Inqilab Logo

শুক্রবার, ১২ আগস্ট ২০২২, ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৩ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

আশাশুনির কলিমাখালী গেটের দুরাবস্থায় আতঙ্কিত এলাকাবাসী

আশাশুনি (সাতক্ষীরা) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০২২, ১২:০২ এএম

আশাশুনি উপজেলার কলিমাখালী এলাকার নদী ভাঙনে সর্বশান্ত মানুষ পাউবোর জরাজীর্ণ গেটের কারণে আতঙ্কিত হয়ে উঠেছে। কখন না জানি গেট ভেঙে এলাকা প্লাবিত হয় সে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন। দু›ফোকড়ের গেটটি দীর্ঘকাল ঝুঁকিতে ছিল। অনেক দুর্ভোগের পর ২০১৯ সালে গেটের সংস্কার কাজ করা হয়। তখন মানুষের মনে স্বস্তি ফিরলেও বেশিদিন স্বস্তিতে থাকা সম্ভব হয়নি। ২০২০ সালে ভয়াবহ বেড়িবাঁধ ভেঙে এলাকা পুনরায় প্লাবিত হলে তখন প্লাবনের পানিতে গেটটিরও ক্ষতি সাধন হয়। সেই থেকে গেটের দু›পাশের ভাঙন দেখা দেয়। গেটের ফোকেড়ের দু’পাশ দিয়ে পানি চুইয়ে উঠানামা করতে শুরু করে। আস্তে আস্তে মাটি সরে বড় হয়ে পানির পরিমান বেড়ে গেছে। জোয়ার ভাটার সময় পানি ওঠানামা করছে। অবস্থা এতটাই খারাবের দিকে যাচ্ছে যে, পানির চাপে গেট ভেঙে প্লাবনের শঙ্কা বিরাজ করছে। কলিমাখালি, লঙ্গলদাড়িয়া, রাধারাটি, নছিমাবাদ, হিজলিয়া এবং মাড়িয়ালা ও হাজরাখালীর অংশ বিশেষ এই গেট দিয়ে পানি নিস্কাষণ হয়ে থাকে। নদী থেকে পানি ওঠানামা করায় এসব গ্রামের মানুষ ও ঘের মালিকরা হতাশ হয়ে পড়েছে।
স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুর রব জানান, গেটটি এলাকার জন্য খুবই জরুরি। গেটের ফোকড় নষ্ট হয়ে দু›পাশ দিয়ে মাটি ছিদ্র কওে ভেতরে পানি ঢুকছে। দ্রুত সংস্কার না করলে গেটটি ভেঙে এলাকা প্লাবিত হতে পারে। তিনি বিষয়টি পাউবো›র এসও এবং নির্বাহী প্রকৌশলীকে জানিয়েছেন। কিন্তু এখনো কেউ আসেননি। এব্যাপারে উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন