Inqilab Logo

শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

নতুন ইংল্যান্ডের রেকর্ডে উড়ে গেল ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৬ জুলাই, ২০২২, ১২:০০ এএম

ম্যাচের প্রথম তিন দিনে পরিষ্কার দাপট দেখিয়েছে ভারত। তাতে লক্ষ্যটাও দেয় বিশাল। জিততে হলে রান তাড়ায় নিজেদের নতুন রেকর্ড করতে হতো ইংল্যান্ডকে। শেষ পর্যন্ত তাই করে দেখাল দলটি। সাবেক অধিনায়ক জো রুট ও দারুণ ছন্দে থাকা ব্যাটার জনি বেয়ারস্টোর সেঞ্চুরিতে রেকর্ড লক্ষ্যও হয়ে গেল মামুলী। অসাধারণ এক জয়ে সিরিজ ‘শেষ’ হলো ইংলিশদের। নতুন মৌসুমের সফরে এসে যে ২০২১ সালের অসমাপ্ত সিরিজের দেনা শোধ করল ভারত!
গতকাল বার্মিংহ্যামের এজবাস্টনে সিরিজের শেষ টেস্টের পঞ্চম ও শেষ দিনে এসে ৩৭৮ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ভারতকে ৭ উইকেটে হারিয়েছে ইংল্যান্ড। প্রথম ইনিংসে তারা করেছিল ২৮৪ রান। ভারত তাদের দুই ইনিংসে করে যথাক্রমে ৪১৬ ও ২৪৫ রান। ৫ মাচের সিরিজটি ড্র হলো ২-২ ব্যবধানে।
মূলত নিউজিল্যান্ড সিরিজ থেকেই বদলে যায় ইংলিশরা। নতুন অধিনায়ক ও নতুন কোচ যেন কাজ করে টনিকের মতো। কিউইদের হাতের মুঠো থেকে টানা তিনটি টেস্ট নিয়ে আসে দলটি। তিন ম্যাচেই আড়াইশর উপরে রান তাড়া করে জয়। এবার ভারতের বিপক্ষে তো নতুন রেকর্ডই গড়ল তারা। এর আগে ১৯৭৮ সালে হেডিংলিতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৩৫৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করে জিতেছিল ইংল্যান্ড। এতো দিন এটাই ছিল তাদের রেকর্ড। রান তাড়া করে সবচেয়ে বড় জয় পাওয়ার রেকর্ডটা অবশ্য ক্যারিবিয়ানদের। ২০০৩ সালে অ্যান্টিগা টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৪১৮ রান তাড়া করে জিতেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। রেকর্ড হয়েছে ভারতের ক্ষেত্রেও। এর আগে ১৯৭৭ সালে তাদের বিপক্ষে ৩৩৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করে জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া। ভারতের বিপক্ষে রান তাড়া সবচেয়ে বড় জয় ছিল এটাই। এদিন এই রেকর্ডটাও নিজেদের করে নিল ইংল্যান্ড।
অবশ্য জয়ের ভিতটা আগের দিনই গড়ে রেখেছিল ইংল্যান্ড। জো রুট ও জনি বেয়ারস্টোর অসাধারণ এক জুটিতে চতুর্থ দিন শেষেই ৩ উইকেটে করে ২৫৯ রান। অথচ লক্ষ্যটা ছিল ৩৭৮ রানের। এর চেয়ে বেশি লক্ষ্য তাড়া করে জয়ের রেকর্ড টেস্ট ইতিহাসেই ছিল মাত্র সাতটি। এমন লক্ষ্যও বাধা হতে পারেনি রুট-বেয়ারস্টোর ব্যাটে।
গতকাল শেষ দিনে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১১৯ রানের। হাতে উইকেট ছিল ৭টি। দুই অপরাজিত ব্যাটার রুট ও বেয়ারস্টো আগের দিনই দেড়শ রানের জুটি গড়ে অবি”িছন্ন ছিলেন। সেই জুটি শেষ পর্যন্ত অবি”িছন্নই রইল। ২৬৯ রানের জুটি গড়েন তারা। এদিন ১৯.৪ ওভার ব্যাট করেই লক্ষ্যে পৌঁছায় দলটি। ব্যাটিংয়ে নেমে নিজের সেঞ্চুরি তুলে নিতে খুব বেশি সময় নেননি রুট। টেস্ট ক্যারিয়ারের ২৮তম সেঞ্চুরি তুলে খেলেন হার না মানা ১৪২ রানের ইনিংস। ১৭৩ বলে ১৯টি চার ও ১টি ছক্কায় এ রান করেন। সেঞ্চুরি তুলে নেন বেয়ারস্টোও। ১৪৫ বলে ১১৪ রানের ইনিংস খেলেন ১৫টি চার ও ১টি ছক্কায় এ রান করেন তিনি। প্রথম ইনিংসেও খেলেছিলেন ১০৬ রানের ইনিংস।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন