Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২, ০২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৮ মুহাররম ১৪৪৪

বন্যার্তদের দুঃখ-দুর্দশায় গোটা জাতি ব্যথিত

ত্রাণসামগ্রী বিতরণকালে নেতৃবৃন্দ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩০ জুন, ২০২২, ১২:০১ এএম

সিলেট, সুনামগঞ্জ, কুড়িগ্রামসহ বিভিন্ন বন্যাদুর্গত এলাকার অসহায় মানুষের দুঃখ-দুর্দশায় গোটা জাতি ব্যথিত। বন্যা পরবর্তী ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পুনর্বাসনে সরকারকে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ করতে হবে। বন্যাপ্লাবিত অঞ্চলের হাজার হাজার মানুষ এখনো কোনো ত্রাণসামগ্রী পায়নি। সমাজের বিত্তশালী ব্যক্তিদের বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াতে হবে। বন্যাদুর্গত এলাকায় অসহায় মানুষের মাঝে গতকাল বুধবার ত্রাণসামগ্রী বিতরণকালে বিভিন্ন ইসলামী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন : বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের উদ্যোগে গতকাল সকালে সুনামগঞ্জ জেলার শাল্লা এলাকায় ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী ও নগদ টাকা বিতরণ করা হয়। খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও ঢাকা মহানগর আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী ও কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ জেলা আমীর আলহাজ আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সির নেতৃত্বে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রম সম্পন্ন করা হয়।

এ সময় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন, খেলাফত আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলা নায়েবে আমীর মুফতী এহতেশামুল হক কাসেমী উজানী, কেন্দ্রীয় নেতা ও হবিগঞ্জ জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা জুনায়েদ আহমদ কাটখালী, ঢাকা মহানগরীর নায়েবে আমীর মুফতী আখতারুজ্জামান আশরাফী, মুফতী মুশফিকুর রহমান জামাল রশিদী, মাহদী হাসান, ইকবাল হাসান আজাদ ও মাওলানা ফয়সালসহ জেলা নেতৃবৃন্দ। ত্রাণ বিতরণকালে উপস্থিত বন্যার্তদের মাঝে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে দলের শীর্ষ নেতা আলহাজ আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সি বলেন, বন্যাদুর্গত মানুষের দুঃখ-দুর্দশায় গোটা জাতি ব্যথিত। বন্যা পরবর্তী সঙ্কট মোকাবিলায় সরকারসহ বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বিপদ-মুসিবত সবই আল্লাহর পক্ষ থেকে আসে। মহান আল্লাহর দরবারে আমাদের অতীতের গোনাহ থেকে তওবা, রোনাজারি ও দোয়া করতে হবে। দলের নায়েবে আমীর মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী বলেন, আল্লাহর প্রতি অবাধ্যতার কারণে বন্যা খরাসহ নানা ধরনের প্রাকৃতিক দুর্যোগ নেমে আসে। এসব থেকে পরিত্রাণ পেতে হলে হাফেজ্জী হুজুরের তওবার ডাকে সাড়া দিয়ে সব ধরনের পাপাচার পরিহার করত বেশি বেশি তওবা ও ইস্তেগফার করতে হবে।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ : জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদের সভাপতি ও জামিয়া মাদানিয়া আঙ্গুরা মুহাম্মদপুরের পরিচালক শায়খ মাওলানা জিয়া উদ্দীনের উদ্যোগে ও জামিয়া আঙ্গুরার ব্যবস্থাপনায় সিলেট ও সুনামগঞ্জে গত তিনদিন সিলেট জেলার কোম্পানিগঞ্জ, গোয়াইনঘাট ও সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক দোয়ারা উপজেলার ৫০০ পরিবারের মাঝে নগদ অর্থ ও কাপড় বিতরণ করা হয়। শায়খ জিয়া উদ্দীন বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানোর জন্য দেশ-বিদেশের মানবতাবাদী মানুষদের ধন্যবাদ জানান। শায়খ জিয়া উদ্দীন এহেন মসিবত থেকে উদ্ধারকল্পে দেশবাসীকে আল্লাহর দরবারে তওবাহ ইস্তেগফার করার আহ্বান জানান। তিনি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত বানভাসি মানুষের জন্য বিশেষ মোনাজাত করেন। ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, জামিয়া আঙ্গুরার শায়খুল হাদীস মুফতি মুজিবুর রহমান, মাওলানা আব্দুল গাফফার, মাওলানা ফখরুজ্জামান, মাওলানা মাহফুজ আহমদ, মাওলানা আব্দুল কাদির, মাওলানা জফির উদ্দীন, মাওলানা ফরহাদ আহমদ, মাওলানা জামিল আহমদ ও মাওলানা লুকমান হাকীম।

সাভার তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের উলামায়ে কেরাম : তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) উপজেলার টাঙ্গুয়ার হাওর সংলগ্ন বাগলী, টেকেরঘাট, নীলাদ্রিসহ বিভিন্ন এলাকায় বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছে ঢাকার সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের উলামায়ে কেরাম। গতকাল ভারতের মেঘালয়ের কোল ঘেঁষে তাহিরপুরের সর্বশেষ দুর্গম জনপদ বাগলী থেকে ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম শুরু করেন তারা। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি মেরামতের জন্য তারা দুই শতাধিক পরিবারকে নগদ অর্থ এবং পাঁচ শতাধিক বানভাসি মানুষের মাঝে ওষুধ, চাল, ডাল, পেঁয়াজ, আলুসহ নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরণ করেন। এ সময় নেতৃবৃন্দ বলেন, বিপদগ্রস্ত মানুষের কল্যাণে এগিয়ে আসা অনেক বড় সওয়াবের কাজ। তাই বন্যার্তদের সহায়তায় সবাই এগিয়ে আসুন, আল্লাহ খুশি হবেন। শুধু নামাজ, রোজাসহ অন্যান্য বিধিবদ্ধ ইবাদত পরকালের নাজাতের জন্য যথেষ্ট নয়। যারা সমাজের অসহায় বন্যাদুর্গত গরিব মানুষের পাশে দাঁড়ায় না; তারা আল্লাহ ও তার রাসূলের (সা.) কাছে কখনোই প্রিয়ভাজন হতে পারবে না। ত্রাণ বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন সাভারের ভূঁইয়াবাড়ি জামে মসজিদের খতীব মাওলানা আবু সাঈদ, হযরত সুমাইয়া (রা.) মহিলা মাদরাসার মুহতামিম মুফতি কেফায়াতুল্লাহ আনসারী, ইমাম আজম আবু হানীফা (রহ.) মাদরাসার মুহতামিম মুফতি আব্দুল কুদ্দুস, যাদুরচর মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস মুফতি আবদুল্লাহ ফিরোজী, দারুল উলূম ইসলামিয়া মাদরাসার মুহতামিম মুফতি মানজুরুল আলম নোমানী, নাজিমনগর মসজিদের খতীব মুফতি ফয়জুর রহমান সাদেকী, মুফতি জাকির হোসাইন হায়দারী।

যশোর ইমাম পরিষদ : যশোর ব্যুরো জানায়, সিলেট সুনামগঞ্জের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত ২ হাজার মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন যশোর জেলা ইমাম পরিষদ। গতকাল বুধবার সকালে সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ড এলাকা ও দুপুরের পর জামালগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ত্রাণ দেয়া হয়। এসময় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে চাল, ডাল, চিড়া, চিনি, লবণ, আলু, তেল, ওষুধ শুকনা খাবার, কাপড় ও নগদ টাকা প্রদান করেন ইমাম পরিষদের প্রতিনিধিরা।

এর আগে গত সোমবার ইমাম পরিষদের ২৪ সদস্যর একটি প্রতিনিধি দল ৪৫টন ত্রাণসামগ্রী ও নগদ অর্থ নিয়ে সিলেটে যান। মঙ্গলবার সেখানে গিয়ে তারা স্থানীয় প্রশাসন, জনপ্রতিনিধিদের সাথে সমন্বয় করে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরী করে ত্রাণ বিতরণ করেন।
ত্রাণ বহরের নেতৃত্বে থাকা জেলা ইমাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা বেলায়েত হোসেন জানান, সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মোল্লাপাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায় ট্রলারে করে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন। ত্রাণ পেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষ আল্লাহর প্রতি শোকরিয়া জ্ঞাপনের পাশাপাশি ইমাম পরিষদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এসময় ওই এলাকার ১ হাজার মানুষের মাঝে এ ত্রাণ সামগ্রী তুলে দেয়া হয়। জামালগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন এলাকাতেও সমগ্র ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, জেলা ইমাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মাওলানা মো. বেলায়েত হোসেন, মুফতি হামিদুল ইসলাম, মুফতি হাফিজুর রহমান, মুফতি মো. মাজহারুল ইসলাম, মুফতি আব্দুর রহমান এযাযী, মুফতি কামরুল আনোয়ার নাঈম, মুফতি শামসুর রহমান, হাফেজ মো. আব্দুল্লাহ, মুফতি হুসাইন আহমেদ।

সিলেটে বন্যার্তদের মাঝে ড্যাবের ত্রাণসামগ্রী বিতরণ : বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে সিলেটের ভয়াবহ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী প্রদান করেছে চিকিৎসকদের সংগঠন ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ড্যাব) এর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। ড্যাব সিলেট জেলা এবং মেডিকেল কলেজ শাখার সহযোগিতায় কেন্দ্রীয় বিএনপি এবং সিলেট জেলা বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দের অংশগ্রহণে দক্ষিণ সুরমা অঞ্চলের বন্যাদুর্গতদের মাঝে প্রায় ৫০০ প্যাকেট খাদ্যসামগ্রী বন্যাদুর্গতদের মাঝে বিতরণ করা হয়। ড্যাবের কেন্দ্রীয় সভাপতি অধ্যাপক ডা. হারুন আল রশিদ জানান, ত্রাণসামগ্রীর মধ্যে চাল, ডাল, আলু, তেল, চিড়া ও পেঁয়াজ রয়েছে। এসময় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ড. এনামুল হক চৌধুরী, সিলেট জেলা বিএনপিসাধারণ সম্পাদক মিফতাহ সিদ্দিকী, সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক ও জেলা ড্যাবের সভাপতি ডা: শাহরিয়ার আহমেদ চৌধুরী, ডা: শামিম আহমেদ চৌধুরী, ডা: নাজমুল, ড্যাবের কেন্দ্রীয় কোষাধক্ষ্য এবং ত্রাণ উপকমিটির আহ্বায়ক ডা: জহিরুল ইসলাম শাকিলের নেতৃত্বে যুগ্ম মহাসচিব ডা: পারভেজ রেজা কাকন, সমাজকল্যাণ সম্পাদক ডা. কনক, সহ-সম্পাদক ডা. জিলানী, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ডাক্তার আজাদসহ ছাত্রদল যুবদল নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বন্যা


আরও
আরও পড়ুন