Inqilab Logo

বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট ২০২২, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯, ১২ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

ব্যর্থ অভ্যুত্থান চেষ্টার পর ত্রিপোলিতে ভয়াবহ লড়াই

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ জুন, ২০২২, ১২:০৬ এএম

তিন সপ্তাহ আগে ব্যর্থ অভ্যুত্থানের পর শুক্রবার দিবাগত রাতে লিবিয়ার রাজধানী ত্রিপোলিতে সশস্ত্র গ্রুপগুলোর মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। বার্তা সংস্থা এএফপির একজন সাংবাদিক বলছেন, ত্রিপোলির বিভিন্ন এলাকায় ওই রাতে গুলি বিনিময় হয়েছে। বিস্ফোরণ হয়েছে বিভিন্ন স্থানে। স্থানীয় মিডিয়ায় যেসব ছবি প্রকাশিত হয়েছে তাতে দেখা যাচ্ছে, যানবাহনের ভিড় আছে, এমন এলাকা থেকে সাধারণ মানুষ দৌড়ে পালাচ্ছে। পশ্চিম লিবিয়ার দুটি প্রভাবশালী মিলিশিয়া গ্রুপের মধ্যে এই তীব্র লড়াই হয়। তবে সংঘর্ষে কোনো প্রাণহানি অথবা এর কারণ কী তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। কিন্তু এটা সর্বশেষ সহিংসতা, যা দেশটিকে কাঁপিয়ে দিয়েছে। সেখানে প্রতিদ্বন্দ্বী দু’জন প্রধানমন্ত্রী ক্ষমতার জন্য লড়াই করছেন। ২০১১ সালে দীর্ঘদিনের নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে ক্ষমতাচ্যুত করার পর তেলসমৃদ্ধ দেশটিতে ক্ষমতায় শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে। তা নিয়ে রাজনৈতিক দল বা প্রতিপক্ষের মধ্যে লড়াই চলছে।
গত মাসে রাজনীতিক ফাতহি বাশাঘা জোর করে ক্ষমতা দখল করার চেষ্টা করেন। সকাল হওয়ার আগেই তার এই প্রচেষ্টায় তাকে সমর্থনকারী সশস্ত্র গ্রুপ এবং যারা অন্তর্র্বতী প্রধানমন্ত্রী আবদুল হামিদ দ্বেইবার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। ২০২১ সালের ডিসেম্বরে নির্বাচন করার জন্য গত বছর জাতিসংঘ নিয়োজিত শান্তি প্রক্রিয়ায় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয় দ্বেইবাকে। কিন্তু সেই নির্বাচন অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে আছে। ফেব্রুয়ারিতে বাশাঘাকে এক মেয়াদে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ করে পার্লামেন্ট। দ্বেইবার ক্ষমতার মেয়াদ শেষ হলে তাকে প্রধানমন্ত্রী করার কথা। কিন্তু দ্বেইবা বলেছেন, শুধু একটি নির্বাচিত প্রশাসনের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করবেন। এএফপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ত্রিপোলিতে ভয়াবহ লড়াই
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ