Inqilab Logo

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ নভেম্বর ২০১৮, ০৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪০ হিজরী

ব্যাগপ্যাকার্সে সারপ্রাইজ গিফট

ইমরান খান | প্রকাশের সময় : ২৯ নভেম্বর, ২০১৬, ১২:০০ এএম

নিজেদের নির্মিত বিজ্ঞাপনের ১৮ সেকেন্ডের একটি টিজার অবমুক্ত করেছে ব্যাগপ্যাকার্স (নধমঢ়ধপশবৎংনফ.পড়স)। এই টিজারের মাধ্যমে একটি প্রশ্ন করা হয়েছে। এই প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিয়ে আগ্রহীরা সারপ্রাইজ গিফট জিতে নিতে পারবেন। এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার রিয়াজ আহমেদ বাবু। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ব্যাগপ্যাকাসের ফেসবুক পেজে (যঃঃঢ়://নরঃ.ষু/২ভউঢছড়ঊ) সম্প্রতি একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। এতে আগ্রহীদের কাছে ১ টি প্রশ্নের উত্তর জানতে চাওয়া হয়েছে। আগামী ৩০ নভেম্বরের মধ্যে এখান থেকে সঠিক উত্তরদাতাদের সারপ্রাইজ গিফট দেওয়া হবে। রিয়াজ আহমেদ বাবু আরো বলেন, আমরা সবসময়ই আমাদের বিজ্ঞাপন বা অন্যান্য কার্যক্রমের মাধ্যমে সমাজের সচেতনতামূলক কাজে অংশ নিই। প্রতিটি বিজ্ঞাপন বা ব্যানারে এক একটি বার্তার মাধ্যমে মানুষকে বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে সচেতন করি। এরই ধারাবাহিকতায় আমাদের এসব কার্যক্রম। ট্রাই নিউ পিকচার্স প্রডাকশন হাউজ থেকে বিজ্ঞাপনটি নির্মাণ করেছেন তৌফিক নেওয়াজ।

হুয়াওয়ের নতুন পাঁচটি গ্রাহকসেবা কেন্দ্র
সিলেট, গাজীপুর, খুলনা, বগুড়া ও রাজধানী ঢাকায় পাঁচটি সেবাকেন্দ্রের উদ্বোধন করলো বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় প্রযুক্তি ও স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে। এ পাঁচটি সেবাকেন্দ্র খোলার মাধ্যমে হুয়াওয়ে দেশজুড়ে এর গ্রাহকদের সর্বোত্তম বিক্রয়ত্তোর সেবা প্রদানের ক্ষেত্রে আরেক ধাপ এগিয়ে গেলো।  গত ১৬ নভেম্বর খুলনা ও বগুড়ায়, ২২ নভেম্বর গাজীপুর ও সিলেটে চারটি সেবাকেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয় এবং রাজধানীর পুরানা পল্টনে সেবাকেন্দ্রটির উদ্বোধন করা হয় গত ২৩ নভেম্বর। পুরানা পল্টনে সেবাকেন্দ্রের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন হুয়াওয়ে টেকনোলজিস বাংলাদেশ লি.-এর ডিভাইস বিজনেসের ডিরেক্টর ইংমার ওয়্যাং।  নতুন সেবাকেন্দ্রের উদ্বোধনকালে ইংমার ওয়্যাং বলেন, নতুন সব জায়গায় নতুন সেবাকেন্দ্রের ঘোষণা দিতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। উচ্চ মানসম্পন্ন স্মার্টফোন ও বিক্রয়োত্তর সেবাদানের কারণে হুয়াওয়ে অত্যন্ত দ্রুতগতিতে বাংলাদেশের মানুষের আস্থা অর্জন করেছে। ক্রমবর্ধমান হুয়াওয়ে ডিভাইস ব্যবহারকারীদের প্রয়োজনীয় ও তাৎক্ষণিক সেবাদানে এ সেবাকেন্দ্রগুলো আমাদের সহায়তা করবে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।