Inqilab Logo

সোমবার, ০৮ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯, ০৯ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

লিসিচানস্ক শহরের পতন, অবশেষে মুক্ত হলো সমগ্র লুহানস্ক

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৩ জুলাই, ২০২২, ৭:৫৪ পিএম | আপডেট : ৯:২৪ পিএম, ৩ জুলাই, ২০২২

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রী সের্গেই শোইগু লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিক (এলপিআর) এর মুক্তির বিষয়ে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে রিপোর্ট করেছেন, রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় রোববার ঘোষণা করেছে।

‘৩ জুলাই, ২০২২-এ, রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রী, সেনাবাহিনীর জেনারেল সের্গেই শোইগু লুহানস্ক গণপ্রজাতন্ত্রের মুক্তির বিষয়ে রাশিয়ান সশস্ত্র বাহিনীর সুপ্রিম কমান্ডার-ইন-চিফ ভ্লাদিমির পুতিনকে রিপোর্ট করেছেন,’ মন্ত্রণালয় বলেছে। মন্ত্রণালয় যোগ করেছে যে, রাশিয়ান সশস্ত্র বাহিনী এবং এলপিআরের পিপলস মিলিশিয়া লিসিচানস্ক এবং আশেপাশের বেশ কয়েকটি বসতিগুলির উপর সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করেছে, যার মধ্যে সবচেয়ে বড় হল বেলোগোরোভকা, নভোদ্রুজেস্ক, ম্যালোরিয়াজান্তসেভো এবং বেলায়া গোরা।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জোর দিয়ে বলেছে, ‘গত ২৪ ঘন্টায় মুক্ত করা অঞ্চলগুলির মোট এলাকা ১৮২ বর্গ কিলোমিটারে পৌঁছেছে।’ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, লিসিচানস্ক পতনের মধ্যে দিয়ে ‘লুহানস্ক গণপ্রজাতন্ত্রের মুক্তি’ সম্বপূর্ণ হয়েছে, ইউক্রেনের দুটি বিচ্ছিন্নতাবাদী অঞ্চলের মধ্যে একটি যেটিকে রাশিয়া সার্বভৌম হিসাবে স্বীকৃতি দেয়।

ইউক্রেনীয় যোদ্ধারা লিসিচানস্ককে রক্ষা করার জন্য এবং এটিকে রাশিয়ার কাছে পতন থেকে রক্ষা করার জন্য সপ্তাহ কাটিয়েছে, যেমনটি এক সপ্তাহ আগে প্রতিবেশী সিভিয়েরোডোনেটস্ক করেছিল। প্রেসিডেন্টের একজন উপদেষ্টা শনিবারের শেষের দিকে ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন যে কয়েক দিনের মধ্যে শহরের ভাগ্য নির্ধারণ করা যেতে পারে। ইউক্রেনের কর্মকর্তারা তাৎক্ষণিকভাবে এ বিষয়ে সম্পর্কে কোনো মন্তব্য করেননি।

লুহানস্ক এবং প্রতিবেশী ডনেৎস্ক হল দুটি প্রদেশ যাকে একসাথে ডনবাস বলা হয়। রাশিয়াপন্থী বিচ্ছিন্নতাবাদীরা ২০১৪ সাল থেকে উভয় পূর্ব প্রদেশের অংশ দখল করে আছে এবং মস্কো সমস্ত লুহানস্ক এবং ডোনেৎস্ককে সার্বভৌম প্রজাতন্ত্র হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। সিরিয়ার সরকার বুধবার বলেছে যে, তারা দুটি এলাকার ‘স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব’ স্বীকৃতি দেবে। লিসিচানস্কের দখল রাশিয়ানদের পশ্চিমে ডোনেৎস্ক প্রদেশে যাওয়ার পথ খুলে দেবে। সূত্র: তাস, এপি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন