Inqilab Logo

ঢাকা শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর ২০২০, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ১১ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী
শিরোনাম

সেরা আয়োজনে বাংলাদেশকে আইসিসি’র ধন্যবাদ

অস্ট্রেলিয়ার দল প্রত্যাহারে হতাশ আইসিসি ০ মিরাজে মুগ্ধ জহির আব্বাস

প্রকাশের সময় : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১২:০০ এএম

অস্ট্রেলিয়ার দল প্রত্যাহারে হতাশ আইসিসি ০ মিরাজে মুগ্ধ জহির আব্বাসবিশেষ সংবাদদাতা : সব শংকা পেছনে ফেলে ১৬ দেশের অংশগ্রহণে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেট সফলভাবে সম্পন্ন হওয়ায় সেরা আসরের স্বীকৃতি দিয়ে স্বাগতিক বাংলাদেশকে ধন্যবাদ দিয়েছে বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বোচ্চ শাসক সংস্থা আইসিসি। গতকাল রাজধানীর একটি অভিজাত হোটেলে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে আইসিসি’র সভাপতি জহির আব্বাস সে সার্টিফিকেটই দিয়ে গেছেন বাংলাদেশকেÑ‘স্বাগতিক হিসেবে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের এবারের আসর যতটা দক্ষ হাতে সম্পন্ন করেছে তা সত্যিই প্রশংসার দাবিদার।’
আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন আসরের আয়োজন, ব্যবস্থাপনা এবং ভেন্যুসমুহের প্রস্তুতিতে সন্তুষ্ট হয়ে বিসিবিকে দিয়েছেন ধন্যবাদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি প্রকাশ করেছেন কৃতজ্ঞতাÑ ‘অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের এমন আয়োজন আমি খুব কমই দেখেছি। আমার দেখা অনেকগুলো সফল বিশ্বকাপের মধ্যে এটি একটি। আর বাংলাদেশ দারুণ সফলতার সঙ্গে টুর্নামেন্টটি আয়োজন করতে পারায় আমি দেশটির সরকার প্রধান ও ক্রিকেট বোর্ডকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমি বিসিবিকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি এমন সফল আয়োজনের জন্য। বড়দের বিশ্বকাপ না হলেও লজিস্টিকস, ব্যবস্থাপনামূলক কাজের দিক থেকে এ আয়োজন অনেকটাই বড়দের বিশ্বকাপের মতোই ছিল। ১৬টি দলকে নিয়ে ম্যাচ সংখ্যা ৪৮, অনেক বড় টুর্নামেন্ট। শুধু বিসিবি নয়, ভেন্যু ও অনুশীলন ম্যাচের ভেন্যুগুলোও দারুণ ছিল। আমি কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী, সরকার ও সকল নিরাপত্তা সংস্থা, বিসিবির নিরাপত্তা কর্মকর্তাকে যারা সবাই আইসিসির সঙ্গে কাজ করেছে টুর্নামেন্টের নিরাপত্তা, শৃঙ্খলা বজায় রাখতে সচেষ্ট ছিলেন।’ স্বাগতিক বাংলাদেশের প্রশংসার পাশাপাশি যুব বিশ্বকাপের এই আসরে আসর সেরা মেহেদী হাসান মিরাজকেও অভিনন্দিত করেছেন আইসিসি সভাপতিÑ‘শেষ পর্যন্ত ফাইনালে উঠতে না পারলেও এবারের যুব বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দারুণ খেলেছে। এই দলে বেশ কিছু মেধাবী ক্রিকেটার রয়েছে, যারা ভবিষ্যতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে উজ্জ্বলতা ছড়াবে বলে আমার বিশ্বাস। একজন সাবেক ক্রিকেটার হিসেবে আমি বলব, মিরাজ খুবই প্রতিভাবান ক্রিকেটার। তাকে সঠিকভাবে পরিচর্যা করে জাতীয় দলের জন্য গড়ে তুলতে হবে। তাহলে সে একদিন ভালো কিছু করতে পারবে।’ উইন্ডিজ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের পেস বোলারদেরও বোলিংয়েরও প্রশংসা করেছেন তিনি।
নিরাপত্তা শংকার অজুহাত তুলে টুর্নামেন্ট শুরুর প্রাক্কালে অস্ট্রেলিয়া অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে আসর থেকে সে দেশের প্রত্যাহার করায় বিস্ময় প্রকাশ করলেও এখানে আইসিসি যে নিরুপায়, সে অবস্থানের কথাও পরিস্কার করেছেন আইসিসি’র প্রধান নির্বাহী ডেভ রিচার্ডসন বলেনÑ‘এটা মূলত: চুক্তিগত ব্যাপার। এর কারণে কোনো পক্ষের কোনো ক্ষতি হচ্ছে কিনা, সেটা এখনও খতিয়ে দেখার ব্যাপার। তাছাড়া আমরা কোনো দেশকে অংশগ্রহণে জোর করতে পারি না। এখানে চুক্তিভঙ্গের ঝুঁকি থাকতে পারে। কিন্তু সিদ্ধান্তটা একান্ত তাদেরই।’ যেখানে অস্ট্রেলিয়া ফুটবল দলের নিরাপত্তার অজুহাত আমলে আনেনি বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ শাসক সংস্থা ফিফা, বিশ্বকাপ ফুটবল বাছাইপর্বে বাংলাদেশে আসতে অস্ট্রেলিয়া ফুটবল দলকে বাধ্য করেছে, সেখানে সর্বোচ্চ নিরাপত্তার আশ্বাস সরকারের পক্ষ থেকে পাবার পরও অস্ট্রেলিয়া অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে টুর্নামেন্ট থেকে নাম প্রত্যাহার প্রকারান্তরে আইসিসি’র নতজানু ক্রিকেট কুটনীতির সপক্ষেই বলবে কথা। তবে অস্ট্রেলিয়া দল প্রত্যাহার করে নেয়ার পরও পূর্ণ নিরাপত্তায় বাংলাদেশে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ সম্পন্ন হওয়ায় ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া এবং অস্ট্রেলিয়া সরকারকে যে দাঁতভাঙ্গা জবাব দিতে পেরেছে আইসিসি, তা মনে করছেন ডেভ রিচার্ডসনÑ “নিরাপত্তার অজুহাতে অস্ট্রেলিয়ার অংশগ্রহণ না করাটা ছিল সত্যিই হতাশার। তবে অস্ট্রেলিয়া নাম প্রত্যাহার করে নেওয়ার পরও টুর্নামেন্ট চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, এতেই আমরা সন্তুষ্ট। ফলাফলই বলে দিচ্ছে আমাদের সিদ্ধান্ত যথার্থ ছিল। এখন আমরা ভারতে টি-২০ বিশ্বকাপের দিকে তাকিয়ে। কোনো সন্দেহ নেই সেখানেও নিরাপত্তার চ্যালেঞ্জ থাকবে।’
অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে বয়স নির্ধারণ নিয়ে ইস্যু তৈরি হয়েছে। নেপাল অধিনায়ক রাজু রিজালের প্রকৃত বয়স নিয়ে সন্দেহ দেখা দেয়ার পরও অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপে তাকে খেলার বৈধতা দিয়েছে আইসিসি। তবে এই ঘটনায় ভবিষ্যতে প্রকৃত বয়স নির্ধারণে একটা উপায় বের করতে পারা যাবে বলে মনে করছেন আইসিসি’র প্রধান নির্বাহীÑ ‘অতীতেও অনেক বয়সভিত্তিক টুর্নামেন্টে এটি ছিল বেশ জটিল ইস্যু। সমস্যাটা হলো, মেডিকেল বিশেষজ্ঞরাও বলেন, গ্রহণযোগ্য পদ্ধতিতে সত্যিকারের বয়স যাচাই করার ক্ষেত্রে খুব সামান্যই করার আছে! এজন্যই আমরা প্রাপ্য ডকুমেন্ট ও ক্রিকেটারদের সততা ও মূল্যবোধের ওপর ভীষণভাবে নির্ভর করি। ভবিষ্যতে যদি নিখুঁতভাবে বয়স যাচাইয়ের কোনো গ্রহণযোগ্য পদ্ধতি পাওয়া যায়, আমরা অবশ্যই গ্রহণ করব।’এই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন এমপি।



 

Show all comments
  • Mohammad Ashiq ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬, ১০:১৮ এএম says : 0
    অস্ট্রেলিয়ার বৈসম্য মুলুক আচরণ, বুমেরাং হয়ে দেখা দিবে।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: সেরা আয়োজনে বাংলাদেশকে আইসিসি’র ধন্যবাদ
আরও পড়ুন