Inqilab Logo

রোববার, ১৪ আগস্ট ২০২২, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৫ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

বাসে ধর্ষণচেষ্টার মামলা, চট্টগ্রাম থেকে এমরান গ্রেপ্তার

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ জুলাই, ২০২২, ৫:৫২ পিএম

বাসে ধর্ষণচেষ্টা মামলায় এমরান হোসেন নামে এক আসামিকে গ্রেপ্তারের পর কারাগারে পাঠানো হয়েছে। রোববার (৩ জুলাই) দুপুর ২টার দিকে লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে শনিবার (২ জুলাই) রাত ১টার দিকে চট্টগ্রামের ডাবলমুরিং থানা এলাকার একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তাকে।

গ্রেপ্তার এমরান রামগঞ্জ পৌরসভার কাজীরখীল গ্রামের আখন্দ বাড়ির বেলাল হোসেনের ছেলে। পুলিশ জানায়, গত ৩ জুন চাটখিল থেকে নোয়াখালীর পরিবর্তে এক গৃহবধূ ভুলে রামগঞ্জগামী জননী পরিবহণে ওঠেন। রামগঞ্জ বাসটার্মিনালে আসলে তিনি বাসের সুপার ভাইজারকে বিষয়টি বলেন। পরে সুপারভাইজার তাকে চট্টগ্রামগামী নীলাচল বাসে বসতে বলেন। এ সুযোগে বাসের সহকারী আজাদ হোসেন ও এমরান হোসেনসহ ৩ জন ওই গৃহবধূকে ধর্ষণের চেষ্টা করেন।

এ সময় তার চিৎকারে বাজারের নৈশপ্রহরী মো. শাহজাহান ছুটে আসলে আজাদ ছাড়া অন্য দুইজন পালিয়ে যান। এক পর্যায়ে আশপাশের লোকজনও এগিয়ে আসে। হঠাৎ নৈশপ্রহরী শাহজাহানের বুকে ব্যাথা উঠলে হাসপাতাল নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বাসের সহকারী আজাদকে আটক করে। পরে গৃহবধূ বাদী হয়ে আজাদ ও এমরানসহ ৩ জনের নামে রামগঞ্জ থানায় ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় মামলা দায়ের করেন। পরদিন আজাদকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

এদিকে প্রায় ১ মাস পলাতক থাকার পর গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রামগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) দিবাকর রায়সহ পুলিশ সদস্যারা চট্টগ্রামের ডাবলমুরিং থানা এলাকায় অভিযানে যান। সেখানে একটি নির্মাণাধীন ভবন থেকে এমরানকে গ্রেপ্তার করা হয়। রামগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদুল হক বলেন, আসামি এমরান দীর্ঘদিন পলাতক ছিলেন। তাকে গ্রেপ্তার করে দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামিকে গ্রেপ্তারে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ