Inqilab Logo

সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

সাভারে স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে স্বামী গ্রেপ্তার, পলাতক শ্বশুর ও শ্বাশুড়ি

সাভার থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১২ আগস্ট, ২০২২, ৫:৩৩ পিএম

ঢাকার সাভারে শ্বাসরুদ্ধ করে স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগে স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। এঘটনায় জড়িত সন্দেহে নিহতের শ্বশুর ও শ্বাশুড়িকে খুঁজছে পুলিশ।

নিহত সামিয়া আক্তার (২৩) মানিকগঞ্জ জেলার সিঙ্গাইর থানা এলাকার মিজানুর রহমানের মেয়ে।
গ্রেপ্তার সাদনাম সাকিব হৃদয় (৩০) সাভার পৌর এলাকার ব্যাংক কলোনী মহল্লার জাকারিয়া হোসেনের ছেলে। তিনি একসময় গ্রামীন ফোনে চাকরি করতেন। বর্তমানে বেকার রয়েছেন।

শুক্রবার সকালে সাভার পৌর এলাকার ব্যাংককলোনি মহল্লার বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এর আগে বৃহস্পতিবার রাতে সাভারের এনাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে সামিয়ার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।
সাভার মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কাজী মাইনুল ইসলাম বলেন, গৃহবধু সামিয়াকে হত্যার অভিযোগ উঠার পর তার স্বামি সাদনাম সাকিব হৃদয়কে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শ্বশুর জাকারিয়া হোসেন ও শ্বাশুড়ি জায়েদা পারভিনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। তারা দুইজন পলাতক রয়েছে। এছাড়াও সামিয়ার মৃত্যুর বিষয়টি গভীরভাবে তদন্ত করা হচ্ছে।

নিহতের ছোট মামা আশিকুর রহমান বলেন, প্রায় ৫বছর আগে পারিবারিক ভাবে সামিয়াকে বিয়ে করে হৃদয়। বিয়ের সময় সামিয়ার বাবা ও মামারা মিলে ২৫ ভরি স্বর্ণের গহনা, মোটরসাইকেল ও দামী ফার্নিচার উপঢৌকন হিসাবে দেয়া হয়। বিয়ের কয়েক মাস যেতে না যেতেই সেই সামিয়ার গহনা কৌশলে নিজের কাছে নেয় শ্বাশুড়ি জায়েদা পারভিন। এরপর প্রায়ই গহনা নিয়ে শ্বশুর-শ্বাশুড়ি ও স্বামীর সাথে কাটাকাটি হতো সামিয়ার।
তিনি আরও বলেন, গতকালও (বৃহস্পতিবার) গহনা নিয়ে কথা কাটাকাটি হয় স্বামী ও শশুর-শ্বাশুরি সাথে। এরপর বিকালের দিকে সামিয়া ফোন করে আমাদের জানায়, শ্বশুড় বাড়ির লোকজন গহনার বিষয় নিয়ে তাকে মারধর করেছে ।
তার কিছুক্ষন পরেই সামিয়ার স্বামী সাদনাম আমাদের ফোনে জানায় সামিয়া স্টোক করেছে, হাসপাতালে আছে। পরে আমরা এনাম মেডিকেলে গিয়ে সামিয়ার মরদেহ দেখতে পাই।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, সামিয়াকে শ্বাসরোধ করে হত্যার পর তাকে হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে স্টক করে মারা যাওয়ার নাটক সাজাচ্ছে সাদনাম ও তার পরিবার। আমরা তাদের কঠিন বিচার দাবী করছি -বলেন তিনি।
ওসি বলেন, মরদেহ হাসপাতাল থেকে উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।
এঘটনায় নিহত সামিয়ার বাবা মিজানুর রহমান বাদী হয়ে জামাই সাদনাম সাকিব হৃদয়, বেয়াই জাকারিয়া হোসেন ও বেয়াইন জায়েদা পারভিনকে আসসামী করে সাভার মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।



 

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

ঘটনাপ্রবাহ: হত্যা

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২২

আরও
আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ