Inqilab Logo

শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

রাজশাহীতে সনি হত্যা মামলার আরও দুই আসামী গ্রেফতার

রাজশাহী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ৭ জুলাই, ২০২২, ৭:৩৩ পিএম

রাজশাহী মহানগরীর স্কুলছাত্র মো. সনি (১৭) হত্যা মামলার আরও দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে অভিযান চালিয়ে র‌্যাব-৫ এর রাজশাহীর একটি দল তাদের গ্রেপ্তার করে।
গ্রেপ্তার দুজন হলো- মামলার ২ নম্বর আসামি রাজশাহী নগরীর হেতেমখাঁ এলাকার মৃত সোহেলের ছেলে মো. রাহিম (১৯) ও ৪ নম্বর আসামি একই এলাকার শফিকের ছেলে মো. শাহী (১৯)। রাহিমকে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ এবং শাহীকে ঢাকার শ্যামলী এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।
বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, র‌্যাব এ মামলার ছায়া তদন্ত করছিল। পলাতক আসামিদের গ্রেপ্তারেরও চেষ্টা করা হচ্ছিল। তিনটি অভিযান চালানোর পর প্রথমে বুধবার রাতে শাহীকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাহিমকে গ্রেপ্তার করা হয়।
র‌্যাব জানায়, আসামিরা হত্যাকান্ডের পর সীমান্ত অতিক্রম করার চেষ্টা করছিল। তা না পেরে আত্মগোপনের জন্য ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে চলে যান। আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপরতার কারণে তারা ভেঙ্গে ভেঙ্গে রাজশাহী থেকে নাটোর, সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল ও ঢাকা জেলা অতিক্রম করে নারায়ণগঞ্জে আশ্রয় গ্রহণ করে। গ্রেপ্তারের পর দুজন এ হত্যকান্ডে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন। পরে তাদের থানা পুলিশে হস্তান্তর করা হয়।
এর আগে গত ৩ জুলাই রাত ৯টার দিকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সামনে থেকে সনি ও তার বন্ধু তৈয়বুরকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। নগরীর হেতেমখাঁ সবজিপাড়া মহল্লায় নিয়ে গিয়ে দুজনকে কোপানো হয়। এতে সনির মৃত্যু হয়।
সনি এ বছরের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছিল। তার বাবা রফিকুল ইসলাম পাখি জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি। নগরীর দড়িখড়বোনা-রেলগেট এলাকার বাসিন্দা তিনি। ছেলে খুনের ঘটনায় তিনি নয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। এরমধ্যে পুলিশ মো. আনিম ওরফে আনিন ইসলাম (২২) নামের একজনকে গ্রেপ্তার করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: গ্রেফতার


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ