Inqilab Logo

রোববার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০ আশ্বিন ১৪২৯, ২৮ সফর ১৪৪৪

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধি চ্যালেঞ্জ করে রিট

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৯ আগস্ট, ২০২২, ১২:০০ এএম

জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে রিট করা হয়েছে। গতকাল (সোমবার) রিটটি ফাইল করেন সুপ্রিম কোর্টের অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দ। রিটে জ্বালানি মন্ত্রণালয়ের সচিব ও বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের চেয়ারম্যানকে বিবাদী করা হয়েছে। রিটে জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনের কার্যক্রম স্থগিত এবং বাতিলে রুল চাওয়া হয়েছে। বিচারপতি মো: মজিবুর রহমান মিয়া এবং বিচারপতি কাজী মো: ইজারুল হক আকন্দের ডিভিশন বেঞ্চে রিটটির শুনানি হতে পারে বলে জানিয়েছেন এই আইনজীবী।
প্রসঙ্গত: গত ৫ আগস্ট শুক্রবার রাতে আকস্মিকভাবেই সরকার জ্বালানি তেলের দাম বাড়িয়ে দেয়। ওইদিন রাত ১২টার পর থেকেই বর্ধিত মূল্য কার্যকর করা হয়। বর্ধিত মূল্য অনুযায়ী এখন
প্রতি লিটার ডিজেল ৮০ টাকা থেকে ৩৪ টাকা বেড়ে ১১৪ টাকা হয়েছে। কেরোসিন ৩৪ টাকা বাড়িয়ে ১১৪ টাকা, অকটেন ৪৬ টাকা বাড়িয়ে ১৩৫ টাকা এবং পেট্টল ৪৪ টাকা বাড়িয়ে ১৩০ টাকা হারে কিনতে হচ্ছে। গত শুক্রবার রাত ১০টায় বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপপ্রধান তথ্য অফিসার মীর মোহাম্মদ আসলাম উদ্দিন স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের মূল্য বাংলাদেশের তুলনায় অনেক বেশি হওয়ায় বাংলাদেশ পেট্টোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি), ইস্টার্ন রিফাইনারি লিমিটেড (ইআরএল)-এ পরিশোধিত এবং আমদানি/ক্রয়কৃত ডিজেল,কেরোসিন,অকটেন ও পেট্টলের মূল্য সমন্বয় কওে ভোক্তা পর্যায়ে এই দাম পুনঃনির্ধারণ করা হলো।
আরও বলা হয়, বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের উর্ধ্বগতির কারণে পার্শ্ববর্তী দেশসহ বিভিনড়ব দেশে নিয়মিত তেলের মূল্য সমন্বয় করা হয়। ভারত গত ২২ মে থেকে কলকাতায় ডিজেলের মূল্য প্রতি লিটার ৯২ দশমিক ৭৬ রুপি এবং পেট্টল ১০৬ দশমিক ০৩ রুপি নির্ধারণ করেছে।এই মূল্য বাংলাদেশী টাকায় যথাক্রমে ১১৪ দশমিক ০৯ টাকা এবং ১৩০.৪২ টাকা (১ রুপি = ১.২৩ টাকা ধরে)। অর্থাৎ বাংলাদেশে কোলকাতার তুলনায় ডিজেলের মূল্য লিটার প্রতি ৩৪ দশমিক ০৯ এবং পেট্টল লিটার প্রতি ৪৪ দশমিক ৪২ টাকা কমে বিক্রি হচ্ছিল। তাই সংশ্লিষ্টরা বলছেন,তেল পাচার হওয়ার আশঙ্কা থেকেও জ্বালানি তেলের মূল্য বাড়ানো ছিল সময়ের দাবি।
বিজ্ঞপ্তিতে এ কথাও বলা হয় যে, বাংলাদেশ পেট্টোলিয়াম করপোরেশন বিগত ৬ মাসে জ্বালানি তেল বিক্রয়ে (সব পণ্য) ৮০১৪ কোটি ৫১ লাখ টাকা লোকসান দিয়েছে। বর্তমানে, আন্তর্জাতিক তেলের বাজার পরিস্থিতির কারণে বিপিসির আমদানি কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখতে যৌক্তিক মূল্য সমন্বয়ও অপরিহার্য হয়ে পড়েছিল।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ