Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ০১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৭ মুহাররম ১৪৪৪
শিরোনাম

জনগণকে জেগে উঠার ডাক মির্জা ফখরুলের

রিজার্ভ নিয়ে মিথ্যাচারের পর ঋণ পেতে জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৭ আগস্ট, ২০২২, ১২:০২ এএম

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার এতোদিন রিজার্ভ নিয়ে মিথ্যাচারের পর এখন ইন্টারন্যাশনাল মনিটারি ফান্ডের (আইএমএফ) কাছে ৪’শ কোটি ডলার ঋণ চেয়েছে। আর এই ঋণ পেতেই জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধি করা হয়েছে। যা এখন জনগণের ওপর মরার ওপর খাড়ার ঘা হিসেবে দেখা দিয়েছে। তিনি বলেন, জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি ভয়ংকর প্রভাব ফেলবে সমগ্র দেশের অর্থনীতির উপরে, এটা বাংলাদেশের মানুষকে ক্ষতিগ্রস্থ করবে। তাই আর সময় নেই। আমাদের সকলকে জেগে উঠতে হবে, এদেরকে (সরকার) পরাজিত করতে হবে। আসুন আমরা সকল ছাত্র ও গণতান্ত্রিক ছাত্র সংগঠনগুলোকে, রাজনৈতিক দলকে আহ্বান জানাই আজকে জাতির প্রয়োজনে, ভবিষ্যতে প্রজন্মের প্রয়োজনে আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই ভয়াবহ, অগণতান্ত্রিক, দানবীয়,কর্তৃত্ববাদী সরকারকে সরিয়ে সত্যিকার অর্থেই একটা জনগণের পার্লামেন্ট ও জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করি।

গতকাল শনিবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে ভোলায় পুলিশের গুলিতে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নুরে আলমের মৃত্যুর প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের উদ্যোগে আয়োজিত ছাত্র সমাবেশে বিএনপি মহাসচিব এসব কথা বলেন। সকাল ৯টা থেকে দুপুর দুইটা পর্যন্ত এই সমাবেশ হয়। সমাবেশে ছাত্রদের ব্যাপক উপস্থিতির কারণে মঞ্চের পাশের সড়কের সকালের দিকে কিছুক্ষণ যান চলাচল করলেও পরে তা বন্ধ হয়ে যায়।
এতে ছাত্রদল মহানগর উত্তর-দক্ষিণ-পূর্ব-পশ্চিম, ঢাকা বিশ্বিবিদ্যালয়, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীনগর বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের শিক্ষার্থীরা ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র মিছিল নিয়ে এই সমাবেশে সমবেত হয়। সকাল সাড়ে ৮টায় থেকে নয়াপল্টনে কার্যালয়ের সামনে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা আসতে শুরু করে। কয়েক ঘন্টার মধ্যে হাজার হাজার নেতা-কর্মীর উপস্থিতিতে ছাত্র সমাবেশটি সরব হয়ে উঠে। নেতা-কর্মীরা বুকে কালো ব্যাজ ধারণ করে ‘আমরা ভাই কবরে, খুনি কেনো বাইরে’ এই বক্তব্য লেখা কাফনের কাপড় পড়ে তাদের প্রতিবাদ জানায়।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, সরকার আইএমএফ‘এর কাছে ঋণ চেয়েছে প্রায় ৪‘শ কোটি ডলার। কারণ তারা এতো মিথ্যাচার করে এসেছে যে, রিজার্ভে এতো টাকা আছে, এতো ডলার জমা আছে তাদের কোনো চিন্তা কারণ নেই। আজকে রিজার্ভ কমে যাওয়ার কারণে আইএমএফ, ওয়ার্ল্ড ব্যাংক, এডিবির কাছে ডলার ঋণ চেয়েছে। আইএমএফের ডলার ঋণের শর্ত খুব শক্ত। তারা বলেছে যে, কোথাও কোন অধিক ব্যয় করা যাবে না, যেসব সমস্ত খাতে ভর্তুকি দেয়া হয়েছে সেই ভুর্তকিগুলো প্রত্যাহার করা হোক।
জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির প্রভাব তুলে ধরে বিএনপি মহাসচিব বলেন, এই জ্বালানি তেলে মূল্য বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে বেড়ে যাবে পরিবহন ব্যয়, পরিবহন ভাড়া। একই সঙ্গে নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য চাল-ডাল-আটা-তেল আবার দ্বিগুণ হয়ে যাবে। মাঝ খান থেকে ক্ষতিগ্রস্থ হবে সাধারণ মানুষ। এভাবে বার বার বিদ্যুতের দাম, গ্যাসের দাম, জ্বালানি তেলের দাম, সোয়াবিন তেলের দাম, পানির দাম বাড়ানো হচ্ছে। মানুষের ওপরে অত্যাচার-নির্যাতন চলছে। মানুষ এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে, মানুষের দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে।

বিএনপি নয়, সরকারই চক্রান্ত করছে উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, অন্যায়-অত্যাচার-নিপীড়নের বিরুদ্ধে কথা বললে তারা (সরকার) বলে যে, চক্রান্ত। চাক্রান্ত তো করেন আপনারা। কে চক্রান্ত করছে বলেন। আমরা চক্রান্ত করি না। আমরা প্রকাশ্যে ঘোষণা নিয়ে এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দেয়ার জন্য জনগণের কাছে যাচ্ছি এবং তাদেরকে নিয়ে আমরা রাজপথে ফয়সালা করব। তাহলেই ‘নুরে আলম ও আবদুর রহিমের রক্তের ঋণ আমরা শোধ করতে পারব।
স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, নুরে আলম ও আবদুল রহিম জীবন দিলো কেনো? জনগণের দাবি আদায় করতে গিয়ে। এই সরকারের আন্দোলনের সফল করতে হলে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে রাস্তায় নামতে হবে। আমার শেষ কথা, হঠাও হাসিনা, বাঁচাও দেশ। জনগণের বাংলাদেশ। টেক ব্যাক বাংলাদেশ।”

ছাত্রদলের সভাপতি কাজী রওনাকুল ইসলাম শ্রাবণ এবং সাধারণ সম্পাদক সাইফ মাহমুদ জুয়েল ও সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবের পরিচালনায় ছাত্র সমাবেশে বিএনপির শামসুজ্জামান দুদু, আমান উল্লাহ আমান, আবদুস সালাম, রুহুল কবির রিজভী, আসাদুজ্জামান রিপন, খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, নাজিম উদ্দিন আলম, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, কামরুজ্জামান রতন, এবিএম মোশাররফ হোসেন, আজিজুল বারী হেলাল, আমিরুল ইসলাম আলীম, সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, মোনায়েম মুন্না, আবদুল কাদির ভুঁইয়া জুয়েল, শহিদুল ইসলাম বাবুল, হাবিবুর রশীদ হাবিব, রাজীব আহসান, আকরামুল হাসান, ফজলুর রহমান খোকন, ইকবাল হোসেন শ্যামল, মহানগর বিএনপির রফিকুল আলম মজনু, আমিনুল হক, ছাত্রদলের রাশেদ ইকবাল খান, আবু আফসার মোহাম্মদ ইয়াহিয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আখতার হোসেন প্রমূখ নেতারা বক্তব্য রাখেন।



 

Show all comments
  • Hasan Mahbub ৭ আগস্ট, ২০২২, ৮:৩৩ এএম says : 0
    সাইকেল চালান, খরচ কমান-সুস্থ থাকুন সাইকেল চালাতে জ্বালানি খরচ নেই, ফলে একস্থান থেকে অন্যস্থানে যাতায়াত করতে ব্যয়ও তেমন নেই
    Total Reply(0) Reply
  • Md Anwar Taluckder ৭ আগস্ট, ২০২২, ৮:৩৩ এএম says : 0
    আমলাতন্ত্র ভাঙ্গতে না পারলে দেশ কঠিন বিপর্যয়ের মুখে পড়বে ঘোষনা ছাড়াই তেলের দাম বৃদ্ধি এটাই তার প্রমাণ
    Total Reply(0) Reply
  • Hasan Mahbub ৭ আগস্ট, ২০২২, ৮:৩৩ এএম says : 0
    বাংলাদেশ ও দিন দিন শ্রীলংকার পথে হাটছে।শ্রীলংকার মানুষ এতো সচেতন হওয়ার পরও এই অবস্থায়।তারমানে বাংলাদেশের অবস্থা কি শ্রীলংকার চেয়ে খারাপের দিকে??কারণ বাংলাদেশের মানুষের সচেতন শব্দটা এখনো
    Total Reply(0) Reply
  • Razib Ahmed ৭ আগস্ট, ২০২২, ৮:৩৪ এএম says : 0
    যে কোন বিষয় ভারসাম্য ঠিক রাখতে হলে পূর্ব প্রস্তুতি প্রয়োজন। তেলের ক্ষেত্রে পূর্ব পরিকল্পনা প্রস্তুতি নেই।
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: মির্জা ফখরুলের


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ