Inqilab Logo

সোমবার, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী
শিরোনাম

সালমান রুশদির ওপর আক্রমণকারীর পরিচয় প্রকাশ?

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৩ আগস্ট, ২০২২, ১:৪১ পিএম

বুকারজয়ী ঔপন্যাসিক ও প্রাবন্ধিক সালমান রুশদির ওপর নিউইয়র্কে হামলা হয়েছে। গুরুতর অবস্থায় তিনি এখন হাসপাতালে আছেন। তিনি ভেন্টিলেশনে আছেন।

রয়টার্সের প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, সালমান রুশদির ওপর আক্রমণকারীকে সঙ্গে সঙ্গেই গ্রেফতার করা হয়। এবার তার পরিচয় প্রকাশ্যে এসেছে। জানা গেছে হাদি মাটার নামে ওই ব্যক্তির বয়স ২৪ বছর। থাকেন নিউ জার্সিতে।
এদিকে পুলিশ এখনও স্পষ্টভাবে এই হামলার কারণ সম্পর্কে কিছু জানায়নি। তবে জানা গেছে, অভিযুক্ত হাদি ইরানিস সরকারের প্রতি সহানুভূতিশীল।
প্রসঙ্গত, ১৯৮৮ সাল থেকে ইরানে নিষিদ্ধ হয় রুশদির লেখা 'দ্য স্যাটানিক ভার্সেস'। একাধিক মুসলিম সংগঠনের দাবি, ইসলাম ধর্মের বিরুদ্ধে কথা বলেন সালমান রুশদি।
ওই বইয়ের কারণে ১৯৮৯ সালে ইরানের নেতা আয়াতোল্লাহ খামেনিই সালমান রুশদির বিরুদ্ধে 'ফতোয়া' দিয়েছিলেন। রুশদির মৃত্যুদণ্ড জারি করেছিলেন। খামেনিই বলেছিল, যে সালমানকে হত্যা করবে তাকে তিন বিলিয়ন মার্কিন ডলার দেওয়া হবে। পরে ২০১২ সালে সেই ঘোষিত পুরস্কারের পরিমাণ আরও বাড়ানো হয়।
জানা গেছে, অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য হামলাকারীর হাদির কাছে একটি পাস ছিল। তার শেষ অফিশিয়াল ঠিকানা ফেয়ারভিউতে। হাডসন নদী পার করে ম্যানহাটনের বিপরীতে এই ফেয়ারভিউ। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে হাদি একেই ছিলেন। এফবিআই নিউইয়র্ক পুলিশকে এই ঘটনার তদন্তে সাহায্য করছে।
ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি ব্যাগ উদ্ধার করেছে যাতে বিভিন্ন ধরনের ডিভাইস ছিল।
হাদির ফেসবুক প্রোফাইলে আয়াতোল্লাহ খামেনিইর ছবি রয়েছে। মার্কিন সংবাদমাধ্যমের দাবি, হাদি ধারাবাহিকভাবে ইরানের কট্টপন্থী সরকার ও রেভোলিউশনারি গার্ডকে সমর্থন জানিয়ে পোস্ট করত। যে মঞ্চে রুশদির ভাষণ দেওয়ার কথা ছিল সেখানে যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা ছিল না। সেই সুযোগেই এই ঘটনা ঘটেছে। এই বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।
প্রতক্ষ্যদর্শীদের দাবি, হাদি কালো শার্ট এবং কালো মুখোশ পরে ছিল।
এর আগে শুক্রবার সকালে পশ্চিম নিউইয়র্কের শাটোকোয়া ইনস্টিটিউশনের আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দেওয়ার সময় সালমান রুশদির ওপর হামলা চালান হাদি মাটার।



 

Show all comments
  • Kazi mamunoor rashid ১৩ আগস্ট, ২০২২, ৩:২০ পিএম says : 0
    I want Salman rushdi must died.
    Total Reply(0) Reply

দৈনিক ইনকিলাব সংবিধান ও জনমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। তাই ধর্ম ও রাষ্ট্রবিরোধী এবং উষ্কানীমূলক কোনো বক্তব্য না করার জন্য পাঠকদের অনুরোধ করা হলো। কর্তৃপক্ষ যেকোনো ধরণের আপত্তিকর মন্তব্য মডারেশনের ক্ষমতা রাখেন।

আরও পড়ুন
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ