Inqilab Logo

সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

আরো দুই আসামির আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

টাঙ্গাইলে বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণ মামলা

টাঙ্গাইল জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১১ আগস্ট, ২০২২, ১২:০০ এএম

কুষ্টিয়া থেকে আসা ঈগল পরিবহনের বাসে টাঙ্গাইলে ডাকাতি ও ধর্ষণের ঘটনায় তিন দিনের রিমান্ডে নেওয়া ৬ আসামির মধ্যে মো. সোহাগ মন্ডল এবং মো. বাবু হোসেন জুলহাস আদালতে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। গতকাল বুধবার মধুপুর আমলী আদালতের বিচারক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নওরিন করিম আসামিদের এ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি লিপিবদ্ধ করেন।

টাঙ্গাইলের আদালত পরিদর্শক তানবীর আহম্মদ জানান, মামলার তদন্ত কর্মকর্তা টাঙ্গাইল ডিবি পুলিশের (উত্তর) অফিসার ইনচার্জ মো. হেলাল উদ্দিন বুধবার রিমান্ডে থাকা ৬ আসামির মধ্যে ২ আসামিকে আদালতে প্রেরণ করেন। পরে আসামিদ্বয় বাসে ডাকাতি ও ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকা মর্মে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে। আদালতের বিচারক জবানবন্দি লিপিবদ্ধ শেষে সন্ধ্যায় আসামিদের জেল হাজতে প্রেরণ করেন। এ নিয়ে মোট ৯ জন আসামি আদালতে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করেছে। অপরদিকে চার আসামি ডিবি পুলিশের হেফাজতে তিন দিনের রিমান্ডে রয়েছে।

রিমান্ডে নেওয়া ৪ আসামিরা হলো- মূল পরিকল্পনাকারী টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার মজিবুর রহমানের ছেলে মো. রতন হোসেন, জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ি এলাকার মো. সোলায়মান খন্দকারের ছেলে খন্দকার মো. হাসমত আলী দিপু, নীলফামারী সদর থানার মৃত জাবেদের ছেলে মো. জীবন প্রামানিক ও খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা এলাকার মো. খলিলের ছেলে মো. আব্দুল মান্নান।

স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়া ৯ আসামি হলো- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নবীনগর এলাকার মো. সাদেক মিয়ার ছেলে মো. আলাউদ্দিন, গাজীপুর জেলার কাশেমপুর এলাকার মো. মমিন সরকারের ছেলে মো. নাঈম তালুকদার, সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ এলাকার মো. আবুল তালুকদারের ছেলে রাসেল তালুকদার এবং সিরাজগঞ্জ জেলার কামারখন্দ এলাকার মৃত আবুল তালুকদারের ছেলে মো. আসলাম তালুকদার রায়হান, জামালপুর জেলার মেলান্দহ এলাকার শামসুল মন্ডলের ছেলে মো. সোহাগ মন্ডল, ঢাকা জেলার আশুলিয়া এলাকার মো. জামির হোসেনের ছেলে মো. বাবু হোসেন জুলহাস। এর আগে এ মামলায় রাজা মিয়া, আব্দুল আওয়াল ও নুরনবীকে গ্রেফতার করা হয়। পরে আদালতে তারা এ ঘটনায় জড়িত থাকা মর্মে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। পরে তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। এ মামলায় মোট ১৩ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরমধ্যে ৯ আসামি আদালতে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ