Inqilab Logo

মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

পিটিআইকে সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে দাঁড় করানোর ষড়যন্ত্র হচ্ছে : ইমরান খান

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১২ আগস্ট, ২০২২, ১২:০৩ এএম

পিটিআই চেয়ারম্যান এবং পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বুধবার জোট সরকারের বিরুদ্ধে তার দলকে সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে দাঁড় করানোর ষড়যন্ত্রের জন্য অভিযুক্ত করেছেন। ইসলামাবাদ থেকে ভিডিও লিঙ্কের মাধ্যমে সমর্থকদের উদ্দেশে এক ভাষণে তিনি বলেন, ‘তারা পিটিআইকে চ‚র্ণ করার পরিকল্পনা তৈরি করেছে।’
সাবেক প্রধানমন্ত্রী এবং অন্যান্য পিটিআই নেতারা দেশের প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ঘৃণা ছড়াচ্ছেন বলে সরকার অভিযোগ করার পরে ইমরানের এ বিবৃতি এসেছে। মঙ্গলবার পিটিআই নেতা শাহবাজ গিলকে রাষ্ট্রদ্রোহ এবং রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে জনসাধারণকে উসকানি দেয়ার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছিল। গিলকে বুধবার ইসলামাবাদ হাইকোর্টে পেশ করা হয় যেখানে, আদালত এ রাজনীতিকের দুই দিনের শারীরিক রিমান্ড মঞ্জুর করে।
এদিন তার ভাষণে ইমরান বলেন যে, পাকিস্তানের বৃহত্তম রাজনৈতিক দল এবং সেনাবাহিনীকে প্রতিপক্ষ হিসাবে উপস্থাপন করার জন্য একটি ‘ভয়ঙ্কর ষড়যন্ত্র’ তৈরি করা হচ্ছে। ‘আমি আপনাকে বলি...এ চক্রান্ত অত্যন্ত বিপজ্জনক এবং দেশের ক্ষতি করতে পারে,’ তিনি বলেন, পিটিআই যখন ক্ষমতায় আসে, তখন জোট সরকার সেনাবাহিনীর সাথে তার সম্পর্ক দেখে ‘ব্যথিত’ হয়েছিল।

পিটিআই প্রধান বলেন, ‘এই নওয়াজ এবং জারদারি যারা আজ আমাদের বিশ্বাসঘাতক বলছেন তারা আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্মে গিয়ে সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন,’ পিটিআই প্রধান বলেছেন এবং তারপর জোট নেতাদের অতীতের বিবৃতির ক্লিপ প্লে করতে গিয়েছিলেন। ‘আজকে বলা হচ্ছে, আমরা সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে এবং এখন তারা দেশপ্রেমিক হয়ে উঠেছে যারা আমাদের দেশদ্রোহী বলছে।’
ইমরান অব্যাহত রেখেছিলেন যে, এ সবই দল ভাঙার জন্য করা হয়েছে কারণ ‘এই মুহ‚র্তে পিটিআই, ফেডারেল এবং প্রাদেশিক উভয় স্তরেই দেশের বৃহত্তম ভোটার ব্যাঙ্ক রয়েছে’। ‘এবং তারা প্রথম যে কৌশলটি ব্যবহার করেছে তা হল আপনার সামনে (...) বিদেশী অর্থায়নের মামলা।’ মামলাটি ভিত্তিহীন বলে দাবি করেন তিনি। ‘তারা শুধু দেখানোর চেষ্টা করছে যে আমরা বিদেশী পাকিস্তানিদের কাছ থেকে যে অর্থ সংগ্রহ করেছি তা বেআইনি। তারা সেই দলটিকে অভিযুক্ত করছে যারা তহবিল সংগ্রহ থেকে অর্থ সংগ্রহ করেছে এবং তাদের কাছে বিশ্বাসযোগ্য অডিট রিপোর্ট রয়েছে।’

ইমরান বলেন, গত চার থেকে পাঁচ বছর ধরে আদালত বলছে যে সব রাজনৈতিক দলের তহবিলের অডিট করা উচিত। ‘কিন্তু ইসিপি (পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন) জানে যে এই দলগুলি অবৈধভাবে অর্থ সংগ্রহ করেছে এবং এই কারণেই এটি তাদের তদন্ত করবে না,’ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী দাবি করেছেন, যেদিন বিষয়টি আদালত দ্বারা তদন্ত করা হবে, এটি হবে। প্রমাণিত হবে যে ‘শুধুমাত্র পিটিআই পাকিস্তানে বৈধভাবে অর্থ সংগ্রহ করেছে’।
পিটিআই চেয়ারম্যান আরো বলেন, তার দল সর্বদা প্রতিটি মোড়ে পাকিস্তানের কথা ভেবেছিল। তিনি বলেন যে, পিটিআই রাস্তায় নেমে ‘পুরো দেশ বন্ধ’ করার মতো ক্ষমতার অধিকারী ছিল কিন্তু বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থা এমন ছিল যে তাদের নিয়ে সবার চিন্তা করা উচিত। তিনি ‘দেশের আকাশসীমা ব্যবহার নিয়ে পাকিস্তান এবং পশ্চিমের মধ্যে চুক্তি’র গুজব নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন, সতর্ক করে দিয়ে তিনি বলেন যে, এ জাতীয় যে কোনো জিনিস কেবল দেশে আরো ধ্বংস এবং প্রাণহানির দিকে নিয়ে যাবে। সূত্র : ডন।

 



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: ইমরান খান


আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ