Inqilab Logo

শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

মোংলায় মাটির নিচ থেকে ওঠা গ্যাসে জ্বলছে চুলা

খুলনা ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ৩ জুলাই, ২০২২, ১২:০২ এএম

বাগেরহাটের মোংলায় একটি মৎস্য ঘেরে বালি উঠানোর সময় ভূগর্ভস্থ গ্যাসের সন্ধান মিলেছে। এ সময় গ্যাসের সঙ্গে তীব্র বেগে বালি ও পানি মিশে প্রায় ৫০ ফুট ওপরে ছড়িয়ে পড়ে। এরপরই গ্যাস ওঠার বিষয়টি বুঝতে পারেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। ঘটনা জানাজানি হলে গ্যাস বের হওয়ার দৃশ্য দেখতে প্রতিদিন ভিড় জমাচ্ছেন আশপাশের এলাকার উৎসুক মানুষ। মোংলা উপজেলার মিঠাখালি ইউনিয়নের মধ্যপাড়া এলাকার ১নং ওয়ার্ডের মৃত মো. আলহাজ্ব আলতাফ হোসেনের ছেলে দেলোয়ার হোসেন-এর মৎস্য ঘেরে এ ঘটনা ঘটে। এই গ্যাস পাইপের মাধ্যমে সংগ্রহ করে দেলোয়ার হোসেনের বাড়িতে রান্নাবান্নার কাজ চলছে। দেলোয়ার হোসেন জানান, গত বৃহস্পতিবার সকালে ৩ বিঘা জমিতে বালি কাটার জন্য মৎস্য ঘেরে পাইপ বসানোর সময় হঠাৎ পাইপ দিয়ে গ্যাস ওঠা শুরু হয়। পাইপ বসানোর সময় হঠাৎ ৫০ ফুট উচ্চতায় গ্যাস, বালু ও পানি উপরের দিকে উঠতে থাকে। তাৎক্ষণিকভাবে একটি ড্রাম দিয়ে পাইপ বসানো হয়। সেই পাইপ লাইন থেকে আমরা এখন রান্নার কাজ করছি। এর আগে ৫/৬ বছর আগে এই মৎস ঘের থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু ওঠানোর জন্য পাইপ বসালে তখন গ্যাসের সন্ধান পেলে বালি ওঠানোর কাজ আমরা বন্ধ করে দেই। এখন দেখি সেখান থেকে আবারও গ্যাস উঠতেছে। স্থানীয় ইউপি সদস্য উকিল উদ্দিন ইজারাদার জানান, প্রায় ৫/৬ বছর আগে এখান থেকে একবার গ্যাস ওঠে। কিন্তু তখন এ নিয়ে আর কোনো তদন্ত হয়নি। কী পরিমাণ গ্যাস আছে তা আমরা বলতে পারছি না। দ্রুত সরকারের ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। না হলে যে কোন সময় বড় ধরণের ক্ষতি হতে পারে।
কুড়িগ্রামে চর রাজীবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান গ্রেফতার
কুড়িগ্রাম উপজেলা সংবাদদাতা : চেক জালিয়াতি মামলায় গ্রেফতার হয়েছে কুড়িগ্রামের চর রাজীবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান আকবর হোসেন হিরো। গত শুক্রবার রাতে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। শনিবার সকালে তাকে কুড়িগ্রাম কোর্টে সোপর্দ করা হয়। চর রাজীবপুর থানার ওসি জানান, জামালপুর জেলার বকসীগঞ্জ এলাকার জনৈক রাজন মিয়ার মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানামুলে চেয়ারম্যান হিরোকে গ্রেফতার করা হয়। রাজন মিয়ার অভিযোগ, তিনি চেয়ারম্যানের কাছে ব্যবসা সংক্রান্ত ১২লাখ টাকা পান। পাওনা টাকা পরিশোধের জন্য তাকে চেয়ারম্যান যে চেকটি দিয়েছিলেন সেই একাউন্টে টাকা ছিল না।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ