Inqilab Logo

শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

আদালতে জিতুর স্বীকারোক্তি

শিক্ষক হত্যা

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৮ জুলাই, ২০২২, ১২:০২ এএম

আশুলিয়ায় শিক্ষককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনার প্রধান আসামি আশরাফুল ইসলাম জিতু আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে। গতকাল বুধবার ঢাকা চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের বিচারক রাজিব হাসান আসামির জবানবন্দি শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও আশুলিয়া থানার এসআই এমদাদুল হক বলেন, গত ২৫ জুন আশুলিয়ার চিত্রশাইল এলাকায় হাজী ইউনুছ আলী কলেজের মাঠে শিক্ষক উৎপল কুমার সরকারকে স্ট্যাম্প দিয়ে পিটিয়ে জখম করে দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আশরাফুল ইসলাম জিতু। ঘটনার পর থেকে পলাতক ছিল জিতু ও তার বাবা উজ্জ্বল হোসেন। গত ৯ জুন ভোরে কুষ্টিয়ার কুমারখালি থেকে জিতুর বাবা উজ্জ্বলকে আটক করা হয়। পরে হত্যা মামলায় তাকেও ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠালে আদালত তার ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রিমান্ড শেষে মঙ্গলবার তিনি আদালতে জবানবন্দি দেন। একই দিন রাতে গাজীপুর থেকে জিতুকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। পরে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে আদালতে পাঠানো হলে ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন বিচারক। এরপর বুধবার রিমান্ড শেষে আসামি জিতুকে আদালতে পাঠানো হয়। পরে বিজ্ঞ আদালতে শিক্ষক উৎপল কুমারকে হত্যার দ্বায় স্বীকার করে জবানবন্দি দেন জিতু। পরে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
গত ২৫ জুন দুপুরে আশুলিয়ার চিত্রশাইল এলাকায় হাজী ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের মাঠে ওই শিক্ষকের ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে μিকেটের স্টাম্প দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে একই প্রতিষ্ঠানের দশম শ্রেণির ছাত্র জিতু। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৭ জুন ভোরে শিক্ষক উৎপল কুমার সরকার মারা যান। গত ২৬ জুন আশুলিয়া থানায় নিহত শিক্ষকের ভাই অসীম কুমার সরকার বাদী হয়ে জিতুসহ অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন