Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯, ১২ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

আইএইএর একপেশে সিদ্ধান্তের উপযুক্ত জবাব দেওয়ার হুশিয়ারি ইরানের

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ জুন, ২০২২, ১২:৫২ পিএম

আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থার (আইএইএ) নির্বাহী বোর্ডের সভায় ইরানবিরোধী প্রস্তাব পাশের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে তেহরান।
দেশটি বলেছে, এ ঘটনার উপযুক্ত জবাব দেওয়া হবে এবং নিজের স্বার্থ রক্ষার লক্ষ্যে আইএইএর ব্যাপারে নিজের নীতিতে পরিবর্তন আনার অধিকার তেহরান সংরক্ষণ করে।
চীন ও রাশিয়ার কঠোর বিরোধিতা সত্ত্বেও বুধবার রাতে আইএইএর নির্বাহী বোর্ডের বৈঠকে আমেরিকা ও তিন ইউরোপীয় দেশের ইরানবিরোধী একটি প্রস্তাব পাশ হয়েছে। প্রস্তাবটিতে ইরানের তিনটি ‘অঘোষিত স্থানে’ কথিত ইউরেনিয়ামের সন্ধান পাওয়ার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করা হয় এবং আইএইএকে পূর্ণ সহযোগিতা করার জন্য তেহরানের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।
৩৫ সদস্যবিশিষ্ট আইএইএর নির্বাহী বোর্ডের সভায় অনুষ্ঠিত ভোটাভুটিতে ৩০ দেশ প্রস্তাবটির পক্ষে এবং দুই দেশের (চীন ও রাশিয়া) বিপক্ষে ভোট দেয়। এ ছাড়া তিন দেশ (ভারত, পাকিস্তান ও লিবিয়া) ভোটদানে বিরত ছিল।
প্রস্তাবটি পাশ হওয়ার পর আইএইএতে নিযুক্ত ইরানের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মাদ রেজা গায়েবি তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেছেন, সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে প্রস্তাবটি পাশ করা হয়েছে এবং এর বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার অধিকার তেহরানের রয়েছে।
তিনি বলেন, গত ২০ বছরে আইএইএ ইরানের পরমাণু স্থাপনাগুলোতে সবচেয়ে বেশি পরিদর্শন চালিয়েছে এবং ২০২১ সালে বিশ্বের মোট পরিদর্শনের শতকরা ২২ ভাগই ইরানে সম্পন্ন হয়েছে। অথচ ইরানে বিশ্বের মোট পরমাণু কর্মসূচির মাত্র তিন ভাগ পরিচালিত হয়।
তিনি বলেন, এতকিছু সত্ত্বেও প্রস্তাবটিতে ইরানের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ আনা হয়েছে।
ইরানি রাষ্ট্রদূত বলেন, ইরানের তিনটি অঘোষিত স্থানে ইউরেনিয়াম খুঁজে পাওয়ার তথ্য সম্পূর্ণ ভুল এবং ইসরাইলে দেওয়া বানোয়াট তথ্যের ওপর ভিত্তি করে এই দাবি করা হয়েছে। এ ধরনের প্রস্তাব পাশ করার ফলে আইএইএর সঙ্গে ইরানের সহযোগিতার সম্পর্ক মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে তিনি হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন। সূত্র: পার্সটুডে



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইরান


আরও
আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ