Inqilab Logo

সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

গর্ভপাতের অধিকারের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে বিক্ষোভ

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ জুন, ২০২২, ১১:২৭ এএম

গর্ভপাতের অধিকারের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ ও সমাবেশ করেছে হাজার হাজার মানুষ। প্রায় ৫০ বছর ধরে বহাল থাকার পর গর্ভপাতের সাংবিধানিক অধিকার বাতিল করে শুক্রবার রায় দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্ট।

আদালতের এমন রায় গর্ভপাতের অনুমতির বিষয়টি অঙ্গরাজ্যগুলোর নিজেদের সিদ্ধান্তের উপর ন্যস্ত করেছে। এর মাধ্যমে ১৯৭৩ সালের রো বনাম ওয়েড নামক মামলার সিদ্ধান্তটি পাল্টে দেওয়া হয়। পুরনো রায়টি নারীদের জন্য গর্ভধারণের প্রাথমিক পর্যায়ে গর্ভপাতের অধিকারের নিশ্চয়তা দিয়েছিল।

সুপ্রিম কোর্টের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে নিউইয়র্ক, আটলান্টা, ডেট্রয়েট ও লস অ্যাঞ্জেলসসহ অন্যান্য শহরে সমবেত হয়ে বিক্ষোভ করেছে মার্কিনিরা। খবর ভয়েস অব আমেরিকার

আইওয়া অঙ্গরাজ্যের সেডার র‌্যাপিডস-এ প্রতিবাদ চলাকালীন শুক্রবার এক ব্যক্তিকে একটি ট্রাক ধাক্কা দেয়। পুলিশ জানায় ওই ব্যক্তির আঘাত তেমন গুরুতর নয়। নিউইয়র্ক শহরে শত শত প্রতিবাদকারী রো মামলাটির রায় পাল্টে দেওয়ার বিপক্ষে এবং গর্ভপাতের অধিকারের পক্ষে স্লোগান দেয়।

আদালতের রায় ঘোষণার পর থেকে ওয়াশিংটনে গর্ভপাতের অধিকারের পক্ষের ও বিপক্ষের প্রবক্তারাই সুপ্রিম কোর্টের বাইরে জড়ো হতে আরম্ভ করেন। সপ্তাহান্তে সমবেত মানুষের এই ভিড় আকারে বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

ডেমোক্র্যাট দলীয় আইনপ্রণেতাদের একটি দল, ইউএস ক্যাপিটল এর বাইরে গর্ভপাতের সমর্থক বিক্ষোভকারীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য দেন। প্রগতিশীল কংগ্রেস সদস্য অ্যালেক্স্যান্ড্রিয়া ওকাসিও-কর্টেজ সেখানে মানুষজনকে রাস্তায় নামার আহ্বান জানিয়ে স্লোগান দেন।

অপরদিকে, গর্ভপাতের অধিকারের বিরোধীরা শুক্রবারের রায়ে উল্লাস প্রকাশ করেন। তারা নেচে, বাদ্য বাজিয়ে ও 'বিদায়, রো' বলে স্লোগান দিয়ে তাদের সমর্থন প্রকাশ করেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আমেরিকানদেরকে প্রতি অনুরোধ জানান, যাতে তারা সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করার সময়ে শান্তি বজায় রাখেন। যদিও তিনি বলেন যে, তিনি জানেন অনেক আমেরিকানই 'হতাশ ও বিভ্রান্ত' তবুও অবশ্যই সহিংসতা পরিহার করতে হবে।

প্রেসিডেন্ট বলেন, 'সহিংসতা কখনোই গ্রহণযোগ্য নয়। হুমকি ও ভীতি প্রদর্শন কোন বক্তব্য নয়। আমাদের যে কোন ধরনের সহিংসতার বিরুদ্ধে দাঁড়াতে হবে, তার পেছনে যুক্তি যাই হোক না কেন।'



 

Show all comments
  • jack ali ২৬ জুন, ২০২২, ৬:০৭ পিএম says : 0
    স্বাধীনতার পরে সম্ভবত হাজার 973 74 সালে বিচিত্রা তে এক মহিলা লিখেছে যে আমরা জরায়ুর স্বাধীনতা চাই আজকে বাংলাদেশ এমনভাবে যিনা-ব্যভিচার পরকীয়া ছড়িয়ে পড়েছে সেটা কল্পনা করা যায় না অথচ আমরা মুসলিম বলে দাবি করে স্বামীর জন্য সমকামীর জন্য আন্দোলন করা হচ্ছে আর কয়দিন পরে এবরশন করার জন্য আন্দোলন করবে যেখানে সেখানে মৃত বাচ্চা পাওয়া যায়
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাষ্ট্র


আরও
আরও পড়ুন