Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২, ০২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৮ মুহাররম ১৪৪৪

টেনিসের তৃণমূলে নজর হায়দারের

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ জুন, ২০২২, ৮:২৪ পিএম

তৃণমূলে প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ভালোমানের খেলোয়াড় তুলে আনতে চান বাংলাদেশ টেনিস ফেডারেশনের নতুন নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ মোহাম্মদ হায়দার। নির্বাচিত হয়েই ঝিমিয়ে পড়া বাংলাদেশের টেনিসকে নতুন করে ঢেলে সাজানোর পরিকল্পনার কথা জানান তিনি। প্রথমেই দেশব্যাপী প্রতিভা অন্বেষণ কর্মসূচির মাধ্যমে কাজ শুরু করতে চান হায়দার। তৃণমূল থেকে উঠে আসা সেইসব তরুণ খেলোয়াড়দের দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণের মাধ্যমে প্রস্তুত করে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সাফল্য আনতে চাইছে ফেডারেশন।

রোববার টেনিসের নির্বাচন শেষে সোমবার হায়দার বলেন, ‘শাহবাগে বঙ্গবন্ধুর মেঝছেলে লে. শেখ জামালের নামে যে একটি টেনিস কমপ্লেক্স রয়েছে, তা রাজধানীর অধিকাংশ মানুষই জানেন না। মূলত চোখে পড়ার মতো কার্যক্রম না থাকায় টেনিস নিয়ে তেমন আগ্রহ নেই দেশের ক্রীড়াপ্রেমীদের। টেনিসের মাধ্যমে অনেক কিছু করার সুযোগ রয়েছে আমাদের। আমরা দেশবাসীকে নতুন করে এই খেলাটি চেনাতে চাই। ফেডারেশনের কার্যক্রম সচল করে টেনিসকে পরিচিত করতে চাই।’

দেশের টেনিস খেলার উন্নয়নে প্রথমে রমনাস্থ শেখ জামাল টেনিস কমপ্লেক্সের অবকাঠামোর উন্নয়ন ঘঠাতে চান হায়দার। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দীর্ঘদিন ফেডারেশনে নির্বাচিত কমিটি না থাকায় স্থাপনাটির অবস্থা খুবই খারাপ। টেনিস কোর্ট থেকে শুরু করে ডরমেটরি, জিমনেশিয়াম, প্রেসিডেন্ট রুম, কনফারেন্স রুম সবকিছুই সংস্কার করতে হবে। এরমধ্যে খেলোয়াড়দের ডরমেটরিতে দ্রুত ফার্নিচার আনতে হবে। প্রয়োজনে নিজম্ব অর্থায়নে আমি কাজটি করবো। যাতে করে তৃণমূলে প্রতিভা অন্বেষণের পর খেলোয়াড়দের এখানে আবাসনের ব্যবস্থা করতে পারি।’

সারা দেশে টেনিস খেলা ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনার কথা জানিয়ে নতুন সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘এখনই স্কুল পর্যায়ে টেনিস নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। তাই আপাতত বিভাগীয় পর্যায়ে টেনিস টুর্নামেন্ট দিয়ে শুরু করতে চাই। এসপি, ডিসি এবং কাউন্সিলরদের সর্ম্পক্ত করে যদি বিভাগীয় টুর্নামেন্ট সফলভাবে করতে পারি, তাহলে আমাদের খেলোয়াড় সংকট থাকবে না। তাদের ঠিকমতো পরিচর্যা করতে পারলে ভালো কিছু পাওয়া সম্ভব। কারণ একশ’ খেলোয়াড় থেকে একজন তারকা পাওয়া মুশকিল হলেও ১০ হাজার খেলোয়াড় থেকে ঠিকই একজন তারকা বের করে আনা সম্ভব।’

তিনি যোগ করেন, ‘আমার ছেলে ও মেয়ে বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টে চ্যাম্পিয়ন। আমি চাই টেনিসের দিকে সবার দৃষ্টি থাকুক। আমি জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ ছাড়াও ঘরোয়া টুর্নামেন্টগুলো নিয়মিত আয়োজন করবো। আন্তর্জাতিকভাবে টেনিস অনেক সম্মানের খেলা। ডেভিস কাপসহ অন্য আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে বাংলাদেশ দল যাতে অংশ নিতে পারে সেদিকেও দৃষ্টি থাকবে আমার। আমি চাই সবাইকে নিয়ে মিলেমিশে কাজ করতে।’

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন