Inqilab Logo

শনিবার, ২০ আগস্ট ২০২২, ০৫ ভাদ্র ১৪২৯, ২১ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

সাভার-চন্দ্রা-বাইপাইল সড়কে তীব্র যানজট

অনলাইন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৭ জুলাই, ২০২২, ১০:৩৫ পিএম

শেকড়ের টানে বাড়ি ফিরছে মানুষ। এতে চাপ পড়েছে বিভিন্ন মহাসড়কে। পরিবহনের চাপ বাড়ায় সাভার ও আশপাশের তিনটি সড়ক-মহাসড়কে প্রায় ৩৩ কিলোমিটারজুড়ে যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। ২০ মিনিটের পথ পাড়ি দিতে লেগে যাচ্ছে ২-৩ ঘণ্টা। এতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে ঘরমুখো যাত্রীদের।

বৃহস্পতিবার (৭ জুলাই) রাত সাড়ে ৮টার দিকে দেখা যায় সাভারের নবীনগর থেকে গাজীপুরের চন্দ্রা পর্যন্ত প্রায় ১৬ কিলোমিটার, টঙ্গী-আশুলিয়া-ইপিজেড সড়কের বাইপাইল থেকে ধউর পর্যন্ত ১৩ কিলোমিটার এবং ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের নবীনগর থেকে প্রান্তিক গেট পর্যন্ত ৫ কিলোমিটার এলাকায় যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

কোথাও পরিবহনগুলো একদম থেমে আছে, কোথাও একটু একটু করে চলছে। তবে চলার গতি এতই মন্থর যে ১০ মিনিটে হয়ত কোনো গাড়ি ১০ মিটার পথ এগোতে পারছে।

বাইপাইল থেকে রংপুরের উদ্দেশ্যে বাসে উঠেছেন এক পোশাক শ্রমিক। তিনি বলেন, বাইপাইলে সন্ধ্যা ৬টার দিকে গাড়িতে উঠেছি। শ্রীপুর পৌঁছাতে দুই ঘণ্টা লেগেছে। স্বাভাবিক সময়ে এটি ছিল ৫ মিনিটের পথ। শুনছি যানজট চন্দ্রা মোড় পার হয়ে আরও সামনের দিকে চলে গেছে। মনে হচ্ছে চন্দ্রা পার হতে রাত ১টা বেজে যাবে।

আরেক বাসের যাত্রী সুফিয়ান বলেন, সন্ধ্যা থেকে একই জায়গায় বসে আছি। অতিষ্ঠ হয়ে গেছি, যেমন গরম, তেমনি যানজট। শাখা সড়কগুলোতেও এর প্রভাব পড়েছে। আমরা চরম ভোগান্তিতে পড়েছি। জানতাম যানজট হবেই, তাই আগে ভাগে বের হয়েছি। তবু রক্ষা হলো না। এখন ঈদের আগে বাড়ি পৌঁছতে পারলেই হলো!

রিজার্ভ গাড়ি নিয়ে রাজশাহী যাচ্ছে একটি পরিবার। চালক শাহজালাল বলেন, আমরা লোকাল গাড়ি ঢাকায় চালাই। যানজটে বসে থাকার অভ্যাস আছে। কিন্তু যাত্রীরা অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন। আশুলিয়া থেকে বাইপাইল এলাম ৩ ঘণ্টায়। এই যানজট ভোর পর্যন্ত গড়াতে পারে। যানজটে আটকা পড়েছে অনেক গাড়ি। এখন তো মনে হচ্ছে চন্দ্রা যেতে ৫ ঘণ্টা সময় লাগবে। যাই হোক দ্রুত যানজট নিরসন হোক এটাই কামনা করি।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ