Inqilab Logo

বুধবার, ১৭ আগস্ট ২০২২, ০২ ভাদ্র ১৪২৯, ১৮ মুহাররম ১৪৪৪

ভারত বর্ষাকালে বাংলাদেশকে ভাসিয়ে দেয়

কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ড. মোশাররফ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২ জুলাই, ২০২২, ১২:০১ এএম

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বর্ষাকালে যখন অতি বৃষ্টি হয় তথন তাদের (ভারত) স্বার্থে একসাথে সব গেইট খুলে দেয়া হয় এবং সব পানি বাংলাদেশে এসে পড়ে। যে সময়ে আমাদের পানির প্রয়োজন নেই তখন আমাদেরকে ভাসিয়ে দেয়া হয় আর যখন প্রয়োজন তখন বাংলাদেশের নদীগুলো স্বাভাবিক পানি প্রবাহ থাকে না। নদ-নদীগুলো মরা নদীতে পরিণত হয়। আমাদের কৃষি, আমাদের জীব-বৈচিত্র চরমভাবে বিপর্যস্ত হচ্ছে।
গতকাল শুক্রবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচ তলায় মহানগর দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ নেতৃবৃন্দ আশু আরোগ্য কামনায় আয়োজিত দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।
বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রামণ আবার বৃদ্ধি সরকারের অবহেলার কারণেই বলে অভিযোগ করে খন্দকার মোশাররফ বলেছেন, করোনাভাইরাস চতুর্থবারের জন্য আবার সংক্রমিত হচ্ছে। এটা সরকারের অবহেলার কারণেই। আমাদের দেশের আগে চীনে নতুন করে আবার এই ওয়েব সৃষ্টি হয়েছিলো। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে কোনো ভ্রুক্ষেপ করা হয়নি, এটাকে কোনো রকমের পাত্তা দেয়া হয়নি। আজকে দেশে আবার করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি হচ্ছে। আমাদের নেতৃবৃন্দ আক্রান্ত হচ্ছেন, দেশবাসী আক্রান্ত হচ্ছেন। এখানেই সরকারের ব্যর্থতা এবং এখানেও তাদের অসাবধনতা।
বন্যা কবলিত অঞ্চলের দুর্ভোগের চিত্র বর্ণনা করে ড. মোশাররফ বলেন, প্রলয়ঙ্করী বন্যা সিলেট অঞ্চলে হয়েছে এটা ১২২ বছরের রেকর্ড ভঙ্গ করেছে। আবার সেখানে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই পানি আসছে আমাদের উপরের দেশ থেকে। আমাদের দেশের ৫৪টা নদীর উজানে বাঁধ দেয়া আছে।
তিনি বলেন, আজকে যারা সরকারে আছে তারা জনগণের সরকার নয়, তারা জনগণের কথা চিন্তা করে না, তারা শুধু নিজের স্বার্থ চিন্তা করে। কীভাবে ক্ষমতায় থাকবো সেই কৌশল করে। বন্যা হচ্ছে- এ নিয়ে প্রতিবেশি দেশের সাথে কথা বলার দরকার ছিলো। কিন্তু তারা (সরকার) তা পারছে না। কারণ এই সরকারের পররাষ্ট্রনীতি নতজানু। সেজন্য রোহিঙ্গাদেরকে মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো যাচ্ছে না। আজকে সরকার ক্ষমতায় থাকার জন্য যাকে ইচ্ছা ছাড় দিচ্ছে আর জাতীয় স্বার্থকে ক্ষুন্ন করছে।
মহানগর দক্ষিণের আহবায়ক আবদুস সালামের সভাপতিত্বে ও সদস্য রফিকুল আলম মজনুর সঞ্চালনায় দোয়া মাহফিল পূর্ব সংক্ষিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিএনপির আবদুস সালাম আজাদ, মীর সরফত আলী সপু, মীর নেওয়াজ আলী, সাইফুল আলম নিরব। পরে খালেদা জিয়াসহ সকল নেতৃবৃন্দের আরোগ্য কামনায় বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন নেতৃবৃন্দ।#



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: বিএনপি


আরও
আরও পড়ুন