Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯, ১০ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

তালতলীতে অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ

বরগুনা জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৪ জুলাই, ২০২২, ১২:০২ এএম

বরগুনার তালতলী উপজেলার ছোটবগী ইউনিয়নের গাবতলী আবাসনে ধর্ষণের শিকার হয়েছে পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূ। গত শনিবার রাত ৯টার দিকে ঘরে ঢুকে ধর্ষণ ও মারধর করেছে একই গ্রামের প্রভাবশালী প্রতিবেশী আকাব্বার কাজীর ছেলে বারেক কাজী। পরে গৃহবধূর মা টের পেয়ে বাইর থেকে দরজা তলা বন্ধ করে রেখে চিৎকার দিলে স্থানীয় ইউপি সদস্য জাহিদ মোল্লা তালা ভেঙে লোকজন নিয়ে ধর্ষক বারেক কাজীকে নিয়ে যায়। এ সময় স্থানীয়রা ৯৯৯ ফোন করলে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে গৃহবধূকে উদ্ধার করে বরগুনা জেলা সদর হাসপাতাল চিকিৎসার জন্য পাঠায়।
গৃহবধূর মা বলেন, আমার মেয়ে পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা থাকায় আমাদের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। বিয়ের আগ থেকেই বারেক কাজী আমার মেয়েকে বিরক্ত করে আসছে। বিয়ের পরে যখন মেয়ে বাড়িতে আসে তখনও কুপ্রস্তাব দেয় বারেক। গত শনিবার রাতে আমি ঘর থেকে বাহিরে বের হলে সুযোগ বুঝে বারেক কাজী ঘরে প্রবেশ করে এবং আমার মেয়ের মুখ চেপে ধর্ষণ করে। আমি বাহির থেকে দরজা তালা বন্ধ করে আশপাশের লোকজন ডাকলে ইউপি সদস্য জাহিদ মোল্লা লোকজন নিয়ে এসে তালা ভেঙে মেয়েকে এলোপাথাড়ি মারধর করে বারেক গাজীকে ঘর থেকে বের করে নিয়ে যায়। পরে ৯৯৯ এ ফোন দিলে পুলিশ এসে আমার মেয়েকে উদ্ধার করে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানোর জন্য খেয়াঘাট পর্যন্ত আগিয়ে দিয়ে যায়। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই। ধর্ষিত গৃহবধূ বর্তমানে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তালতলী থানার ওসি সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, রাতে ৯৯৯ ফোন পেয়ে থানা থেকে পুলিশ গিয়েছিল এবং ভিকটিমকে চিকিৎসার জন্য বরগুনা হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
গত​ ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ