Inqilab Logo

শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

খেরসনের মেয়রকে আটক করেছে রুশ বাহিনী

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ জুন, ২০২২, ২:১০ পিএম

কৃষ্ণ সাগর উপকূলবর্তী দক্ষিণ ইউক্রেনের গুরুত্বপূর্ণ শহর খেরসনের মেয়র ইহোর কোলিখায়েভকে আটক করেছে অভিযানরত রুশ বাহিনী। মঙ্গলবার (২৮ জুন) কোলিখায়েভকে আটকের খবরটি নিশ্চিত করেছেন খেরসন অঞ্চলে রাশিয়া কর্তৃক নিযুক্ত কর্মকর্তারা, আর ইউক্রেনীয় কর্মকর্তা জানিয়েছেন মেয়রকে অপহরণ করা হয়েছে।

খেরসন অঞ্চলে মস্কো নিযুক্ত ডেপুটি হেড একেতেরিনা গুবারেভা নিজ টেলিগ্রাম পোস্টে জানান, ‘‘আমি নিশ্চিত করতে পারি যে কোলিখায়েভকে কমান্ড্যান্টের কার্যালয় থেকে আটক করা হয়েছে।” খবর রয়টার্স।

শহরটিতে মস্কো নিযুক্ত আরেকজন ডেপুটি কিরিল স্ট্রেমাসভ বলেন, ‘‘ইউক্রেনে রাশিয়ার ‘ডিনাজিফিকেশন প্রক্রিয়ার’ অনেক ক্ষতি করেছেন কোলিখায়েভ। অবশেষে, তাকে নিরপেক্ষ করা হয়েছে।’’


আর মেয়র কোলিখায়েভের উপদেষ্টা হ্যালিনা লায়াশেভস্কা জানান, রাশিয়ান দখলদারদের সাথে সহযোগিতা করতে অস্বীকার করার পরে মেয়রকে অপহরণ করা হয়ে। মঙ্গলবার তিনি বলেন, ‘‘আজ সকালে, মেয়র কোলিখায়েভকে সিটি কাউন্সিলের বাইরে গাড়ি থেকে নামার সাথে সাথেই আটক করা হয়। রাশিয়ার ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিস তাকে অপহরণ করে।’’

গত মার্চে অনুরূপভাবে মেলিটোপোলের মেয়র ইভান ফেডোরভকেও আটক করা হয়। তবে আটকের আগে কয়েক ঘণ্টার কঠিন জিজ্ঞাসাবাদের সম্মুখীন হতে হয়েছিল তাকে।

খেরসন কৃষ্ণ সাগর তীরবর্তী একটি বন্দর শহর। এর অবস্থান রাশিয়াঅধিভুক্ত ক্রিমিয়ান উপদ্বীপের ঠিক উত্তর-পশ্চিমে। ফেব্রুয়ারিতে শুরু হওয়া ইউক্রেনে রাশিয়ার আগ্রাসনের প্রথম সপ্তাহেই শহরটি দখল করা হয়েছিল এবং স্থানীয় জনসংখ্যার একটি বড় অংশ এই অঞ্চল ছেড়ে চলে গেছে।

২৪ জুন চতুর্থ মাস অতিক্রম করে রুশ-ইউক্রেন যুদ্ধের দৈর্ঘ্য। প্রাথমিক পর্যায়ে তুমুল প্রতিরোধের মুখে পড়লেও অভিযানের দ্বিতীয় ধাপে লক্ষণীয় বিজয় অর্জন করছে মস্কো।

বর্তমানে তারা ডনবাস অঞ্চলের দখল নিশ্চিতে সম্পূর্ণ মনোনিবেশ করেছে। লুহানস্ক ও দোনেস্ক প্রদেশ দুটি নিয়ে ডনবাস গঠিত। অঞ্চলটিতে ২০১৪ সাল থেকেই রুশ ভাষীরা স্বাধীনতার দাবিতে লড়াই করছে।

ইতোমধ্যে রাশিয়ান সামরিক বাহিনী লুহানস্ক প্রদেশের প্রায় ৯৫ শতাংশ এবং দোনেস্কের ৬০ শতাংশের বেশি ভূখণ্ড দখলে নিয়েছে। তুমুল ক্ষেপণাস্ত্র ও কামান হামলায় অঞ্চলটি বিপর্যস্ত অবস্থায় রয়েছে।

 

 

 

 

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইউক্রেন


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ