Inqilab Logo

শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

জ্বালানি তেল, গ্যাস ও কয়লার পর এবার গম-ভোজ্যতেলও রুবলে বিক্রি করবে রাশিয়া

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ জুলাই, ২০২২, ৩:৩১ পিএম

জ্বালানি তেল, গ্যাস ও কয়লার পর এবার গম, ভোজ্যতেল ও অন্যান্য কৃষিপণ্যও দেশীয় মুদ্রা রুবলে বিক্রির সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাশিয়া। গতকাল শুক্রবার দেশটির একটি সরকারি ওয়েবসাইটে জানানো হয় এই তথ্য।

অর্থাৎ, এখন থেকে কোনো দেশ যদি রাশিয়ার কাছ থেকে গম, ভোজ্য তেল ও অন্যান্য কৃষিপণ্য কিনতে চায়, তাহলে আগে ডলার-পাউন্ড-ইউরো ও অন্যান্য মুদ্রার বিনিময়ে রাশিয়ার মুদ্রাবাজার থেকে রুবল কিনতে হবে ওই দেশকে। তারপর ক্রয় করা দ্রব্যাদির বিক্রয়মূল্য শোধ করতে হবে রুবল দিয়ে।
ইউক্রেনে রুশ বাহিনী সামরিক অভিযানের জেরে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্র পশ্চিমা বিভিন্ন দেশের জারি করা একের পর এক নিষেধাজ্ঞা থেকে নিজেদের অর্থনীতিকে রক্ষা করতে গত ২৩ মার্চ ভ্লাদিমির পুতিন ঘোষণা দেন— এখন থেকে রুবলের বিনিময়ে জ্বালানি বিক্রি করবে রাশিয়া। যেসব দেশ রাশিয়ার কাছ থেকে জ্বালানি কিনতে চায়, তাদেরকে প্রথমে নিজেদের মুদ্রার বিনিময়ে রুবল কিনতে হবে।
পুতিন এই ঘোষণা দেওয়ার একসপ্তাহ পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টেলিগ্রামে এক পোস্টে রাশিয়ার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ দুমার স্পিকার ভিয়েচেস্লাভ ভলোদিন বলেন, ‘আমরা নতুন একটি আইন প্রণয়ন করতে যাচ্ছি। এ আইন অনুযায়ী কেবল গ্যাস নয়; রাশিয়ার তেল, কয়লা, খাদ্যশস্য, ভোজ্যতেল, কাঠ, ধাতু- যে কোনো পণ্য কিনতে হলেই ক্রেতাদেরকে রুবলে মূল্য পরিশোধ করতে হবে।’
রাশিয়া বিশ্বের বৃহত্তম গম ও সূর্যমুখী তেল রপ্তানিকারক দেশ। তার ওপর চলতি বছর ১৩ কোটি টন গম উৎপাদন হয়েছে রাশিয়ায়, যা দেশটির সাম্প্রতিককালের ইতিহাসে সর্বোচ্চ গম উৎপাদনের রেকর্ড।

 

 

 



 

Show all comments
  • জহুরুল হক জায়েদ ৩ জুলাই, ২০২২, ৪:৫৫ পিএম says : 0
    এটা অনেকটা আব্বাসীয় খেলাফতের ঘটনার সময়ের পুনরাবৃত্তি ঘটেছে। বায়জেন্টাই সম্রাট যখন মুসলিম খলিফাকে মুদ্রার বিষয়ে নোটিশ করে অসম্মতি জ্ঞাপন করেছিল, তখন আব্বাসীয় খলিফা নিজেদের মুদ্রায় লেনদেনের সিদ্ধান্ত নেয়। আর তাতে বায়জান্টাইন মুদ্রা আরব বিশ্বে গ্রহণযোগ্যতা হারায়। এমনিভাবেই একদিন রুবলও আন্তর্জাতিক মুদ্রার মর্যাদা পাবে।
    Total Reply(0) Reply
  • রেজাউল করিম ৫ জুলাই, ২০২২, ৯:৪৪ এএম says : 0
    আমেরিকা ও তার ডলারের বিপরীতে বিকল্প নেতৃত্ব ও মুদ্রার আবির্ভাব খুব‌ই দরকার। সেটা রাশিয়া, চীন, রুবেল বা উইয়ান তাই হোক না কেন?
    Total Reply(0) Reply
  • Rokibul ৫ জুলাই, ২০২২, ৯:২০ এএম says : 0
    আমি মনে করি,ইউরোপীয় ইউনিয়নের উচিৎ রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধ বন্ধের উপায় খুঁজে নিজেদের বাচানো।রাশিয়ার জ্বালানি বন্ধ হলে আমেরিকার কোন ক্ষতি হবে না কিন্তু ইউরোপ চরম ক্ষতির মুখে পড়বে।
    Total Reply(0) Reply
  • Alam miah ৬ জুলাই, ২০২২, ১০:১৪ এএম says : 0
    Russia taken right decision. Go ahead Bangladesh with you.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: রাশিয়া


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ