Inqilab Logo

ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ০৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী
শিরোনাম

ইসলাম ছাড়া সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করা যাবে না

মুফতি মোহাম্মদ এনামুল হাসান | প্রকাশের সময় : ২৩ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

আল্লাহর মনোনীত একমাত্র ধর্ম হলো ইসলাম। শান্তির ধর্ম, সৌহার্দ্যপূর্ণ ধর্মের নাম হলো ইসলাম। ইসলাম ধর্ম পালনে যেমন রয়েছে সুনিয়ন্ত্রিত বিধিবিধান তেমনি অন্যান্য ধর্ম পালনকারদের নিজ নিজ ধর্ম পালনে ইসলাম দিয়েছে পূর্ণ স্বাধীনতা।
ইসলাম কখনো ভিন্নধর্মাবলম্বীদের জোরজবরদস্তি করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করতে বাধ্য করার অনুমতি প্রদান করে না। বরং বলা হয়েছে, তোমরা আল্লাহর পথে নম্র ও ভদ্র ভাষায় হেকমতের সহিত মানুষদের আহ্বান কর।
বিশ্বনবী মোহাম্মদ (সা.) মানুষদেরকে সচ্চরিত্র ও আদর্শের মাধ্যমে ইসলামের প্রতি আহ্বান করেছেন। রাসূল (সা.) বলেছেন, আমাকে উত্তম চরিত্রের অধিকারী করে দুনিয়াতে প্রেরণ করা হয়েছে।
ইসলাম ধর্ম তার সূচনাকাল থেকেই আদর্শের মাধ্যমে মানুষকে দ্বীনের পথে আহ্বান করে আসছে, কিয়ামত পর্যন্ত ইসলাম সে মূলনীতির উপরই কাজ করে যাবে। দুনিয়ার বুকে ইসলাম আগমন করার পর থেকেই বিরোধিতা, প্রোপাগা-া, নির্যাতন, নিপীড়নের শিকার। সে ধারাবাহিকতা আজো বলবৎ রয়েছে। সিমাহীন বাধার পরও ইসলাম আজ বিশ্বব্যাপী একটি কল্যাণকর ধর্ম হিসেবে অনুকরণীয় হয়ে আপন মহিমায় সুপ্রতিষ্ঠিত।
ইসলাম শুধুমাত্র আচার-অনুষ্ঠান কিংবা মানবসৃষ্ট রীতিনীতির ধর্ম নয়। ইসলাম আল্লাহর পক্ষ থেকে বিশ্ববাসীর দুনিয়া ও আখিরাতের মুক্তির জন্য একটি পরিপূর্ণ জীবনব্যবস্থা। ইসলাম ধর্মে মানুষ তার ব্যক্তিজীবন, পারিবারিক জীবন, সামাজিক জীবন ও রাষ্ট্রীয় জীবন কীভাবে পরিচালনা করবে তার সুনির্দিষ্ট দিকনির্দেশনাও ইসলাম বলে দিয়েছে।
ইসলাম ধর্মে যেহেতু রাষ্ট্রব্যবস্থা বিদ্যমান রয়েছে, তাই যারা শুধুমাত্র রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় থাকা  কিংবা নেতৃত্ব দেয়ার বাসনা অন্তরে ধারণ করে থাকে তাদের পক্ষ থেকেই বর্তমান বিশ্বব্যাপী ইসলামের বিরুদ্ধে প্রোপাগা-া ছড়ানো হচ্ছে। আজ বিশ্বব্যাপী মুক্ত চিন্তার নামে কিছু মানুষ তাদের স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য ইসলামকে হাতিয়ার হিসেবে বেছে নিয়েছে। অথবা ইসলাম সম্পর্কে হয়তো তাদের কোনো জ্ঞান না থাকার ফলে ইসলামের প্রতি তাদের এই বিদ্বেষ।
সকল ধর্মের কথা বলে মুক্তচিন্তার মানুষদের অন্তরে ইসলামকে একটি সাম্প্রদায়িক ও জঙ্গি ধর্ম হিসেবে চিত্রিত করার অপকৌশল করে সমাজে ও রাষ্ট্রে বিভাজন তৈরি করাই যেন তাদের মূল টার্গেট হয়ে দাঁড়িয়েছে।
সাম্প্রদায়িকতার কথা বলে ইসলাম ধর্মকেই কেবলমাত্র কটাক্ষ করা হচ্ছে। যারা ইসলাম ধর্ম চর্চা করে তাদেরকে আজ জঙ্গিবাদ সন্ত্রাসবাদ ও মৌলবাদের অপবাদ দিয়ে সমাজে তাদের প্রতি বৈষম্য সৃষ্টি করা হচ্ছে।
একদিকে যারা মুক্ত চিন্তার কথা বলে যাচ্ছে মূলত তারাই কোনো না কোনোভাবে ইসলামকে আঘাত করে যাচ্ছে। আবার অন্যদিকে ইসলামচর্চায় যারা একনিষ্ঠ তারা যখন ইসলামী অনুশাসনের কথা বলে তখন আবার ঐ মুক্তচিন্তার অধিকারীরা ইসলাম ও ইসলামী ব্যক্তিবর্গদের বিরুদ্ধে তাদের সেই পুরাতন ভাঙা রেকর্ড বাজাতে থাকেন। আজ যারা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষার কথা বলেন তাদের এখন সময় এসেছে ইসলাম সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করা।
ইসলামকে বোঝা। ইসলাম সম্পর্কে জানতে গেলে তারা বুঝতে পারবেন ইসলাম ধর্মেই কেবলমাত্র সাম্প্রদায়িক সম্পীতি রক্ষার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত রয়েছে। অন্যকোনো মতবাদ বরং একমাত্র ইসলামই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা করতে পারে।



 

Show all comments
  • Hamid ২৩ নভেম্বর, ২০১৬, ১:০৪ এএম says : 0
    apner kotha gulo 100 te 100 vag thik
    Total Reply(0) Reply
  • মুফতী সিরাজী ২৩ নভেম্বর, ২০১৬, ৬:২৩ পিএম says : 0
    ধন্যবাদ মুফতী এনামুল হাসান।
    Total Reply(0) Reply
  • Mahmud ২৪ নভেম্বর, ২০১৬, ৯:৫২ এএম says : 0
    মাশাআল্লাহ
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।