Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ০১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ মুহাররম ১৪৪৪

সস্ত্রীক হেনোলাক্সের মালিক গ্রেফতার

প্রেসক্লাবে শরীরে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা দোষীদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে : হানিফ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ জুলাই, ২০২২, ১২:০০ এএম

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও ব্যবসায়ী গাজী আনিসকে আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় আমিন ম্যানুফাকচারিং কোম্পানির (হেনোলাক্স গ্রুপ) মালিক নুরুল আমিন এবং তার স্ত্রী ফাতেমা আমিনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গত মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর উত্তরা এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। অন্যদিকে গাজী আনিসুর রহমানের আত্মহত্যার ঘটনায় হেনোলাক্স গ্রুপের মালিক নূরুল আমিন ও তার স্ত্রী ফাতেমা আমিনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর শাহবাগ থানায় আত্মহত্যা প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগে মামলাটি করেন গাজী আনিসের বড় ভাই গাজী নজরুল ইসলাম। সোমবার বিকালে প্রেসক্লাবের ভেতরে ব্যাটমিন্টন খেলার মাঠে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও ব্যবসায়ী গাজী আনিসুর রহমান আনিস নিজের গায়ে আগুন দেন। এতে তিনি গুরুতর দগ্ধ হন। পরে তাকে ঢাকার শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ইনস্টিটিউটে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার ভোর ৬টা ১০ মিনিটে তার মৃত্যু হয়।

শাহবাগ থানার এসআই গোলাম হোসেন খাঁন বলেন, মামলায় আত্মহত্যায় প্ররোচনার অভিযোগ আনা হয়েছে। কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পান্টি গ্রামের বাসিন্দা গাজী আনিসুর রহমান ছয় ভাইয়ের মধ্যে তৃতীয়। আনিস তিন কন্যা সন্তানের জনক। ঠিকাদারি ব্যবসার পাশাপাশি সাহিত্যকর্মী হিসেবেও তার পরিচিতি ছিল।
হেনোলাক্স গ্রুপ থেকে টাকা ফেরত না পাওয়ার বিষয়ে গত ৩১ মে জাতীয় প্রেসক্লাবে গাজী আনিস সংবাদ সম্মেলন করেছিলেন। তিনি অভিযোগ করেছিলেন, ব্যবসায়িক অংশীদার বানানোর লোভ দেখিয়ে তার কাছ থেকে ১ কোটি ২৬ লাখ টাকা নেয় হেনোলাক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন ও তার স্ত্রী কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ফাতেমা আমিন।
গাজী আনিস বলেছিলেন, ২০১৬ সালে পরিচয়ের পর একপর্যায়ে হেনোলাক্স গ্রুপের সঙ্গে ব্যবসায়িক পার্টনারশিপের সিদ্ধান্ত হয়। চুক্তি অনুযায়ী কাজী আনিস ব্যবসায় ১ কোটি ২৬ লাখ টাকা বিনিয়োগ করেন। ২০২০ সালের ডিসেম্বরে লভ্যাংশসহ ৩ কোটি টাকা তাকে দেয়ার কথা। কয়েক দফায় লাভের অংশ থেকে ৭৪ লাখ টাকা দিলেও অবশিষ্ট ২ কোটি ২৬ লাখ (লাভসহ) টাকা ফেরত দেয়নি। এ নিয়ে তিনি কুষ্টিয়ার আদালতে দুটি মামলাও করেছেন।
গাজী আনিসের বড় ভাই গাজী নজরুল ইসলাম বলেন, আমার ভাই হেনালোক্স গ্রুপকে ১ কোটি ২৬ লাখ টাকা পাবে। ব্যবসায়িক অংশিদার করার লোভ দেখিয়ে তার কাছ থেকে ওই টাকা নেয়া হয়েছিল। পরে হেনোলাক্স গ্রুপ সেই টাকা ফেরত না দেয়ায় তিনি হতাশাগ্রস্ত ছিল।
ব্যবস্থা নেয়া হবে -হানিফ : আনিসুর রহমানের মৃত্যুর ঘটনায় দোষীদের আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ। গতকাল শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে গিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।
তিনি বলেন, তার যে সমস্যা তা স্থানীয় সংসদ সদস্য (এমপি), চেয়ারম্যানের সঙ্গে শেয়ার করেননি। বিষয়টি জানলে আমরা অবশ্যই একটা ব্যবস্থা নেয়া হতো। এ মৃত্যুর পেছনে যারা দায়ী, তাদের নামে মামলা করে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ছাত্রলীগ


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ