Inqilab Logo

বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

শিক্ষার্থীদের তাকবীর স্লোগানে প্রকম্পিত জবি ক্যাম্পাস

ভারতে বিশ্বনবীকে অবমাননার প্রতিবাদ

জবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১০ জুন, ২০২২, ৩:৩৬ পিএম

বিশ্বনবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) ও তার পরিবারকে নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি নেতাদের অবমাননাকর বক্তব্যের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। শুক্রবার জুমার নামাজের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা অনুষদ থেকে তাকবীর স্লোগান দিয়ে প্রায় সহস্রাধিক শিক্ষার্থী বিক্ষোভ মিছিল শুরু করে। মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিজ্ঞান অনুষদ, ভাস্কর্য চত্বর হয়ে পুরান ঢাকার বাংলাবাজার মোড় প্রদক্ষিণ করে ক্যাম্পাসের প্রধান ফটকে এসে সমাবেশে রূপ নেয়।

শিক্ষার্থীরা বলেন, মহানবী (সাঃ) কে নিয়ে অবমাননাকর মন্তব্য করে বিজেপির দুই নেতা বিশ্বের কোটি কোটি মুসলমানের হৃদয়ে আঘাত করছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার স্বার্থে ভারতের ইসলাম বিদ্বেষী কুলাঙ্গারদের অবিলম্বে গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।

এসময় শিক্ষার্থীরা ভারতে মহানবী (সাঃ) ও হজরত আয়েশা (রাঃ) কে নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্যের প্রতিবাদে সরকারের কাছে অবিলম্বে রাষ্ট্রীয়ভাবে নিন্দা প্রস্তাব আনার জোর দাবি জানান তারা।

একটি বিশেষ উদ্দেশ্য হাসিল করতে এ ধরণের ধর্মীয় অপবাদ ছড়ানো হচ্ছে বলে মনে করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। তারা বলেন, বিজেপি নেতাদের বক্তব্য ভারতীয় উপমহাদেশ সহ গোটা বিশ্বের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের একটি পায়তারা। আমরা মুসলিম বিশ্ব এক বিন্দু রক্ত থাকতে তা মেনে নিব না।

সমাবেশে বক্তারা আরও বলেন, ভারতে বিজেপির দুই নেতা যে জঘন্যতম কাজ করেছে তার প্রতিবাদ করছি, ভবিষ্যতে আরও করব। পণ্য বয়কট হোক আর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাড়া তুলে হোক, অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত আমরা আমাদের কর্মসূচি অব্যাহত রাখব।

উল্লেখ্য, ভারতের কট্টর হিন্দুত্ববাদী রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সাবেক মুখপাত্র নুপুর শর্মা এক টেলিভিশন শো-তে অংশ নিয়ে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) সম্পর্কে বিতর্কিত মন্তব্য করেছিলেন। পরে দলটির নয়াদিল্লি শাখার গণমাধ্যম প্রধান নবীন জিন্দালও নুপুর শর্মার মন্তব্যের সমর্থনে টুইট করেন। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে বিশ্বের অনেক মুসলিম দেশ প্রতিবাদ জানিয়ে আসছে। মধ্যপ্রাচ্যের বেশ কয়েকটি দেশ ভারতীয় পণ্য বয়কটের ডাকও দিয়েছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: জবি


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ