Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ০১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

খোঁজ মিলল প্রাচীন ‘অভিশপ্ত’ সমাধির, হিব্রুতে লেখা ‘খুলবেন না!’

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ জুন, ২০২২, ৪:০৬ পিএম | আপডেট : ৯:২১ পিএম, ১৫ জুন, ২০২২

রূপকথার গল্পে নায়ক বা নায়িকা প্রাচীন সমাধিস্থলে পৌঁছে এমন সতর্কবাণীর মুখোমুখি হত। হয়তো নির্দিষ্ট সমাধির গায়ে লেখা- “এই সমাধিপ্রস্তর ছুঁলেই মারাত্মক বিপদ! যে এই সমাধিকে অপবিত্র করবে মুহূর্তে তার উপরে নরক নেমে আসবে।”

কিন্তু এই ঘটনা রূপকথা না। সম্প্রতি ইসরাইলের ইউনেস্কো স্বীকৃত ওয়ার্লড হেরিটেজ সাইটে একটি প্রাচীন সমাধি পাওয়া গিয়েছে, যার গায়ে লেখা সতর্কবাণী। সেই লেখা আবার ভয় ধরানো রক্ত-লাল অক্ষরে লিখিত। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে ওই সমাধিপ্রস্তরের ছবি।

কিছুদিন আগে প্রত্নতাত্ত্বিকরা ইসরাইলের গ্যালিলি এলাকার ইহুদি বেথ শিয়ারিম কবরস্থানের মধ্যে আবিষ্কৃত একটি গুহায় ওই সমাধিটি খুঁজে পান। বিশেষজ্ঞদের মতে, এটি গত ৬৫ বছরের মধ্যে ওই ইউনেস্কো ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটে আবিষ্কৃত প্রথম সমাধি। তার গায়েই হিব্রু ভাষায় রক্ত-লাল রঙে লেখা রয়েছে বিশেষ সতর্কবাণী। ঠিক কী লেখা সেখানে?

টাইমস অফ ইসরাইল জানিয়েছে, প্রস্তরখণ্ডের গায়ে হিব্রুতে লেখা রয়েছে, “জেকব শপথ করেছিলেন, যে এই সমাধিটি খুলবে সে অভিশপ্ত হবে।” উল্লেখ্য, টুইটারে রহস্যময় সমাধির ছবি-সহ পোস্ট করা হয় স্টেট অফ ইসরাইলের অফিসিয়াল অ্যাকাউন্ট থেকে। তারপরেই হইচই পড়ে যায় নেটিজেনদের মধ্যে।

ওই পোস্টে রহস্য বাড়িয়ে দিয়ে লেখা হয়, “যে জিনিসগুলি কখনই খুলবেন না: প্যান্ডোরার বাক্স-বাড়ির ভিতরে রাখা একটি ছাতা-প্রাচীন কবর৷ গ্যালিলিতে ১ হাজার ৮০০ বছরের পুরনো একটি কবরে জেকব দ্য কনভার্ট নামের একজন ইহুদি ব্যক্তির নাম করে সতর্কবাণী লেখা হয়েছে। মানুষ যাতে এই কবর না খোড়ে তার জন্য সতর্কবাণীটি লেখা হয়।”

এ বিষয়ে ইসরাইলের হাইফা বিশ্ববিদ্যালয় এবং প্রত্নতাত্ত্বিক বিষয়ে দেখভাল করা মন্ত্রণালয় এক যৌথ প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশ করেছে। সেখানে জানানো হয়েছে, এই সমাধিটি প্রাচীন রোমান যুগের শেষের দিকের, বাইজেন্টাইন যুগের প্রথম দিকের। ইতিহাসবিদরা সমাধি ও সতর্কবাণী সম্পর্কে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছেন। সূত্র: টাইমস অফ ইসরাইল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইসরায়েল


আরও
আরও পড়ুন