Inqilab Logo

সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৬ মুহাররম ১৪৪৪

জনগণের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা না করা পর্যন্ত নির্বাচনে যাবে না বিএনপি: গয়েশ্বর চন্দ্র রায়

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩ জুলাই, ২০২২, ৩:১৩ পিএম

জনগণের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা না করা পর্যন্ত বিএনপি কোনো নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে বলে জানিয়েছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।
রোববার (০৩ জুলাই) বাংলাদেশ নারী ও শিশু অধিকার ফোরামের উদ্যোগে বন্যাকবলিত সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলার যাত্রাপুর গ্রামে বন্যাদুর্গতদের নারী ও শিশুদের অর্থ ও ত্রাণ সহায়তা তুলে দেওয়ার আগে সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
নারী ও শিশুদের মাঝে অর্থ সহায়তা তুলে দেওয়ার আগে আরো বক্তব্য রাখেন নারী ও শিশু অধিকার ফোরামের সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট নিপুন রায় চৌধুরী, সদস্য সাবেক এমপি বিলকিস ইসলাম, বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা কলিম উদ্দিন আহমেদ মিলন, জেলার সাধারণ সম্পাদক নুরুল ইসলাম, সহসভাপতি আব্দুল লতিফ জেপি, অ্যাডভোকেট পাবেল চৌধুরীসহ স্থানীয় নেতারা। সবার বক্তব্য শেষে একে একে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি গয়েশ্বর চন্দ্র রায় উপস্থিত নারী ও শিশুদের হাতে অর্থ সহায়তা তুলে দেন।
সুনামগঞ্জবাসীর উদ্দেশ্যে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আমরা দেশে একটি নির্বাচন দেখতে চাই। ২০১৮ সালের নির্বাচনে আপনারা বললেন একজনও ভোট দিতে পারেননি। কারণ, সেদিন দিনের ভোট রাতে হয়েছে। অথচ, ভোট আপনার নাগরিক অধিকার। যেদিন আপনারা ভোট দিতে পারবেন সেদিনই আমরা নির্বাচনে অংশগ্রহন করব। যেদিন আপনাদের ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠা করতে পারব সেদিন আমরা ভোটে অংশগ্রহণ করব।
তিনি আরো বলেন, আমার আপনার নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার গৃহবন্দি, তার অবর্তমানে বিএনপির নেতৃত্ব দিচ্ছেন ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। তিনি বলেছেন টেক ব্যাক বাংলাদেশ। অর্থাৎ বাংলাদেশকে তার নিজের জায়গায় আনতে হবে। জনগনের অধিকার প্রতিষ্ঠিত করতে হবে। মানুষের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তার আগে কোনো নির্বাচন নয়, এই সরকারের অধীনে নয়, এই নির্বাচন কমিশনের অধীনে নয়।
দলের অবস্থান তুলে ধরে গয়েশ্বর বলেন, নিরপেক্ষ সরকারের দাবি যখন আমরা প্রতিষ্ঠিত করতে পারব, দেশের জনগণ যখন ভোট দিতে পারবে সেই নির্বাচনে জনগনের দল হিসেবে বিএনপি অংশগ্রহন করবে। বিএনপি গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে। এই দলের প্রতিষ্ঠাতা সর্বকালের শেষ্ঠ বীরমুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান বহু দলীয় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করে দিয়েছিলেন। তার এই আদর্শের লড়াই চলছে, চলবে।
তিনি বলেন,যতদিন জনগণ আছে, ততোদিন বিএনপি আছে। আমাদের শক্তি হচ্ছেন আপনারা। আমাদের শক্তি ভীন দেশে নেই। আপনারাদের শক্তি দিয়েই এই লুপপাটকারী, নারী, শিশু পাচারকারী, মূদ্রাপাচারকারী সরকারকে গদি থেকে নামিয়ে নিরপেক্ষ সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে অনুষ্ঠিত নির্বাচনের মাধ্যমে দেশে জনগনের সরকার প্রতিষ্ঠা করব। আমাদের চলমান গণতন্ত্র ও ভোটাধিকারের আন্দোলনে আপানারা আমাদের পাশে থাকবেন এই আশা করি।
শাল্লার মানুষের পাশে বিএনপি আছে এবং থাকবে উল্লেখ করে গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, আপনাদের এখানে একটি ঘটনা (হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা হয়েছিল) ঘটেছিল। সেই সময় দলের পক্ষ থেকে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী এবং নারী ও শিশু অধিকার ফোরামের সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট নিপুণ রায় চৌধুরী আপনাদের পাশে দাঁড়িয়েছিল। এরপর কিন্তু নিপুণ রায়কে ৮৩ দিন কারাগারে থাকতে হয়েছে। এরপরও আপনাদের পাশে আছি, ভবিষ্যতেও থাকব। আপনাদের নেতা তারেক রহমানও এই প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। সেই অনুযায়ি বন্যা শুরুর পর থেকে বিএনপির একের পর এক ত্রাণ টিম আসছে। এই অঞ্চলে আজ রবিবারও বিএনপির দশটি টিম ত্রাণ কাজ করছে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গয়েশ্বর


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ