Inqilab Logo

শনিবার, ১৩ আগস্ট ২০২২, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ মুহাররম ১৪৪৪

আঠারোর সাফল্যই বাইশের প্রেরণা

ইমরান মাহমুদ | প্রকাশের সময় : ২৫ জুন, ২০২২, ১২:০১ এএম

সেন্ট লুসিয়ায় যখন সিরিজে মান বাঁচানোর লড়াই শুরু করেছে সাকিব আল হাসানের নেতৃত্ত্বাধীন বাংলাদেশ টেস্ট দল, ঠিক সেই সময় সাত সমূদ্র তেরো নদীর এপার ঢাকা থেকে নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে ক্যারিবিয়ান দ্বীপপুঞ্জের পথে রওনা দিয়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের টি-টোয়েন্টি দল। সঙ্গে ওয়ানডে দলের বাকি সদস্যরাও। সঙ্গী আফিফ হোসেন, নাসুম আহমেদ, মেহেদী হাসান ও মুনিম শাহরিয়াররা। ঢাকা থেকে মাহমুদউল্লাহদের বহনকারী বিমান সিলেট হয়ে যুক্তরাজ্য থেকে উইন্ডিজে যাবে। সন্ধ্যায় তাসকিন আহমেদও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিমান ধরেছেন। দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শেষেই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে নামবে রাসেল ডমিঙ্গোর শিষ্যরা। গতকাল উড়ানে চাপার আগে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে নতুন স্বপ্নের কথা জানিয়ে গেলেন ক্ষুদ্রতম সংস্করণের অধিনায়ক। মাহমুদউল্লার লক্ষ্য টি-টোয়েন্টি সিরিজে স্বাগতিক ক্যারিবিয়ানদের হারিয়ে দেওয়া।
বাংলাদেশ টেস্ট দলের সদস্যরা আগে থেকেই অবস্থান করছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজে। সেখানকার কণ্ডিশন, উইকেট সম্পর্কে বেশ ভালোই ধারণা হয়েছে সাকিব-লিটনদের। এবার ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি স্কোয়াডের বাকিরা গিয়ে সেই অভিজ্ঞতা নিতে পারবে। পাশাপাশি দলে ভারসাম্য থাকায় মাহমুদউল্লাহ চোখ রাখছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের দিকে, ‘বাংলাদেশের টার্গেট সিরিজ জয়। ইনশাআল্লাহ আমরা ভালো ক্রিকেট খেলার চেষ্টা করব। এই মুহূর্তে আমাদের টিমের ব্যালেন্স খুব ভালো আছে। এটা ভালো একটা সিরিজ হবে।’ শুরুতে ঘোষিত বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি স্কোয়াড থেকে ছিটকে গেছেন শহিদুল ইসলাম, ইয়াসির আলী রাব্বি ও মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তাদের জায়গায় দলে ঢুকেছেন তাসকিন আহমেদ ও মেহেদী হাসান মিরাজ। মাহমুদউল্লাহ মিরাজের অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে বলেছেন, ‘আমার মনে হয়, মিরাজ ডিজার্ভ করে। ও খুব ভালো পারফর্ম করছে। শেষ বিপিএলেও ভালো করেছে। আমি খুব খুশি ও স্কোয়াডে আছে।’
২০১৮ সালে সবশেষ ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে পিছিয়ে পড়েও ২-১ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে ডিএলএস পদ্ধতিতে ৭ উইকেটে হেরে যায় তারা। দ্বিতীয় ম্যাচে ১২ রানে জিতে ঘুরে দাঁড়ায় টাইগাররা। এরপর তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ডিএলএস পদ্ধতিতেই ১৯ রানে জিতে সিরিজ নিজেদের করে নেয় বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষের ঘরের মাঠে খেলা হলেও ওই সাফল্য থেকে অনুপ্রেরণা নিচ্ছেন অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ, ‘তারা ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে খুব ভালো দল। আমাদের ভালো ক্রিকেট খেলতে হবে। ওদের কন্ডিশনে খেলা। অবশ্যই একটা চ্যালেঞ্জ থাকবে। কিন্তু শেষবার যখন গিয়েছি, ভালো ক্রিকেট খেলে সিরিজ জিতেছি। ইনশাআল্লাহ এবারও চেষ্টা করব সিরিজ জেতার।’
গতকালই সেন্ট লুসিয়ায় শুরু হয়েছে বাংলাদেশ দলের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট। এরপরই তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হবে ডমিনিকায়। সেখানে ২ ও ৩ জুলাই প্রথম দুই টি-টোয়েন্টির পর ৭ জুলাই গায়ানায় অনুষ্ঠিত হবে শেষ ম্যাচটি। তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের তিনটি ম্যাচের ভেন্যুও গায়ানা। ম্যাচগুলো হবে ১০, ১৩ ও ১৬ জুলাই।

বাংলাদেশ টি-টোয়েন্টি স্কোয়াড
মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ (অধিনায়ক), মুনিম শাহরিয়ার, সাকিব আল হাসান, আফিফ হোসেন, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, শেখ মেহেদী হাসান, লিটন দাস, নুরুল হাসান সোহান, এনামুল হক বিজয়, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, নাসুম আহমেদ, তাসকিন আহমেদ ও শরিফুল ইসলাম।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: আঠারোর সাফল্যই বাইশের প্রেরণা
আরও পড়ুন