Inqilab Logo

বুধবার, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ২০ আশ্বিন ১৪২৯, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

ঈশ্বরদীতে অল্পের জন্য আগুনে পোড়া থেকে রক্ষা পেলো কোটি টাকার সম্পদ, বেচে গেলো মহা মূল্যবান জীবন

ঈশ্বরদী উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৮ আগস্ট, ২০২২, ৩:৫৭ পিএম

ঈশ্বরদীতে অল্পের জন্য আগুনে পোড়া থেকে রক্ষা পেয়েছে কোটি কোটি টাকা মূল্যের স্থাপনাসহ মালামাল। দূর্ঘটনার কবল থেকে বেচে গেছে মহামূল্যবান অনেকগুলো জীবন। যদি ফায়ার সার্ভিসের চৌকস কর্মীরা সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে এসে আগুন নেভাতে সক্ষম না হতো তাহলে হয়তো বিপুল পরিমাণ জানমাল ও সম্পদের ক্ষতি হতে পারতো। পরম করুনাময় স্রষ্টার অপার কৃপায় তাৎক্ষণিক ভাবে ব্যবস্থা গ্রহণের কারণে তা আর হয়নি। ঘটনাটি ঘটেছে আজ ৮ আগস্ট'২২ দুপুরে ঈশ্বরদী স্টেশন রোডস্থ চাঁদআলী মোড় সংলগ্ন বাজারে। ঘটনাস্থলের সন্নিকটে এই প্রতিবেদক অপর একটি দোকানে অবস্থানকালে
আনুমানিক দুপুর ১টা ৫ মিনিটের সময় উল্লেখিত বাজারের রত্না জুয়েলার্সের দোকানে অসাবধানতাবসত মিনি গ্যাসসিলিন্ডার বিস্ফোরিত হয়ে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। এই প্রতিবেদক অগ্নিকান্ডের স্বরূপ প্রতক্ষ্য করার সাথে সাথে ঈশ্বরদী ফায়ার সার্ভিসে তাৎক্ষণিক আগুনের সংবাদ প্রদান করলে ফায়ার সার্ভিস দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে স্বল্প সময়ের মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে ও পুরোপুরি নেভাতে সক্ষম হয়। ফায়ার সার্ভিসের উপস্থিতির পূর্বে দোকান মালিকরা আগুন নেভানোর চেষ্টা করেও ব্যার্থ হয়। এই দোকানগুলোর পেছনের বাড়িতে এই মার্কেটের মালিকরা সপরিবারে বসবাস করেন। ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হওয়ার পূর্বমুহূর্ত পর্যন্ত যতটুকু ক্ষতি হয়েছে তার পরিমাণ এসংবাদ লিখা পর্যন্ত নিরুপন করা সম্ভব হয়নি। দোকানের মালিক উজ্জ্বল কর্মকার (৪০) আগুনে পুড়ে আহত হয়ে বর্তমানে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার কারণে ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি। তবে দোকানের অনেক মালামাল পুড়ে গেছে। অন্যদিকে, রক্ষা পেয়েছে নগদ কয়েক লক্ষ টাকা। ঈশ্বরদী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ইনচার্জ অপু কুমার মন্ডল জানিয়েছেন, ক্ষতিগ্রস্থ দোকানের মালিক উজ্জ্বল কর্মকার ফিরে না আসা পর্যন্ত বিস্তারিত তথ্য জানা সম্ভব নয়। তিনি আগুনের সংবাদ জানানোর জন্য এই প্রতিবেদককে ধন্যবাদ জানিয়ে আক্ষেপ করে বলেন, ঈশ্বরদীর মানুষ এখনো ফায়ার সার্ভিস সম্পর্কে যথেষ্ট সচেতন নয়। যে কারণে দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর ক্ষেত্রে বাঁধাগ্রস্থ হতে হয়। আমরা যখন দূর্ঘটনাস্থলে যায় তখন রাস্তায় চলাচলকারী যানবাহন ও পথচারী আমাদের গাড়িকে যাবার সুযোগ দেয়না, বাঁধাগ্রস্থ করে। এমনটি হওয়া মোটেই উচিত নয়। কারণ সময় মতো দূর্ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে না পারলে বিরাট ধরনের ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে। যা পুষিয়ে নেয়া হয়তো কোনোভাবেই সম্ভব নয়। তিনি এব্যাপারে ঈশ্বরদীর মানুষের সজাগদৃষ্টি প্রত্যাশা করেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ