Inqilab Logo

রোববার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৫ মুহাররম ১৪৪৪

বদলি এমবাপ্পেতে ফ্রান্সের স্বস্তি

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ জুন, ২০২২, ১২:০১ এএম

অস্ট্রিয়ার বিপক্ষে এরন্সট হ্যাপেল স্টেডিয়ামে নেশন্স লিগের এই আসরের দ্বিতীয় হার যখন চোখ রাঙাচ্ছিল ফ্রান্সকে তখনই উদ্ধারকর্তা হিসেবে হাজির কিলিয়ান এমবাপ্পে। নির্ধারিত সময়ের সাত মিনিট আগে গোল করে ফ্রান্সকে গুরুত্বপূর্ন এক পয়েন্ট এনে দেন পিএসজির এই তরুণ উইঙ্গার। তাতে ম্যাচ ড্র হয় ১-১ গোলে। আস্ট্রিয়ার হয়ে একমাত্র গোলটি করেন আন্দ্রেয়া উইমান।
ক্লান্তি, চোটসহ নানাবিধ সমস্যার কারণে নেশনস লিগের শুরু থেকেই সেরা কম্বিনেশন মিলাতে সমস্যায় ভুগছেন ফরাসি কোচ দিদিয়ের দেশম। ভিয়েনায় গতপরশু রাতেও আস্ট্রিয়ার বিপক্ষে প্রথম একাদশে ছিল বেশ কিছু অনভিজ্ঞ খেলোয়াড়। সেই সুযোগ কাজে লাগিয়েই ম্যাচের ৩৭ মিনিটে লিড নেয় রালফ রাঙনিক বাহিনী। খেলা শুরুর আগে অস্টিয়ার জার্সি গায়ে ১০০ ম্যাচের মাইলফলক ছোঁয়া মার্কো আর্নাউতোভিচকে দেওয়া হয় বিশেষ সম্মাননা। আস্ট্রিয়ার গোলে আক্রমণের সূচনাও করে সাবেক এই হ্যামার স্ট্রাইকার। তার বাড়িয়ে দেওয়া বল লাইমার ক্রস করে ডি-বক্সে পাঠালে তাতে ট্যাপ-ইন করে স্বাগতিকদের লিড এনে দেয় উইমান। এর পরপরই আরেকটি সহজ সুযোগ মিস করেন আর্নাউতোভিচ।
অন্যদিকে ম্যাচের ১৮তম মিনিটে সহজ এক সুযোগ হাতছাড়া করেন কারিম বেনজেমা। ফ্রি-কিক থেকে আসা বল অস্ট্রিয়ান গোলকিপার পেনৎস ফিরিয়ে দিলে তা সরাসরি চলে যায় রিয়েল স্ট্রাইকারের কাছে, সেই বল হেড করে গোল করতে ব্যর্থ হন তিনি। গোল হজমের পর আক্রমণে মরিয়া হয়ে উঠে নেশনস লীগের ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। ম্যাচে প্রায় ৭০ শতাংশ বলের পজেশনিং ও অন টার্গেট ৭ টি শটই তার প্রমাণ। দ্বিতীয়ার্ধের প্রথম ১০ মিনিটেই তিন- চারটি সুযোগ হাতছাড়া করে ফ্রান্স। গোল পেতে মরিয়া দেশম তখন গ্রিজম্যানের বদলি হিসেবে মাঠে পাঠান এমবাপ্পেকে। মাঠে নেমেয় এনকুকুর থ্রু বল থেক ৮৩ মিনিটে গোল করে সমতায় ফিরান এই পিএসজি উইঙ্গার। ম্যাচ শেষ হওয়ার ঠিক ৩ মিনিট আগে তার শট গোলবারে না লাগলে পূর্ন ৩ পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছাড়তে পারত দেশম শীষ্যরা। ৩ রাউন্ডের খেলা শেষে ‘এ’ লিগের ১ নম্বর গ্রুপে ২ পয়েন্ট নিয়ে ফ্রান্সের অবস্থান তলানিতে।
অন্যদিকে একই গ্রুপের আরেক ম্যাচে উড়তে থাকা ডেনমার্ককে হারিয়ে এবারের আসরের প্রথম জয়ের মুখ দেখল ক্রোয়শিয়া। প্রথমার্ধ গোল শূন্য থাকায় ক্রোয়েট কোচ ডালিচ দলের দুই তারকা মিডফিল্ডার মড্রিচ ও কোভাসিচকে মাঠে নামান ঠিক বিরতির পর। তবে ৬৯ মিনিটে ম্যাচের একমাত্র গোলটি করে ক্রোয়শিয়াকে মূল্যবান ৩ পয়েন্ট এনে দেন মারিও পেসালিচ। ১-০ গোলে ম্যাচ হেরেও ৬ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে ক্রিশ্চিয়ান এরিকসনের ডেনমার্ক। ম্যাচ জিতে ৪ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের ৩ এ উঠে এসেছে মড্রিচরা।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বদলি এমবাপ্পেতে ফ্রান্সের স্বস্তি
আরও পড়ুন