Inqilab Logo

রোববার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৫ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

দুই মাসে ৫১৩ কোটি টাকা তুলে নিয়েছেন বিদেশিরা

পুঁজিবাজার ছেড়েছেন ৪৮৭ বিনিয়োগকারী

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০২২, ১২:০১ এএম

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে টাকার মান আরও হারানোর ভয়ে পুঁজিবাজার থেকে গত দুই মাসে ৫১৩ কোটি টাকা তুলে নিয়েছেন বিদেশিরা। গত এপ্রিল ও মে মাসে শেয়ার বিক্রি করে তারা এই টাকা তুলে নেন। একই সঙ্গে তারা বাজারও ছাড়ছেন। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ও শেয়ার সংরক্ষণকারী প্রতিষ্ঠান সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি অব বাংলাদেশ লিমিটেড (সিডিবিএল) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

বিএসইসি’র তথ্য অনুযায়ী, গত এপ্রিল মাসে বিদেশিরা ২৪৪ কোটি ৬৫ লাখ পাঁচ হাজার টাকার শেয়ার বিক্রি করেছেন। মে মাসে তারা বিক্রি করেছেন ২৬৯ কোটি ৩১ লাখ এক হাজার টাকার শেয়ার। যা এপ্রিলের তুলনায় ২৪ কোটি ৭৪ লাখ টাকা বেশি। দুই মাস মিলিয়ে অর্থের পরিমাণ দাঁড়ায় ৫১৩ কোটি টাকার বেশি। অর্থনীতিবিদরা বলছেন, চার কারণে বিদেশিরা শেয়ার বিক্রি করে দিচ্ছেন। প্রথমত, ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে সারা বিশ্বে মুদ্রাস্ফীতি সৃষ্টি হয়েছে। তার ধাক্কা বাংলাদেশে পড়েছে। ফলে বেশকিছু দিন ধরে ডলারের বাজার অস্থির। তারা বলেন, একদিকে পুঁজিবাজার টালমাটাল, অন্যদিকে ডলারের বাজার অস্থির। এ কারণে বিদেশিরা পুঁজি হারানোর ভয়ে শেয়ার বিক্রি করে টাকা তুলে নিচ্ছেন।

দ্বিতীয়ত, বেশকিছু কোম্পানির শেয়ারের দাম অতি মূল্যায়িত হওয়ায় বিদেশিরা মুনাফা তুলতে তা বিক্রি করে দিচ্ছেন। তৃতীয়ত, পুঁজিবাজার নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক ও বিএসইসি’র দ্বন্দ্ব। এ কারণে বাজারে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে। পুঁজিবাজার নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের কঠোরতর অবস্থান নেয়ায়, এর ভবিষ্যৎ সম্পর্কে সন্দিহান বিদেশিরা। এ কারণে তারা দেশীয় বড় বিনিয়োগকারীদের মতো শেয়ার বিক্রি করে টাকা তুলে নিচ্ছেন।
চতুর্থ কারণ হলো, বাজারে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার অভাব। পাশাপাশি বিনিয়োগযোগ্য ভালো কোম্পানির অভাব রয়েছে বাজারে।

এদিকে সিডিবিএল’র তথ্য মতে, চলতি বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত বিনিয়োগকারীদের হিসাব ছিল ২০ লাখ ৫৬ হাজার ৪৪৬টি। এর মধ্যে দেশি বিনিয়োগকারীদের বিও সংখ্যা ছিল ১৯ লাখ ৭৮ হাজার ১৬৭৩টি। বিদেশি ও প্রবাসী বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাব ছিল ৭৮ হাজার ২৯৯টি। ১৫ জুন পর্যন্ত সময়ে সেখান থেকে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের বিও সংখ্যা ৪৮৭টি কমে দাঁড়িয়েছে ৭৭ হাজার ৮১২টিতে। অর্থাৎ দেড় মাসের ব্যবধানে বিদেশি বিনিয়োগকারীদের বিও সংখ্যা কমেছে প্রায় ৫০০টি। একটি বিওতে একজন বিনিয়োগকারী ধরা হলে গত দেড় মাসে আরও প্রায় ৫০০ বিনিয়োগকারী বাজার ছেড়েছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাশিয়া-ইউক্রেন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ