত বাংলাদেশের ধর্মপ্রাণ মানুষের নিকট জনপ্রিয় একটি জাতীয় পত্রিকা। দৈনিক ইনকিলাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে ইসলাম ও মুসলমানদের অন্যতম মুখপাত্র। তিন যুগ ধরে ইসলাম ও মুসলমানদের পক্ষে বলিষ্ঠ ভূমিকা রেখে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে সত্য ও বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনের কারণে অদ্যাবধি সকলের কাছেই সমানভাবে সমাদৃত।
দৈনিক ইনকিলাবের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে দেশ-বিদেশের পাঠকবর্গসহ ইনকিলাব পরিবারকে শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানাই।


বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমীর শায়খুল হাদীস আল্লামা ইসমাঈল নূরপুরী
দৈনিক ইনকিলাব প্রতিষ্ঠার পর অনেক প্রতিকূলতার মাঝেও ইসলাম, দেশ ও মানবতার পক্ষে বলিষ্ট ভূমিকা রাখছে। ইসলাম ও দেশবিরোধী যে কোনো ষড়যন্ত্রের মোকাবেলায় সাহসী ভূমিকা রেখে চলেছে ইনকিলাব। ভবিষ্যতেও এ ভূমিকা অব্যাহত থাকবে বলে প্রত্যাশা করি। ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে সম্পাদকসহ পত্রিকার সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে আন্তরিক মোবারকবাদ জানাই।

 


বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, বীর প্রতীক
দেশের অন্যতম প্রধান জনপ্রিয় জাতীয় দৈনিক ইনকিলাব প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে জাতীয়তাবাদী ও ইসলামী মূল্যবোধে প্রগাঢ় বিশ্বাস নিয়ে প্রকাশিত হচ্ছে। এ পত্রিকার প্রতিবেদনে দল-মত নির্বিশেষে নিরেপক্ষ দৃষ্টিভঙ্গি বজায় রাখায় সবার প্রশংসা অর্জন করেছে। দৈনিক ইনকিলাব বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনে ঐতিহ্য সৃষ্টি করেছে। তিন যুগ তথা ৩৬ বছরের দীর্ঘ পথ চলায় পত্রিকাটি স্বতন্ত্র ধারা তৈরি করেছে। দেশে গণতন্ত্র, সুশাসন ও মানবাধিকার সুরক্ষায় পত্রিকাটি শক্তিশালী ভূমিকা পালন করে আসছে। আগামী দিনেও এই ধারা অব্যাহত থাকবে, এটাই আমার বিশ্বাস। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আমি, ইনকিলাব-এর সকল সম্মানিত সাংবাদিক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীর প্রতি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ জানাচ্ছি।


জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সভাপতি আল্লামা শায়খ যিয়া উদ্দীন
ইসলামের প্রচার-প্রসারে এবং বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ পরিবেশনে দৈনিক ইনকিলাবের অবদান অনস্বীকার্য। দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব এবং মুসলিম উম্মাহর স্বার্থ রক্ষায় ইনকিলাব বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করছে। ইসলাম, মুসলমানদের ঈমান-আক্বিদা রক্ষা ও বঞ্চিত মেহনতি মানুষের অধিকার আদায়ে ইনকিলাব অগ্রণী ভূমিকা রাখছে।
আগামীতেও দেশ ও জাতির কল্যাণে ইনকিলাব আরো সাহসী ভূমিকায় অবতীর্ণ হবে, এই প্রত্যাশা করি। ইনকিলাবের সম্পাদক, পাঠক ও শুভাকাক্সক্ষীদের জানাচ্ছি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

 

মুসলিম লীগ বিএমএল-এর মহাসচিব অ্যাডভোকেট শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী
দৈনিক ইনকিলাব-এর ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে দৈনিক ইনকিলাব-এর প্রতিষ্ঠাতা জননেতা মাওলানা এম এ মান্নানের অবদানকে স্মরণ করছি। ইনকিলাব একটি আন্দোলন। ইনকিলাব প্রগতির বার্তা-বাহক। মুসলিম মনন-মানসিকতার অতন্ত্র প্রহরী হচ্ছে দৈনিক ইনকিলাব। বস্তুনিষ্ঠ ও নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার প্রতীক দৈনিক ইনকিলাব। বিভিন্ন ঘাত-প্রতিঘাত উপেক্ষা করে দৈনিক ইনকিলাব-কে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য মুসলিম লীগ বিএমএল-এর পক্ষ থেকে ইনকিলাবের সম্মানিত সম্পাদক, সাংবাদিকবৃন্দ, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ তথা ইনকিলাব পরিবারের সকলকে আন্তরিক মোবারকবাদ ও অভিনন্দন জানাচ্ছি।

 


জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি জাগপার সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান
দৈনিক ইনকিলাব হলো গণমানুষের কণ্ঠস্বর। বহু সংগ্রামের রাজ সাক্ষী দৈনিক ইনকিলাব। পত্রিকাটির ৩৬তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে এর সম্মানিত সম্পাদক, প্রকাশক, সাংবাদিক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও মোবারকবাদ।

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর এই দিনে দৈনিক ইনকিলাবের প্রতিষ্ঠাতা, ইসলামী চিন্তাবিদ ও সাবেক মন্ত্রী মরহুম আলহজ্ব এম. এ মান্নান (রহ.) কে আন্তরিক শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি। মহান আল্লাহ তাঁকে জান্নাতবাসী করুন।

দৈনিক ইনকিলাব স্বাধীনতা, গণতন্ত্র, ইসলামী মূল্যবোধ, ভোটাধিকার ও জনগণের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। তার এ ভূমিকা অব্যাহত থাকবে এই কামনা করি। দৈনিক ইনকিলাবের সাথে জাগপা’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মরহুম শফিউল আলম প্রধান ও অধ্যাপিকা রেহানা প্রধানের সম্পর্কের কথা আমরা চিরদিন কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ করবো।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের শুভেচ্ছা
আরও পড়ুন