Inqilab Logo

সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৬ মুহাররম ১৪৪৪

সমঝোতা চুক্তি: দারাজ মলে পাওয়া যাচ্ছে ভিসতা পণ্য

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৮ জুন, ২০২২, ৯:০২ পিএম

এখন থেকে ছাড়কৃত মূল্যে ভিসতা ব্র্যান্ডের এ্যান্ড্রয়েড টিভি পাওয়া যাবে দারাজে। মঙ্গলবার (২৮ জুন) ভিসতা এবং দারাজের মধ্যে এক সমঝোতা চুক্তি হয়েছে। এর আওতায় গ্রাহকরা দারাজ থেকে ভিসতা টিভি কিনলে ২৭ শতাংশ পর্যন্ত ছাড় পাবে। যার ২০ শতাংশ দিচ্ছে ভিসতা আর ৭ শতাংশ ছাড় দিচ্ছে দারাজ। রয়েছে আরো কিছু আকর্ষণীয় অফার।

রাজধানীর বনানীতে দারাজের প্রধান কার্যালয়ে চুক্তিস্বাক্ষর অনুষ্ঠানটি হয়। সমঝোতা চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন ভিসতার ব্যবস্থাপনা পরিচালক লোকমান হোসেন আকাশ এবং দারাজের চিফ করপোরেট অ্যাফেয়ারস এ এইচ এম হাসিনুল কুদ্দুস রুশো। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দারাজের চিফ কমার্শিয়াল অফিসার সাব্বির হোসেইন, ভিসতা ইলেকট্রনিক্স এর চেয়ারম্যান সামছুল আলম, পরিচালক চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন ও উদয় হাকিম।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দারাজের হেড অব কি এ্যাকাউন্টস এন্ড ব্র্যান্ডস নাহিন আহমেদ, কি এ্যাকাউন্ট ম্যানেজার (ইলেকট্রনিক্স) মো. আবু নোমান এবং নাকিব খান (দারাজ লাইভ)। ভিসতার পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ডেপুটি ডিরেক্টর ফয়সাল ইসলাম, ডেপুটি ব্র্যান্ড ম্যানেজার হায়দারুজ্জামান সুজন, পলাশ মধু, মেনুকা তাসনিম, আলী হায়দার খান প্রমূখ। চুক্তিশেষে ভিসতার কর্মকর্তারা দারাজ এর লাইভ অনুষ্ঠানে অংশ নেন।

এই চুক্তির আওতায় দারাজের ফ্লাগশিপ স্টোরে ট্রাস্টেড ব্র্যান্ড হিসেবে ভিসতা পণ্য প্রদর্শণ এবং বিক্রি হবে। দেশের যে কোনো প্রান্তে যথাসম্ভব কম খরচে গ্রাহকের কাছে পণ্য পৌছে যাবে। ভিসতা শতভাগ জেনুইন এবং মানসম্পন্ন পণ্য সরবারহ করবে। দারাজ মলের ফ্লাগশিপ পলিসি অনুযায়ী ১৪ দিনের মধ্যে পণ্য পছন্দ না হলে তা ফেরত নেয়া হবে। ভিসতা বেস্ট প্রাইসে পণ্য দেবে এবং দারাজ যত দ্রুত সম্ভব পণ্য সাপ্লাই দেবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন

ব্যাংকগুলোর দ্রুত রফতানি আয় নগদায়নের নির্দেশ

খোলাবাজারে ডলারের দাম যখন সর্বোচ্চ ১২০ টাকায় ঠেকেছে। তখন সংকটে লাগামহীন বৈদেশিক মুদ্রা ডলারের বাজার নিয়ন্ত্রণে রোববার (১৪ আগস্ট) বিকেলে ব্যাংক প্রধান নির্বাহীদের সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) ও বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস অ্যাসোসিয়েশনের (বাফেদা) সঙ্গে বৈঠকে বসে বাংলাদেশ ব্যাংক। বৈঠকে চলমান সংকট নিরসনে ব্যাংক প্রধানদের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনার পাশাপাশি দিক নির্দেশনা দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। সভাশেষে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মুখপাত্র মো. সিরাজুল ইসলাম জানান, আমদানি ব্যয় কমে যাওয়ায় শিগগিরই ডলারের বাজারে স্বস্তি ফিরবে। এছাড়া ব্যাংকগুলোকে রফতানি আয়ের দ্রুত নগদ আদায়ের নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।   গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরও বলেন, আমদানি-রফতানির ক্ষেত্রে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলো কি দামে ডলার বেচাকেনা করছে, তার রিপোর্ট বাংলাদেশ ব্যাংকে দেয়ার নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে। এ সময় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনা মেনে চলার কথা জানান ব্যাংকাররা।   এ দিকে রোববার (১৪ আগস্ট) খোলাবাজারে ডলারের দাম পর্যালোচনা করে দেখা যায়, বর্তমানে কার্ব মার্কেটে ডলার বিক্রি হচ্ছে ১১২ থেকে ১১৪ টাকায়। মতিঝিলের কয়েকটি মানি এক্সচেঞ্জের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, বর্তমানে তারা ১১০ থেকে ১১১ টাকা দরে ডলার কিনছে এবং বিক্রি করছে ১১২ থেকে ১১৪ টাকা দরে। তবে ডলার ব্যবসায়ীরা বলছেন, দাম কমায় বলা যাবে না বাজার স্থিতিশীল হয়েছে। যতদিন না টাকার মান আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বাড়ছে, বাজার স্থিতিশীল হচ্ছে, ততদিন পর্যন্ত ডলারের বাজার দোদুল্যমান থাকার শঙ্কা করেছেন ব্যবসায়ীরা।  

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ