Inqilab Logo

সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

২ জুলাই পাকিস্তানজুড়ে সমাবেশের ঘোষণা ইমরান খানের

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৬ জুন, ২০২২, ৬:২৬ পিএম | আপডেট : ৮:১০ পিএম, ২৬ জুন, ২০২২

পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খান শনিবার ঘোষণা করেছেন যে, তার দল ইসলামাবাদের প্যারেড গ্রাউন্ডে একটি শক্তি প্রদর্শনের আয়োজন করবে এবং ২ জুলাই থেকে ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতি এবং এনএবি আইনে সংশোধনীর বিরুদ্ধে দেশব্যাপী বিক্ষোভ শুরু করবে।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী পাকিস্তানকে একটি ‘কলা প্রজাতন্ত্রে’ পরিণত করার জন্য ‘আমদানি করা সরকারের’ প্রতি কটাক্ষ করে বলেন, দুর্নীতি বিরোধী সংস্থার আইনে সংশোধনী দেশকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দেবে কারণ জনসাধারণের ১,১০০ বিলিয়ন রুপি লুট করা হয়েছে। সংশোধনীর মাধ্যমে দুর্নীতিবাজ মাফিয়াদের ক্ষমা করা হয়েছে।

শনিবার একটি লাইভ সম্প্রচারের মাধ্যমে জনগণকে সম্বোধন করে পিটিআই চেয়ারম্যান বলেন যে, বর্তমান শাসকরা তাদের মধ্যে ভয় ছড়িয়ে জনগণকে স্তব্ধ করতে চেয়েছিলেন তবে জনগণকে ‘ভয়ের মূর্তি ভেঙ্গে’ এবং আমদানি করা সরকারের বিরুদ্ধে বেরিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। তাদের সন্তানদের ভবিষ্যত, ‘চোর’ হিসাবে সরকার সবকিছু ধ্বংস করার জন্য নাছোরবান্দা ছিল।

প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ২ জুলাই ইসলামাবাদের প্যারেড গ্রাউন্ডে প্রধান অনুষ্ঠানে ভাষণ দেয়ার সময় তার সাথে সমস্ত বড় শহরে সরকার বিরোধী জনসমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছিলেন। তিনি বলেছেন যে, তিনি শনিবার রাতে সমাবেশ করার জন্য সমস্ত দলীয় কর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন।

ইমরান বলেছেন যে, পিটিআই সুপ্রিম কোর্টে সংশোধনীকে চ্যালেঞ্জ করেছে এবং আশাবাদ ব্যক্ত করেছে যে বিচার বিভাগ পাকিস্তানে ‘নিষ্ঠুরতা’ ঘটতে দেবে না। তিনি বলেন, সরকারি কর্মকর্তারা তাদের লুটপাট রক্ষার জন্য দেশের বিচারব্যবস্থাকে ধ্বংস করেছে, তিনি আরও বলেন, এখন কেউ বিদেশে টাকা জমানো দুর্নীতিবাজদের সম্পদ নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারে না। তিনি বলেন, নতুন সংশোধনীর পর পরিবারের অন্য সদস্যদের নামে সম্পদের বিবরণ নিয়ে প্রশ্ন তোলা যাবে না এবং আইনটি ১৯৯৯ সাল থেকে কার্যকর হবে যা জোট সরকারের অংশীদার অনেক লোককে অব্যাহতি দেবে।

তিনি বলেন, পিটিআই সরকার এপ্রিল মাসে করের হার বাড়ানোর পরিবর্তে করের ভিত্তি প্রসারিত করার জন্য নতুন সংস্কার চালু করতে প্রস্তুত ছিল, যে মাসে তাকে ক্ষমতা থেকে অপসারিত করা হয়েছিল। তিনি বলেছিলেন যে, ভারত এবং বাংলাদেশে কর্পোরেট কর মাত্র ২৫ শতাংশ ছিল, যোগ করে যে এর বর্ধিত হার পাকিস্তানে শিল্প প্রবৃদ্ধি কমিয়ে দেবে। সূত্র: ট্রিবিউন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইমরান খান


আরও
আরও পড়ুন