Inqilab Logo

সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৬ মুহাররম ১৪৪৪

নোটিশের পর রাবির বৈধ শিক্ষার্থীদের হল গেইটে অবস্থান

রাবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১ জুলাই, ২০২২, ৯:৫৮ পিএম

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী হলের অনাবাসিক শিক্ষার্থীদেরকে বুধবার মধ্যেই হল ত্যাগের নোটিশ দেওয়ার পর আজ (০১ জুলাই) সন্ধার দিকে হল অভিযান পরিচালনা করতে যাবেন হল প্রশাসন। এদিকে বৈধ শিক্ষার্থীরা হলে উঠার জন্য হল গেইটের সামনে অবস্থান করছেন। শুক্রবার (১ জুলাই) বিকালে বৈধ শিক্ষার্থীরা বিছানাপত্র নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সোহরাওয়ার্দী হল গেইটের সামনে অবস্থান করছেন।

এর আগে ২৪ জুন হল প্রশাসন অবৈধ শিক্ষার্থীদের হল ত্যাগের নির্দেশের বিজ্ঞপ্তিতে দেন। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, সোহরাওয়ার্দী হলে অনাবাসিক ও বহিরাগত যারা অন্য হলের শিক্ষার্থী হয়ে এই হলে অবস্থান করছে তাদের ২৯ জুনের (বুধবার) মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ প্রদান করা হলো। কোনো শিক্ষার্থী তার সমস্যার বিষয়ে ব্যক্তিগতভাবে হল প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে এই সময়ের মধ্যে অভিভাবকসহ হল প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগের নির্দেশ প্রদান করা হলো।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, হলের আবাসিক শিক্ষার্থীরা যারা এখনও হলে উঠতে পারেনি আগামী ১ জুলাই হলে তার জন্য নির্ধারিত কক্ষে ওঠানোর প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এ ব্যাপারে তাদেরকে আগাম হল প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগের নির্দেশ প্রদান করা হল।

এদিকে হল প্রশাসনের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী আজ (১ জুলাই) সোহরাওয়ার্দী হলে যারা অবৈধভাবে সিটে অবস্থান করছেন তাদেরকে নামিয়ে দিয়ে বৈধ শিক্ষার্থীদের হলে তুলে দিতে চান হল প্রশাসন। নির্দেশনা মতে বিকাল ৫ টা থেকে হল গেইটের সামনে সামনে জড়ো হতে থাকে বৈধ শিক্ষার্থীরা।

হলে উঠতে আসা তৃতীয় বর্ষের বৈধ শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম বলেন, স্যার আমাদেরকে আজকে হলে তুলে দিবেন। তাই সাহেব বাজার থেকে আমি মেস ছেড়ে বিছানাপত্র নিয়ে চলে আসছি। আজকেই আমাদের হলে উঠতে হবে, না হলে আমাদের হলের বারান্দায় হলেও থাকতে হবে। কারণ মেস ছেড়ে দিয়েছি এখন আর থাকার জায়গা নেই।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হল প্রাধ্যক্ষ ড. মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, সোহরাওয়ার্দী হলে অনাবাসিক ও অবৈধভাবে অবস্থান করছে এমন শিক্ষার্থীদেরকে ২৯ জুনের মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ দিয়েছিলাম। যারা নেমেছে ভালো আর যারা অবৈধ হয়ে এখনো হল ত্যাগ করেনি তাদেরকে হল অভিযানের মাধ্যমে নামামো হবে। নামাজের পর অভিযান শুরু হবে বলে জানান তিনি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ