Inqilab Logo

শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

ডিএসসিসির অস্থায়ী কর্মচারীদের অসন্তোষ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১ জুলাই, ২০২২, ১২:১১ এএম

দীর্ঘদিন থেকেই ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের অস্থায়ী কর্মীরা ঈদ বোনাস বঞ্চিত হচ্ছেন। ঈদ উপলক্ষে রাজস্ব আওতায় কর্মচারিরা বোনাস পেলেও অস্থায়ী কর্মচারীরা বেতনের সাথে বোনাস না পাওয়ায় তাদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। অনেকে চাকরি হারানোর ভয়ে এ বিষয়ে মুখ খুলছেন না। ভাতা বৈষম্যের শিকার হওয়া কর্মচারীরা তাদের সন্তান-আত্মীয়দের নিয়ে ঈদ কাটানোর জন্য আর্থিক সমস্যায় বিপাকে রয়েছেন।
তারা বলছেন, জীবনযাত্রার ব্যয় বিবেচনায় ঈদের সময় তাদের বোনাস ভাতা দিলে পরিবার পরিজন নিয়ে ভালোভাবে ঈদের সময়টুকু কাটাতে পারতেন। মহামারির কারণে স্থবির হয়ে যাওয়ায় অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তার কারণে কর্মচারীরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সরকার নির্দেশিত দায়িত্ব পালন করেছেন। সেই বিবেচনায় তাদের এবারের ঈদে তাদের মূলবেতনের সাথে বোনাস প্রদানে দাবি করছেন তারা। বর্তমানে অনিয়ন্ত্রিত বাজার ব্যবস্থা ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে সীমিত আয়ের কর্মচারীরা সংসারের ন্যূনতম ব্যয় বহনে দিশেহারা। বর্তমান সময়ে দ্রব্যমূল্যের কারণে তাদের বেতনের বেশিরভাগ টাকাই চলে যায় নিত্যপণ্য কিনতে।
ডিএসসিসি সূত্রে জানা গেছে, পূর্বের মেয়রের সময়ে অস্থায়ী কর্মচারীদের বেতন দীর্ঘদিন বন্ধ ছিলো। পরবর্তীতে তাদের সকল পূর্বের সকল পাওনা পরিশোধ করা হয়েছে। পূর্বের পাওনা পরিশোধ করার পরও কন্সুলেটেড প্রভিডেন্ট ফান্ট (সিপিএফ) এর সকল টাকা দেয়া হয়েছে। আগের মেয়রের সময় তাদের চার বছর কোন ধরনের লভ্যাংশ দেয়া হতো না। এখন বর্তমান মেয়র দায়িত্ব নেয়ার পর পূর্বের বকেয়াসহ সকল লভ্যাংশ পরিশোধ করা হয়েছে।
ডিএসসিসি সূত্র আরও জানায়, অস্থায়ী কর্মীদের চাকরি নীতিমালা অনুযায়ী তাদের বেতন পরিশোধ করা হয়। তারা চাকরির যেসব শর্ত মেনে যোগদান করেছেন সেভাবেই তাদের টাকা পরিশোধ করা হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন