Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯, ১০ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

আমেরিকার গর্ভপাত ক্লিনিকে গোপনীয়তা রক্ষায় বড় পদক্ষেপ গুগলের

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২ জুলাই, ২০২২, ১০:০৭ পিএম

গত সপ্তাহেই গর্ভপাতকে (Abortion) নিষিদ্ধ ঘোষণা করে রায় দিয়েছে মার্কিন সুপ্রিম কোর্ট (USA Supreme Court)। যার ফলে পাঁচ দশকের পুরনো আইনে এসেছে ঐতিহাসিক বদল। এই রায় নিয়ে আলোচনা চলছে সারা বিশ্বেই।

এ পরিস্থিতিতে এবার বিশ্বের পয়লা নম্বর সার্চ ইঞ্জিন গুগল (Google) এক নতুন ঘোষণা করল। সেই ঘোষণায় জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, গর্ভপাতের ক্লিনিকের মতো স্থানে কোনও ইউজার গেলে তাঁর ব্যক্তিগত গোপনীয়তাকে মান্যতা দেবে গুগল। সেক্ষেত্রে সেই ইউজারের লোকেশন হিস্ট্রি ডিলিট করে দেওয়া হবে।

গুগল কর্তা জেন ফিটজপ্যাট্রিক একটি ব্লগে এই প্রসঙ্গে লিখেছেন, ”যদি গুগল সিস্টেম জানতে পারে কোনও ব্যক্তি গর্ভপাতের ক্লিনিকে গিয়েছেন, তাহলে লোকেশন ও হিস্ট্রি ডিলিট করে দেবে।” সেই সঙ্গে তিনি এও জানিয়েছেন, গুগল কোনও প্রজনন কেন্দ্র, ওজন কমানোর ক্লিনিকের মতো স্থানে কোনও ইউজার গেলে সেই ডেটা সংরক্ষণ করে না।

গর্ভপাত নিয়ে ২৪ জুন প্রায় পাঁচ দশক পুরনো গর্ভপাত সংক্রান্ত আইন বাতিল করে দেয় আমেরিকার সুপ্রিম কোর্ট। আদালত সাফ জানায়, আমেরিকায় গর্ভপাত সাংবিধানিক অধিকার নয়। ফলে মার্কিন মুলুকে প্রায় লক্ষ লক্ষ মহিলা ‘রাইট টু অ্যাবর্ট’ বা গর্ভপাতের আইনি অধিকার থেকে বঞ্চিত হয়েছেন। তারপরই প্রতিবাদীদের ভিড় বাড়তে থাকে শীর্ষ আদালতের সামনে। শুধু আদালত চত্বর নয়, বিক্ষোভের ঢেউ ছড়িয়ে পড়েছে দেশের নানা প্রান্তেও। সুপ্রিম কোর্টের এই রায় নারী স্বাধীনতার বিরোধী বলে দাবি করেছেন বিক্ষোভকারীরা।

প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন সেলেব্রিটি থেকে আমজনতা। কিন্তু এবার শীর্ষ আদালতের রায়ের বিরোধিতা করছে প্রাদেশিক আদালতগুলি। ফ্লোরিডা সার্কিট কোর্টের বিচারক জন কুপার জানিয়েছেন, গর্ভপাত (USA Abortion Protest) সমর্থনকারী দলগুলির কাছ থেকে পিটিশন চাওয়া হয়েছে। তার উপরে ভিত্তি করেই সাময়িকভাবে গর্ভপাতের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হবে।

তবে গর্ভাবস্থার ১৫ সপ্তাহ কেটে গেলে তবেই গর্ভপাতের অনুমতি দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন জন। কেন্টাকির বিচারপতির তরফে বলা হয়েছে, সাময়িকভাবে গর্ভপাতের উপর থেকে সব ধরনের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হচ্ছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: যুক্তরাষ্ট্র


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ